[Valid RSS]
October 1, 2022, 1:45 pm
Treanding
GIZ Bangladesh’s training held on SDG localisation in Khulna ছোটদের সহজ প্রোগ্রামিং শিক্ষায় প্রকাশিত হল বাংলা স্ক্র্যাচ বই Ditching Russian gas no way to reach climate goals : Putin চট্টগ্রামে নিরাপদ খাদ্য বিষয়ে প্রচারনা কর্মসূচি সমাপ্ত Samsung brings month-long smartphone campaign On September 6–7, Vladimir Putin will make working trip to Vladivostok Two Russian embassy workers killed in ‘suicide bombing’ Shocked & devastated by the horrific attacks : Justin Trudeau  SSC, equivalent exams begin Sept 15: Dipu Moni Ten killed in Canadian stabbing spree Russia wants UN to pressure US : media Daraz Bangladesh Anniversary Campaign – Now LIVE! realme offers upto BDT 3400 off on occasion of Daraz’s 8th anniversary General Pharmaceuticals employees will receive insurance from MetLife চট্টগ্রামের কলেজিয়েট স্কুলে নিরাপদ খাদ্য বিষয়ে প্রচারনা কর্মসূচি শুরু Bangladesh a secular country, immediate action is taken whenever minorities are attacked: PM  Two more mortar shells from Myanmar land in Bangladesh OPPO launches killer device A57 in 15-20K price range ShareTrip and Grameenphone join hands to offer exciting travel privileges ড্যাপ ২০২২-২০৩৫ এর পরিপূর্ণ বাস্তবায়নের দাবী বিআইপির

১১ আগস্ট এক নজরে বাংলাদেশ

Bangladesh Beyond
  • Updated on Thursday, August 11, 2022
  • 84 Impressed

১১ আগস্ট এক নজরে বাংলাদেশ

 

ঢাকা ১১ আগস্ট ২০২২ :

 

অসাম্প্রদায়িক চেতনার মূর্তপ্রতীক শেখ হাসিনা : খাদ্যমন্ত্রী

 

ঢাকা, ২৭ শ্রাবণ (১১ আগস্ট) :

          খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদার বলেছেন, অসাম্প্রদায়িক চেতনার মূর্তপ্রতীক প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি সকল ধর্মের উন্নয়নে নিরলস কাজ করছেন।

          আজ ঢাকায় ঢাকেশ্বরী জাতীয় মন্দির প্রাঙ্গণে ‘তীর্থ পরিক্রমা ২০২২’ এর উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে মন্ত্রী এসব কথা বলেন।

          খাদ্যমন্ত্রী বলেন, শেখ হাসিনার সরকার ক্ষমতায় আছেন বলেই প্রতি উপজেলায় তিনটি করে মন্দির নির্মাণ করা সম্ভব হয়েছে। প্রাচীন মন্দিরগুলো সংস্কারের মাধ্যমে আধুনিক মন্দিরে রূপান্তরিত করার প্রক্রিয়া চলমান রয়েছে বলে উল্লেখ করেন তিনি।

          সাধন চন্দ্র মজুমদার বলেন, সমাজে অনেক সামর্থ্যবান মানুষ রয়েছেন তারা অসামর্থ্যবানদের তীর্থযাত্রায় সহযোগিতা করতে পারেন। এসময় তিনি পূণ্য লাভের মহৎ উদ্দেশ্যে তীর্থযাত্রায় সহযোগিতার হাত বাড়াতে সামর্থ্যবানদের প্রতি আহ্বান জানান।

          হিন্দু ধর্মীয় কল্যাণ ট্রাস্টের সচিব ডা. দিলীপ কুমার ঘোষের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন সংসদ সদস্য ও হিন্দু ধর্মীয় কল্যাণ ট্রাস্টের সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান মনোরঞ্জন শীল গোপাল, ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব মোঃ মুনিম হাসান, হিন্দু ধর্মীয় কল্যাণ ট্রাস্টের ভাইস চেয়ারম্যান সুব্রত পাল,বাংলাদেশ পূজা উদ্যাপন পরিষদের সভাপতি জে এল ভৌমিক, মহানগর সার্বজনীন পূজা কমিটির সভাপতি মনীন্দ্র কুমার নাথ  এবং সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক চন্দ্রনাথ পোদ্দার।

          দ্বিতীয়বারের ন্যায় আয়োজিত তীর্থ পরিক্রমায় এবছর ৩১ জন তীর্থযাত্রী (১১-২৪ আগস্ট পর্যন্ত) ভারতের মায়াপুর,তারাপীঠ, গয়া,কাশী,বৃন্দাবন, মথুরা,দেওঘর ও কোলকাতা ভ্রমণ করবেন। ২০১৯ সালে প্রথম তীর্থ পরিক্রমা আয়োজন করে হিন্দু ধর্মীয় কল্যাণ ট্রাস্ট।

 

শিল্পাঞ্চলসমূহে এলাকাভিত্তিক সাপ্তাহিক ছুটির দিন নির্ধারণ করেছে সরকার

 

ঢাকা, ২৭ শ্রাবণ (১১ আগস্ট) :

          দেশের শিল্পাঞ্চলসমূহে বিদ্যুৎ সরবরাহ নির্বিঘ্ন করার লক্ষ্যে ভিন্নভিন্ন দিনে সাপ্তাহিক ছুটি পুনর্বিন্যাস করে সাপ্তাহিক বন্ধের দিন নির্ধারণ করেছে সরকার।

          আজ শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের অধীন কলকারখানা ও প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন অধিদপ্তর এ সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপন জারি করেছে।

          কলকারখানা ও প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন অধিদপ্তরের মহাপরিদর্শক মোঃ নাসির উদ্দিন আহমেদ স্বাক্ষরিত এ প্রজ্ঞাপনে বলা হয়েছে- বাংলাদেশ শ্রম আইন, ২০০৬ এর ১১৪(২) ধারার ক্ষমতাবলে সারা দেশের শিল্প প্রতিষ্ঠানের জন্য জনস্বার্থে সাপ্তাহিক বন্ধের দিন ধার্য করা হলো। বৈদ্যুতিক এলাকা এবং এলাকার নাম উল্লেখ করে জারি করা এ প্রজ্ঞাপন পুনরাদেশ না দেয়া পর্যন্ত জনস্বার্থে কার্যকর থাকবে বলে উল্লেখ করা হয়েছে।

 

রাষ্ট্রপতির সাথে রোটারি ইন্টারন্যাশনালের প্রেসিডেন্টের সাক্ষাৎ

 

ঢাকা, ২৭ শ্রাবণ (১১ আগস্ট): 

করোনার মতো মহামারিসহ প্রাকৃতিক দুর্যোগে ক্ষতিগ্রস্ত মানুষের কল্যাণে রোটারিসহ মানবিক সংস্থাগুলোকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানিয়েছেন রাষ্ট্রপতি মোঃ আবদুল হামিদ।

সফররত রোটারি ইন্টারন্যাশনালের প্রেসিডেন্ট জেনিফার ই জোনস আজ বঙ্গভবনে সাক্ষাৎ করতে আসলে রাষ্ট্রপতি এ আহ্বান জানান।

সাক্ষাৎকালে জেনিফার ই জোনস রোটারি ইন্টারন্যাশনালের কার্যক্রম সম্পর্কে রাষ্ট্রপতিকে অবহিত করেন। এ সময় তিনি বাংলাদেশে রোটারি ইন্টারন্যাশনালের বিভিন্ন কার্যক্রমও তুলে ধরেন। এছাড়া করোনা মোকাবিলায় সরকারের গৃহীত কর্মসূচিরও প্রশংসা করেন তিনি।

এ সময় জলবায়ু পরিবর্তনসহ বিভিন্ন প্রাকৃতিক দুর্যোগ গোটা বিশ্বকে অনেক বেশি অসহনীয় করে তুলছে উল্লেখ করে রাষ্ট্রপতি মোঃ আবদুল হামিদ এসব সমস্যার সমাধানে রোটারিয়ানদের আরো বেশি অবদান রাখার আহ্বান জানান। বিশ্ব শান্তি প্রতিষ্ঠায় বিভিন্ন দেশের সরকার ও নাগরিকদের মধ্যে অংশীদারিত্ব বাড়ানোর ওপর গুরুত্বারোপ করেন রাষ্ট্রপতি। এছাড়া স্থানীয় বিভিন্ন সমস্যা সমাধানে সরকারের ওপর নির্ভরশীল না হয়ে সমাজের বিত্তবানদের উদ্যোগ নেয়ার কথাও বলেন তিনি।

রাষ্ট্রপতির কার্যালয়ের সচিব সম্পদ বড়ুয়া, সামরিক সচিব মেজর জেনারেল এস এম সালাহ উদ্দিন ইসলাম, প্রেস সচিব মোঃ জয়নাল আবেদীন  এবং সচিব সংযুক্ত  মোঃ ওয়াহিদুল ইসলাম খান এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

 

সরকার এমন আইন করতে চায়, যেটা সমাজে বাস্তবায়ন করা সম্ভব : আইনমন্ত্রী

ঢাকা, ২৭ শ্রাবণ (১১ আগস্ট): 

আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রী আনিসুল হক বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকার এমন আইন করতে চায়, যেটা সমাজে বাস্তবায়ন করা সম্ভব। তিনি বলেন, বাস্তবসম্মত নয় এমন আইন সমাজের ওপর চাপিয়ে দিলে তা কেবল আইনের বইতেই থাকবে। বাস্তবে কোনো কাজে আসবে না। যেটা সরকার চায় না। এ সময় শিশুদের অধিকার রক্ষায় আইনের পরিমার্জন প্রসঙ্গে তিনি বলেন, শিশুদের উন্নয়নের জন্য আইনে যেসব পরিবর্তন করা দরকার তা অবশ্যই করা হবে।

 

আজ রাজধানীর গুলশানের লেকশোর হোটেলে ‘শিশু অধিকার সুরক্ষায় বাংলাদশের আইন’ পর্যালোচনা বিষয়ক এক কর্মশালায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে মন্ত্রী এসব কথা বলেন।

 

আইনমন্ত্রী বলেন, শিশুরাই দেশের ভবিষ্যৎ। তাই সকল শিশুকে সুস্থ ও নিরাপদ পরিবেশে বেড়ে ওঠার সুযোগ করে দিতে হবে। এক্ষেত্রে কোনো পথশিশু (টোকাই) ও বিত্তবানের শিশুর মধ্যেও পার্থক্য থাকা উচিত নয়। তিনি বলেন, সরকার শিশুদের মধ্যে বৈষম্য দূরীকরণের সর্বোচ্চ চেষ্টা করছে। দেশে বৈষম্য বিরোধী নামে একটি আইন প্রণয়ন করা হচ্ছে বলেও তিনি জানান।

 

মন্ত্রী বলেন, শিশুদের সুরক্ষা ও অধিকার প্রতিষ্ঠার ব্যাপারে সম্মিলিত প্রয়াস চালাতে হবে। এর পাশাপাশি সামাজিক সচেতনতা বৃদ্ধি করতে হবে। জালানি তেলের মূল্য বৃদ্ধির বিষয়ে তিনি বলেন, আজকের বৈশ্বিক বাস্তবতায় জ্বালানি তেলের মূল্য বৃদ্ধি ছাড়া সরকারের আর কোনো উপায় ছিল না।

 

ওয়ার্ল্ড ভিশন বাংলাদেশের পরিচালক (এডভোকেসি) টনি মাইকেল গমস এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি শামসুল হক টুকু, আইন মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য এবং অনুষ্ঠানের মূল প্রবন্ধ উপস্থাপক ব্যারিস্টার শামীম হায়দার পাটোয়ারী, আইন ও বিচার বিভাগের সচিব মোঃ গোলাম সারোয়ার, গণসাক্ষরতা অভিযানের নির্বাহী পরিচালক রাশেদা কে. চৌধুরী বক্তব্য রাখেন।

 

নবগঠিত ‘বাংলাদেশ শিল্পী কল্যাণ ট্রাস্ট’ এর যাত্রা শুরু

ঢাকা, ২৭ শ্রাবণ (১১ আগস্ট) :

          সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন নবগঠিত দপ্তর-সংস্থা ‘বাংলাদেশ শিল্পী কল্যাণ ট্রাস্ট’ এর আনুষ্ঠানিক যাত্রা শুরু হয়েছে। আজ রাজধানীর বাংলা একাডেমির বর্ধমান হাউসে স্থাপিত অস্থায়ী কার্যালয়ে নবগঠিত দপ্তরটির কার্যক্রমের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন সংস্কৃতি বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ।

          এ উপলক্ষ্যে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী বলেন, সারা  দেশের সকল ধরনের শিল্পীদের কল্যাণে ‘বাংলাদেশ শিল্পী কল্যাণ ট্রাস্ট’ কাজ করবে। কবি-সাহিত্যিকদের পাশেও এটি দাঁড়াবে। এ ট্রাস্ট শিল্পীদের একটি আশ্রয়ের জায়গা হিসেবে কাজ করবে।

          কে এম খালিদ বলেন, শিল্পীরা স্বাধীনভাবে জীবনযাপন করেন। করোনাকালে সারা দেশের প্রায় ২০ হাজার অসচ্ছল শিল্পীকে সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে সহযোগিতা করা হয়েছে। তিনি বলেন, বাংলাদেশ শিল্পী কল্যাণ ট্রাস্ট আইনের আওতায় দপ্তরটি চালু করার ফলে এর তহবিল আরো বৃদ্ধি করা যাবে।

          অনুষ্ঠানে সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব মোঃ আবুল মনসুর, বাংলাদেশ শিল্পী কল্যাণ ট্রাস্টের ব্যবস্থাপনা পরিচালক অসীম কুমার দে, বাংলা একাডেমির মহাপরিচালক কবি মুহম্মদ নূরুল হুদা, বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির মহাপরিচালক লিয়াকত আলী লাকী, বিশিষ্ট সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব রামেন্দু মজুমদারসহ মন্ত্রণালয়ের আওতাধীন বিভিন্ন দপ্তর ও সংস্থার প্রধানগণ উপস্থিত ছিলেন।

          উল্লেখ্য, অসচ্ছল শিল্পীদের কল্যাণ সাধন, শিল্পীদের কল্যাণার্থে প্রকল্প বাস্তবায়ন, অসুস্থ শিল্পীদের চিকিৎসা সহায়তা, শিল্পকর্মে বিশেষ অবদানের জন্য বৃত্তি প্রদান, শিল্পীদের মেধাবী ছেলেমেয়েদের শিক্ষার জন্য সহায়তা প্রদান, শিল্পী পরিবারকে সহায়তা প্রদানসহ বিভিন্ন কল্যাণমূলক কর্মকাণ্ড পরিচালনার উদ্দেশ্যে এ ট্রাস্ট প্রতিষ্ঠিত হয়েছে। সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়, বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমি ও বাংলা একাডেমি হতে অস্থায়ীভাবে দপ্তরটির জন্য প্রয়োজনীয় জনবলের সংস্থান করা হয়েছে।

 

পঞ্চগড় থেকে মানসম্মত শিক্ষা অর্জনের নয়া যাত্রা হবে : প্রাথমিক ও গণশিক্ষা সচিব

 

পঞ্চগড়, ২৭ শ্রাবণ (১১ আগস্ট): 

প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব আমিনুল ইসলাম খান বলেছেন, দেশের সর্ব উত্তরের জনপদ পঞ্চগড় একটি প্রাচীন ও ঐতিহ্যমণ্ডিত জনপদ। অসংখ্য জ্ঞানী, গুণী ও মনীষী এই মাটিতে জন্মে এ মানচিত্রকে ধন্য করেছেন। তাই মানসম্মত প্রাথমিক শিক্ষা অর্জনের নতুন যাত্রা পঞ্চগড় থেকে শুরু হবে। আর সেটিই হবে আগামী প্রজন্মের জন্য একটি সমৃদ্ধ স্বদেশ সৃষ্টির নিয়ামক। এই লক্ষ্য অর্জনে এ অঞ্চলের শিক্ষা অবকাঠামো উন্নয়ন, শিক্ষকদের প্রশিক্ষণসহ প্রয়োজনীয় সকল পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে।

 

সচিব আজ পঞ্চগড় পিটিআইতে জেলার প্রাথমিক বিদ্যালয়সমূহের প্রধান শিক্ষক, সহকারী শিক্ষক ও প্রাথমিক শিক্ষাসংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের সাথে মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন।

 

সিনিয়র সচিব বলেন, একটি মেধাবী ও দক্ষ জাতি তৈরির জন্য সর্বাগ্রে প্রয়োজন মানসম্মত শিক্ষা। আর শিক্ষার মানোন্নয়নে মানসম্মত শিক্ষকরা সবচেয়ে নিয়ামক ভূমিকা রাখতে পারেন। কীভাবে শিখতে হবে তা জানাই হচ্ছে শিখন বা লার্নিং। একজন শুধু প্রথম শ্রেণি পেলেই ভালো শিক্ষক হবেন না। মানসম্মত শিক্ষক তৈরির জন্য শিক্ষক প্রশিক্ষণকে একটা  ভালো পদ্ধতিতে নিয়ে আসতে হবে। কনটেন্ট, ক্যাপাসিটি, কমিটমেন্ট- এ তিনটির সমন্বয়ে মানসম্মত শিক্ষা নিশ্চিত হবে।

 

জেলা প্রশাসক মোঃ জহিরুল ইসলামের সভাপতিত্বে সভায় রংপুরের প্রাথমিক শিক্ষা উপপরিচালক মুজাহিদুল ইসলাম, শিক্ষক, অভিভাবক ও শিক্ষাসংশ্লিষ্ট ব্যক্তিবর্গ বক্তব্য রাখেন।

 

রাজশাহীতে জাতীয় পেশাগত স্বাস্থ্য ও সেইফটি ইনস্টিটিউটের নির্মাণ কাজ শেষ পর্যায়ে

 

ঢাকা, ২৭ শ্রাবণ (১১ আগস্ট): 

রাজশাহী মহানগরীর তেরখাদা এলাকায় ১৯ বিঘা জমির উপর ১৬৫ কোটি টাকা ব্যয়ে দেশের জাতীয় পেশাগত স্বাস্থ্য ও সেইফটি ইনস্টিটিউটের নির্মাণ কাজ শেষ পর্যায়ে। গতকাল শ্রম মন্ত্রণালয়, শ্রম অধিদপ্তর এবং কলকারখানা ও প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন অধিদপ্তরের কর্মকর্তাদের একটি দল এ ইনস্টিটিউটের নির্মাণ কাজের অগ্রগতি পরিদর্শন করে।

 

শিল্প কারখানায় কর্মরত শ্রমিকদের পেশাগত কারণে অনেক রোগ হয়, সে সকল পেশাগত রোগ সম্পর্কে সুস্পষ্ট ধারণা লাভ, এসকল রোগ প্রতিরোধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা সম্পর্কে গবেষণা, মালিক-শ্রমিকদের মধ্যে সচেতনতা বৃদ্ধির জন্য প্রশিক্ষণ, নিরাপদ কর্মপরিবেশ নিশ্চিতের জন্য কর্মপদ্ধতি প্রণয়ন, পেশাগত স্বাস্থ্য ও সেইফটি বিষয়ে ২০২১-২০৩০ মেয়াদী গৃহীত জাতীয় কর্মপরিকল্পনা বাস্তবায়নের লক্ষ্যে সরকার এই ইনস্টিটিউট স্থাপন করছে।

 

এ ইনস্টিটিউটের কার্যক্রম শুরু হলে বিভিন্ন পেশাগত রোগ প্রতিরোধে গবেষণা এবং সারা দেশের মালিক-শ্রমিকদের বিভিন্ন বিষয়ে প্রশিক্ষণ প্রদানের মাধ্যমে ২০৩০ সালের মধ্যে জাতিসংঘ ঘোষিত এসডিজি লক্ষ্যমাত্রা অনুযায়ী কর্মক্ষেত্রে নিরাপদ, শোভন কর্মপরিবেশ নিশ্চিত করা সহজ হবে বলে সংশ্লিষ্টরা আশা প্রকাশ করেন।

 

শিল্প সেক্টরের জন্য অত্যন্ত সময়োপযোগী জাতীয় এ ইনস্টিটিউটে ৬তলা বিশিষ্ট ৯টি সুদৃশ্য ভবনে থাকবে গবেষণা ল্যাব, ক্লাসরুম, লাইব্রেরি, সেমিনার হল, প্রশিক্ষণ ভবন, প্রশিক্ষণার্থী পুরুষ-মহিলাদের জন্য আলাদা হোস্টেল ভবন, একাডেমিক ভবন, প্রিন্সিপাল বাংলো, কর্মকর্তা-কর্মচারীদের কোয়ার্টার। ২০১৮ সালের ১৩ অক্টোবর এ ইনস্টিটিউটের নির্মাণ কাজ উদ্বোধন করা হয়।

 

বিএনপিসহ কিছু দল ও প্রতিষ্ঠান জ্বালানি তেলের মূল্য নিয়ে বিভ্রান্তি ছড়াচ্ছে : তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী

ঢাকা, ২৭ শ্রাবণ (১১ আগস্ট) :

            বিএনপিসহ কিছু দল ও প্রতিষ্ঠান জ্বালানি তেলের মূল্য নিয়ে বিভ্রান্তি ছড়াচ্ছে বলেছেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এবং তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী ড. হাছান মাহ্‌মুদ ।

            আজ সচিবালয়ে তথ্য অধিদফতর আয়োজিত জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষ্যে বঙ্গবন্ধুর জীবন ও কর্মের ওপর সপ্তাহব্যাপী আলোকচিত্র ও এলইডি প্রদর্শনী উদ্বোধনকালে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় মন্ত্রী একথা বলেন। মন্ত্রণালয়ের সচিব মোঃ মকবুল হোসেন বিশেষ অতিথি হিসেবে ও প্রধান তথ্য অফিসার মোঃ শাহেনুর মিয়া অনুষ্ঠানে সূচনা বক্তব্য রাখেন।

            ড. হাছান বলেন, ‘দেশে একটি মহল সবসময় বিভ্রান্তি ছড়ায়। পদ্মা সেতু থেকে যখন বিশ্বব্যাংক মুখ ফিরিয়ে নিলো তখন টিআইবি, সিপিডি এরা লাফিয়ে লাফিয়ে অনেক বক্তব্য দিয়েছে। বিএনপিও লাফিয়ে লাফিয়ে বক্তব্য রাখছিলো, আর বিএনপির সাথে সিপিডি, টিআইবি এরাও লাফাচ্ছিলো। আজকে জ্বালানি তেলের মূল্য সমন্বয় করা হয়েছে। আমাদের দেশে ডিজেলের মূল্য ১১৪ টাকা, কোলকাতায় সেটি ১১৬ টাকা অর্থাৎ কোলকাতার চেয়ে এখনো এখানে কম আছে। এই মূল্য বৃদ্ধির পরও বিপিসিকে প্রতি লিটার ডিজেলে ৮ টাকা ভরতুকি দিতে হচ্ছে।’

            ‘কিছু কিছু ব্যক্তি যারা নিজেকে বুদ্ধিজীবী হিসেবে পরিচয় দেয় আমিও তাদেরকে বুদ্ধিজীবী হিসেবেই গণ্য করি কিন্তু সময়ে সময়ে তাদের বুদ্ধি লোপ পায়, সময়ে সময়ে বিশেষ উদ্দেশ্যে তাদের বুদ্ধি ব্যবহৃত হয়’ উল্লেখ করে তথ্যমন্ত্রী বলেন, তারা গত কয়েকদিন ধরে যেভাবে কথাবার্তা বলছেন এটি জনগণকে বিভ্রান্ত করার শামিল। আমি আশা করবো তারা জনগণকে বিভ্রান্ত করার এই অপচেষ্টা থেকে বেরিয়ে আসবেন। যখন বিশ্ব বাজারে স্থিতিশীলভাবে জ্বালানি তেলের মূল্য কমবে তখন সরকার আবার মূল্য সমন্বয় করবে।

            বক্তব্যের শুরুতে বঙ্গবন্ধু ও তাঁর পরিবারের শহিদ সদস্যদের প্রতি গভীর শ্রদ্ধা জানিয়ে তথ্যমন্ত্রী বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের হত্যাকাণ্ড ইতিহাসের জঘন্যতম একটি হত্যাকাণ্ড। বঙ্গবন্ধু যখন যুদ্ধবিধ্বস্ত দেশকে পুনর্গঠন করে সমৃদ্ধির দিকে নিয়ে যাচ্ছিলেন তখনই বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করা হয়েছিলো। যখন বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করা হয় তখন বাংলাদেশে জিডিপি প্রবৃদ্ধি ছিলো ৯ দশমিক ৫৪ শতাংশ অর্থাৎ সাড়ে ৯ শতাংশের বেশি। আজ পর্যন্ত বাংলাদেশ সেই সাড়ে ৯ শতাংশের বেশি জিডিপি প্রবৃদ্ধি অর্জন করতে সক্ষম হয়নি। বঙ্গবন্ধুকন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আমরা ৮ শতাংশের বেশি জিডিপি প্রবৃদ্ধি অর্জন করতে সক্ষম হয়েছিলাম কিন্তু ৯ শতাংশ আমরা এখনো ছুঁতে পারিনি।

            সম্প্রচারমন্ত্রী হাছান বলেন, বাংলাদেশের স্বাধীনতাকে হত্যা করার উদ্দেশ্যেই বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করা হয়েছিলো, কারণ বঙ্গবন্ধু হত্যাকাণ্ডের পর পাকিস্তানের সাথে কনফেডারেশন করার, জাতীয় পতাকা, জাতীয় সংগীত পরিবর্তনের এবং  রেডিও, টেলিভিশনসহ সব ক্ষেত্রে পাকিস্তানি ভাবধারা ফিরিয়ে আনার অপচেষ্টা হয়েছিলো। তখন থেকে জাতি এক জায়গায় ঘুরপাক খেয়েছিলো দীর্ঘ ২০ বছর। সেই অচলাবস্থা ভেঙ্গেছেন বঙ্গবন্ধুকন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ১৯৯৬ সালে সরকার গঠন করার মধ্য দিয়ে এবং ২০০৮ সালে আবার সরকার গঠন করার মধ্য দিয়ে বাংলাদেশ সাড়ে ১৩ বছরে যেভাবে এগিয়ে গেছে আজকে বাংলাদেশ পৃথিবীর সামনে একটি গর্বিত রাষ্ট্র।

            বিএনপি তাদের আন্দোলন স্থগিতের ঘোষণা দিয়েছে এ বিষয়ে প্রশ্নের জবাবে হাছান মাহ্‌মুদ বলেন, ‘আমি মনে করি বিএনপি আসলে বাস্তব পরিস্থিতিটা বুঝতে পেরেছে। কারণ ঈদের পরে, শীতের পরে, পরীক্ষার পরে, বর্ষার পরে আন্দোলনের কথা বলে বলে নিজেদেরকে হাস্যকর বানিয়েছে। তাদের আন্দোলনে তাদের কর্মীরাও সাড়া দেয় না। এটি বুঝতে পেরেই তারা নতুন ঘোষণা দিয়েছে বলে আমি মনে করি।’

            উদ্বোধনের পর কর্মকর্তাদের নিয়ে প্রদর্শনীটি ঘুরে দেখেন তথ্যমন্ত্রী।

 

৫-১১ বছর বয়সী শিশুদের কোভিড-১৯ ভ্যাকসিনেশন কার্যক্রম উদ্বোধন করলেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী

 

ঢাকা, ২৭ শ্রাবণ (১১ আগস্ট) :

            আজ রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে দেশের ৫ থেকে ১১ বছর বয়সী শিশুদের কোভিড-১৯ ভ্যাকসিন প্রদান কর্মসূচির উদ্বোধন করেছেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক।

            উদ্বোধন অনুষ্ঠানে মন্ত্রী বলেন, আজ দেশের সকল ৫-১১ বছর বয়সী শিশুদের কোভিড-১৯ ভ্যাকসিনেশনের আওতায় নিয়ে আসা হয়েছে। ইতোমধ্যে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র থেকে দেশের জনগোষ্ঠীর উপযোগী প্রায় ৪ কোটি ডোজ চভরুবৎ Pfizer paediatric formulation কোভিড-১৯ ভ্যাকসিন প্রাপ্তি নিশ্চিত করেছে সরকার। যার মধ্যে প্রায় ৩০ লাখ ডোজ দেশে এসে পৌঁছেছে। অচিরেই অবশিষ্ট ডোজসমূহও দেশে এসে পৌঁছাবে।

            এ সময় দেশে ভ্যাকসিনের বর্তমান মজুতের বিষয়ে মন্ত্রী বলেন, বর্তমানে দেশে কেন্দ্রীয় পর্যায়ে মোট ১ কোটি ৩১ লাখ ৪৭ হাজার ৮৩৯ ডোজ ভ্যাকসিন মজুত রয়েছে। আগস্ট মাস পর্যন্ত দেশে মোট সংগৃহীত কোভিড-১৯ ভ্যাকসিন সংখ্যা ৩১ কোটি ৯ লাখ ৩৮ হাজার ৮০০। মোট প্রদানকৃত ১ম ডোজ ১২ কোটি ৯৭ লাখ ৬ হাজার ৩৬২ এবং ২য় ডোজ ১২ কোটি ৭ লাখ  হাজার ১২০। মোট প্রদানকৃত বুস্টার (৩য়) ডোজ ৪ কোটি ৬ লাখ ৫৯ হাজার ৯৭৮।

            স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক এবিএম খুরশীদ আলমের সভাপতিত্বে সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জাহিদ মালেক, বিশেষ অতিথি হিসেবে শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি, স্বাস্থ্যসেবা বিভাগের সচিব ড. মুহ. আনোয়ার হোসেন হাওলাদার, স্বাস্থ্য শিক্ষা বিভাগের সচিব সাইফুল ইসলাম বাদল, আমেরিকার রাষ্ট্রদূত পিটার ডি হাস, জার্মানির রাষ্ট্রদূত আখিম ট্রস্টার, ইউনিসেফের প্রতিনিধি শেলডন ইয়েটসহ অন্যান্য কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন।

            সারা দেশের সকল সিটি কর্পোরেশনে ৫-১১ বছর বয়সী শিশুদের বিদ্যালয় কেন্দ্রিক ভ্যাকসিনের পরবর্তী কার্যক্রম আগামী ২৫ আগস্ট শুরু হবে। ইতোমধ্যেই সুরক্ষা ওয়েবপোর্টাল/অ্যাপের মাধ্যমে উক্ত বয়সসীমার শিশুদের রেজিস্ট্রেশন শুরু হয়েছে। রেজিস্ট্রেশনের ক্ষেত্রে ১৭ ডিজিটের জন্ম নিবন্ধন নম্বর ব্যবহার করতে হবে। সিটি কর্পোরেশনসমূহের প্রতিটি ওয়ার্ডে নির্বাচিত বিদ্যালয়ে ভ্যাকসিন প্রদান করা হবে। পর্যায়ক্রমে জেলা, উপজেলা ও পৌরসভাসমূহে বিদ্যালয় ও কমিউনিটি পর্যায়ে এই ভ্যাকসিন প্রদান করা হবে। স্কুলপড়ুয়া শিশুরা কোভিড-১৯ টিকা কার্ড প্রদর্শন সাপেক্ষে নিকটস্থ বিদ্যালয়ে ভ্যাকসিনেশন সেন্টার ও পরবর্তীতে স্কুল বহির্ভূত শিশুরা কমিউনিটি পর্যায়ে নিকটস্থ কেন্দ্র হতে ভ্যাকসিন গ্রহণ করতে পারবে।এ কর্মসূচির আওতায় সারা দেশের প্রায় ২ দশমিক ২ কোটি ৫-১১ বছর বয়সী শিশুকে ভ্যাকসিন প্রদানের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে।

            এছাড়া আগামী ২০ আগস্ট এক দিনব্যাপী ১৮ বছর ও তদূর্ধ্ব জনগোষ্ঠীর জন্য ১ম, ২য় ও বুস্টার (৩য়) ডোজ ভ্যাকসিনেশন ক্যাম্পেইন আয়োজন করা হবে।

 

‘টোল প্লাজা অতিক্রমে ফাস্ট ট্র্যাক বা দ্রুতগতির লেন ব্যবহার করলে নির্ধারিত টোল হতে ১০ শতাংশ ছাড় দিচ্ছে সরকার। – সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগ।’

 

খাদ্যমন্ত্রীর সাথে রাশিয়ার রাষ্ট্রদূতের সাক্ষাৎ

ঢাকা, ২৭ শ্রাবণ (১১ আগস্ট) :

          খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদারের সাথে বাংলাদেশে নিযুক্ত রাশিয়ার রাষ্ট্রদূত আলেক্সান্ডার ভিকেনতেভিচ মান্টিটস্কি সাক্ষাৎ করেছেন।

          আজ বাংলাদেশ সচিবালয়ে সাক্ষাৎকালে তাঁরা বাংলাদেশের অর্থনৈতিক উন্নয়ন, দ্বিপক্ষীয় ব্যবসা-বাণিজ্যের প্রসার ও গম রপ্তানিসহ বিভিন্ন বিষয়ে আলোচনা করেন।

          সাধন চন্দ্র মজুমদার বলেন, বাংলাদেশের সঙ্গে রাশিয়ার সম্পর্ক অত্যন্ত চমৎকার। এ সম্পর্ক বাণিজ্য-বিনিয়োগসহ বিভিন্ন ক্ষেত্রে ক্রমান্বয়ে সম্প্রসারিত হচ্ছে। বাংলাদেশের মহান মুক্তিযুদ্ধ ও স্বাধীনতা পরবর্তী যুদ্ধবিধ্বস্ত দেশের অর্থনীতি ও অবকাঠামো পুনর্গঠনে রাশিয়ার সহযোগিতার কথা কৃতজ্ঞতার সঙ্গে স্মরণ করেন তিনি।

          রাশিয়ার রাষ্ট্রদূত বলেন, বাংলাদেশ ও রাশিয়ার মধ্যে বাণিজ্য ও বিনিয়োগের অপার সম্ভাবনা রয়েছে। এ সুযোগ কাজে লাগিয়ে বাংলাদেশের খাদ্য নিরাপত্তা অর্জনে রাশিয়া ভূমিকা রাখতে আগ্রহী। এ সময় তিনি বাংলাদেশে প্রয়োজনীয় গম রপ্তানির বিষয়ে আগ্রহ প্রকাশ করেন। প্রাথমিকভাবে ৩ লাখ মেট্রিক টন গম আমদানি ও রপ্তানিতে সম্মত হয়েছে দুই দেশ।

          এ সময় খাদ্য সচিব মোঃ ইসমাইল হোসেন, খাদ্য অধিদফতরের মহাপরিচালক মোঃ সাখাওয়াত হোসেনসহ খাদ্য মন্ত্রণালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন।

 

‘স্মার্ট সোসাইটি’ প্রকল্প বিষয়ে মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত

ঢাকা, ২৭ শ্রাবণ (১১ আগস্ট):

প্রস্তাবিত ‘স্মার্ট সোসাইটি’ ও আইসিটি বিভাগের অধীন বাস্তবায়িত ‘ডিজিটাল আইল্যান্ড মহেশখালী’ প্রকল্প বিষয়ে এক মতবিনিময় সভা আজ আগারগাঁওয়ে বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিলের সভাকক্ষে অনুষ্ঠিত হয়।

তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক সভায় সভাপতিত্ব করেন। 

          সভায় বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিলের ভারপ্রাপ্ত নির্বাহী পরিচালক রনজিৎ কুমার, ইন্টারন্যাশনাল অর্গানাইজেন ফর মাইগ্রেশন (আইওএম) এর সিনিয়র রিজনাল মাইগ্রেশন অ্যাসিস্ট্যান্স এন্ড প্রোটেকশন স্পেশালিস্ট পেপি কে. সিদ্দিক, বাংলাদেশে নিযুক্ত ইউএন মাইগ্রেশনের ডেপুটি চিফ অব মিশন ফাতেমা নুসরাত গাজ্জালিসহ আইসিটি বিভাগ ও বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিলের সংশ্লিষ্ট ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাগণ এসময় উপস্থিত ছিলেন।   

সভায় প্রস্তাবিত ‘স্মার্ট সোসাইটি’ শীর্ষক প্রকল্পের লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য এবং বাস্তবায়িত ডিজিটাল আইল্যান্ড মহেশখালী প্রকল্পের বর্তমান অবস্থা নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করা হয়। এছাড়া মহেশখালী ও সেন্টমার্টিন এর সাথে সন্দ্বীপ ও ভাসানচর এলাকাকে প্রস্তাবিত ‘স্মার্ট সোসাইটি’ প্রকল্পের আওতাভুক্ত করার সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

এ বিষয়ে যাবতীয় কার্যক্রম অতিদ্রুত সম্পন্ন করার জন্য বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিলসহ সংশ্লিষ্টদের নির্দেশনা দেয়া হয়। আইসিটি বিভাগ, আইওএম এবং কোইকা দুই মাসের মধ্যে এ বিষয়ে সম্ভাব্যতা যাচাই করে প্রতিবেদন প্রদান করবে বলে সভায় অবহিত করে। 

এ প্রকল্পের মাধ্যমে উক্ত এলাকাসমূহে উচ্চগতির ইন্টারনেট, প্রযুক্তি সুবিধা, স্মার্ট শিক্ষা, জনস্বাস্থ্য, কৃষি, এবং প্রযুক্তিতে প্রবেশাধিকার বাড়ানো, কৃষকদের জন্য ই-বাণিজ্য সুবিধা, আন্তর্জাতিক উৎস থেকে আবহাওয়া পূর্বাভাস সম্পর্কে অবহিত করার বিষয়ে গুরুত্বারোপ করা হয়। এছাড়াও তথ্যপ্রযুক্তিতে শিক্ষক, চিকিৎসক, নার্স, স্বাস্থ্যকর্মী ও সরকারি কর্মকর্তাদের দক্ষ করতে প্রশিক্ষণসহ বিভিন্ন কার্যক্রম গ্রহণের বিষয়ে জোর দিতে বলা হয়। 

 

নৌপরিবহন খাতসহ অন্যান্য খাতে বিনিয়োগে ইউএস কোম্পানিগুলোর প্রতি বাংলাদেশের আহ্বান

লুইজিয়ানা (যুক্তরাষ্ট্র), ১১ আগস্ট:

বাংলাদেশের নৌপরিবহন খাতসহ অন্যান্য খাতে বিনিয়োগের বিষয়ে ইউএস কোম্পানিগুলোকে আহ্বান জানানো হয়েছে। ইউএস ডিপার্টমেন্ট অব কমার্স ও কোম্পানির প্রতিনিধিবৃন্দ বাংলাদেশের সাম্প্রতিক অগ্রগতির বিষয়ে সম্যক ধারণা লাভ করেন এবং বাংলাদেশে বিনিয়োগের বিষয়ে গভীর আগ্রহ প্রকাশ করেন।

গতকাল যুক্তরাষ্ট্রের লুইজিয়ানা অঙ্গরাজ্যের নিউ অর্লিনস শহরে আমন্ত্রণকারী সংস্থা ইউএস ট্রেড এন্ড ডেভলপমেন্ট এজেন্সি কর্তৃক ইউএস ডিপার্টমেন্ট অব কমার্স ও ইউএসটিডিএ এর কর্মকর্তাবৃন্দ, ইউএস এর ১৯টি কোম্পানির প্রতিনিধিবৃন্দের অংশগ্রহণে এক বিজনেস রাউন্ডটেবিল বৈঠকে এ আহবান জানানো হয়।

নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী রাউন্ডটেবিল বৈঠকে বাংলাদেশ প্রতিনিধিদলের নেতৃত্ব দেন।

বৈঠকে বিআইডব্লিউটিএ’র পক্ষ থেকে নৌপরিবহন মন্ত্রনালয় এবং বাংলাদেশের অভ্যন্তরীণ নৌ ব্যবস্থাপনা, বন্দর কার্যক্রম ইত্যাদি বিষয়ে উপস্থাপন করা হয় এবং বেসরকারি ব্যবসায়ী প্রতিনিধি জেমকন গ্রুপের পক্ষ থেকে কাজী ইনাম আহমেদ ও ওয়েস্টার্ন ইঞ্জিনিয়ারিং এর বশির আহমেদ পৃথক পৃথক প্রেজেন্টেশন উপস্থাপন করেন।

রাউন্ডটেবিল বৈঠকে় প্রতিমন্ত্রীর সাথে বিআইডব্লিউটিএর চেয়ারম্যান কমোডর গোলাম সাদেকসহ মন্ত্রণালয়, সংস্থার কর্মকর্তাবৃন্দ এবং বেসরকারি ব্যবসায়ী প্রতিনিধিবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

 

Read us@googlenews

 

Social

More News
© Copyright: 2020-2022

Bangladesh Beyond is an online version of Fortnightly Apon Bichitra 

(Reg no: DA 1825)

Developed By Bangladesh Beyond