[Valid RSS]
June 29, 2022, 5:08 pm
Headlines
রাষ্ট্রপতির নিকট অস্ট্রিয়া ও লিবিয়ার নবনিযুক্ত রাষ্ট্রদূতের পরিচয়পত্র পেশ ২৯ জুন এক নজরে বাংলাদেশ ২৯ জুন কোভিড-১৯ সংক্রান্ত সর্বশেষ প্রতিবেদন Develop a national framework for projects implementation efficiency & governance: economists Samsung smartphones are available with attractive offers for this Eid Technical Strategic Partner Huawei awarded by bKash প্রাথমিকের শিক্ষকদের অনলাইনে বদলীর কার্যক্রম উদ্বোধন Momen to lead Bangladesh in UN Ocean Conference পবিত্র ইদুল আজহা উপলক্ষ্যে জাতীয় চাঁদ দেখা কমিটির সভা আগামীকাল Russia and West clash at UN Security Council Oxfam condemns G7 for ‘leaving millions to starve’ Continued arms supplies from US to Ukraine increase threat of further escalation : envoy ৩০ জন নারী উদ্যোক্তার অংশগ্রহণে চলছে আনিসুল হক কোহর্ট উদ্যোক্তা হাট Samsung introduces ‘Meet the Eid’ campaign ahead of Eid with sizzling offers British Council stages Noishobde ’71 BRAC Bank wins four VISA awards Sufferers of false allegation over Padma Bridge deserves compensation: Momen Japan to provide 165,989m Yen to Bangladesh for 3 projects HC orders to form commission to find conspirators against Padma Bridge ২৮ জুন এক নজরে বাংলাদেশ
Treanding
Develop a national framework for projects implementation efficiency & governance: economists Samsung smartphones are available with attractive offers for this Eid Technical Strategic Partner Huawei awarded by bKash প্রাথমিকের শিক্ষকদের অনলাইনে বদলীর কার্যক্রম উদ্বোধন Momen to lead Bangladesh in UN Ocean Conference পবিত্র ইদুল আজহা উপলক্ষ্যে জাতীয় চাঁদ দেখা কমিটির সভা আগামীকাল Russia and West clash at UN Security Council Oxfam condemns G7 for ‘leaving millions to starve’ Continued arms supplies from US to Ukraine increase threat of further escalation : envoy ৩০ জন নারী উদ্যোক্তার অংশগ্রহণে চলছে আনিসুল হক কোহর্ট উদ্যোক্তা হাট Samsung introduces ‘Meet the Eid’ campaign ahead of Eid with sizzling offers British Council stages Noishobde ’71 BRAC Bank wins four VISA awards Sufferers of false allegation over Padma Bridge deserves compensation: Momen Japan to provide 165,989m Yen to Bangladesh for 3 projects HC orders to form commission to find conspirators against Padma Bridge ২৮ জুন এক নজরে বাংলাদেশ New Canadian envoy calls on State Minister for Foreign Affairs কর্মক্ষম ‍যুবশক্তির কর্মসংস্থান না করা গেলে জনমিতিক লভ্যাংশের সুফল ভোগ করা যাবে না Strengthen the Tobacco Control Law: ATMA

১৪ জুন এক নজরে বাংলাদেশ

Bangladesh Beyond
  • Updated on Tuesday, June 14, 2022
  • 67 Impressed

১৪ জুন এক নজরে বাংলাদেশ

 

নিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ সরবরাহ করতে প্রযুক্তির সন্নিবেশন বাড়ানোর উদ্যোগ অব্যাহত রাখা হবে : বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী

ঢাকা ১৪ জুন ২০২২ :

বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বলেছেন, মানসম্মত নিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ সরবরাহ করতে প্রযুক্তির সন্নিবেশন বাড়ানোর উদ্যোগ অব্যাহত রাখতে হবে। বিদ্যুৎ উৎপাদনে নানারকম জ্বালানি ব্যবহৃত হচ্ছে। এর জন্য ফ্রিকোয়েন্সি উঠা-নামা করতে পারে। মানসম্মত বিদ্যুতের জন্য গ্রিড স্ট্যাবিলিটি ও ফ্রিকোয়েন্সি স্ট্যাবিলিটি  রাখা অপরিহার্য। 

আজ Frequency Variation নিয়ন্ত্রণে Free Governor Mode of Operation (FGMO) শীর্ষক কর্মশালার উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে প্রতিমন্ত্রী এসব কথা বলেন। তিনি বলেন, সরকারি ও বেসরকারি বিদ্যুৎ উৎপাদনের সাথে সংশ্লিষ্টদের নিয়ে ক্ষুদ্র পরিসরে এসব কর্মশালা বা সেমিনার করতে পারলে ভালো ফল পাওয়া যেতে পারে। আগামী দিনে পারমাণবিক বিদ্যুৎ আসবে, নবায়নযোগ্য জ্বালানির অংশ উত্তরোত্তর বাড়ছে। গ্রিডের ফ্রিকোয়েন্সি ভেরিয়েশন নিয়ন্ত্রণ করা অপরিহার্য। এসময় তেলের মূল্যের বৈশ্বিক অবস্থা, বিদ্যুৎ ও জ্বালানির কানেক্টিভিটি, গ্রাহকদের সাশ্রয়ী মূল্যে  বিদ্যুৎ ও গ্যাস সরবরাহের প্রতিশ্রুতি ইত্যাদি বিষয় নিয়ে সাংবাদিকদের সাথে খোলামেলা আলোচনা হয়। 

বিপিএমআই-এর রেক্টর মুঃ মোহসিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মাঝে বিদ্যুৎ সচিব মোঃ হাবিবুর রহমান ও বিপিএমআই-এর সদস্য মোহাঃ গোলাম রাব্বানী বক্তব্য রাখেন। এ সময় পিডিবির চেয়ারম্যান মোঃ মাহবুবুর রহমান, পাওয়ার সেলের ডিজি মোহাম্মদ হোসাইনসহ সঞ্চালন, বিতরণ ও উৎপাদন খাতের কোম্পানিসমূহের দপ্তর প্রধানগণ উপস্থিত ছিলেন। 

 

সংসদ সদস্যকে নিজ এলাকা ছাড়তে বলা মৌলিক অধিকারে হস্তক্ষেপ :’ তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী

ঢাকা, ৩১ জ্যৈষ্ঠ (১৪ জুন) : 

 

কোনো সংসদ সদস্যকে নিজ নির্বাচনি এলাকা ছেড়ে চলে যেতে বলা তার মৌলিক অধিকারে হস্তক্ষেপ বলেছেন তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী এবং আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ড. হাছান মাহ্‌মুদ।

 

আজ রাজধানীতে জাতীয় প্রেসক্লাবে কোয়ান্টাম ফাউন্ডেশন আয়োজিত ১৪ জুন বিশ্ব রক্তদাতা দিবস উদ্‌যাপন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতা শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী একথা বলেন।

 

মন্ত্রী বলেন, ‘প্রথমত আমার প্রশ্ন হচ্ছে যিনি ঐ এলাকার সংসদ সদস্য, ঐ এলাকার স্থায়ী বাসিন্দা যিনি ঐ সিটি কর্পোরেশনের নির্বাচনে ভোটার, তাকে নির্বাচন কমিশন এলাকা ছাড়ার কথা বলতে পারে কি না। এটি কি তার মৌলিক অধিকারের ওপর হস্তক্ষেপ নয়? তাহলে তো ঢাকা শহরে যখন সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন হবে তখন ঢাকা থেকে নির্বাচিত সব সংসদ সদস্য, মন্ত্রীদেরকেও ঢাকা ছেড়ে চলে যেতে হবে।’

 

‘এভাবে তাকে এলাকা ছাড়ার নির্দেশ দিয়ে তার মৌলিক অধিকারের ওপর হস্তক্ষেপ করা হয়েছে বলে আমি মনে করি’ উল্লেখ করে ড. হাছান বলেন, ‘তিনি যাতে কোনো নির্বাচনে প্রচার-প্রচারণা বা নির্বাচনি কর্মকান্ডে অংশগ্রহণ না করেন, সেটির নির্দেশনা অবশ্যই থাকবে, থাকা বাঞ্ছনীয়। এবং সেটি করলে অন্য শাস্তিমূলক ব্যবস্থা হতে পারে, কিন্তু যিনি ওখানে ভোটার ঐ এলাকার সংসদ সদস্য তাকে নিজের ভিটে-বাড়ি ছেড়ে চলে যেতে বলা কি সমীচীন হয়েছে, সেটিই হচ্ছে প্রশ্ন?’

 

মন্ত্রী বলেন, ‘এলাকা ছেড়ে যেতে হবে এটি দুনিয়ার কোথাও নাই। সংসদ সদস্যরা নির্বাচনি প্রচারণায় অংশগ্রহণ করতে পারবে না- এটি ভারতে নাই, পাকিস্তানে নাই, ইংল্যান্ডে নাই, কন্টিনেন্টাল ইউরোপে নাই, অস্ট্রেলিয়া, জাপানে নাই, কোথাও নাই। সেই আইনটাও কিন্তু বৈষম্যমূলক।’

 

হাছান মাহ্‌মুদ বলেন, ‘আজকে অনেক কাগজে দেখলাম এটি নিয়ে অনেক সমালোচনা হয়েছে। এখানে নির্বাচন কমিশন কি ভুল করেছে আগে সেটি আলোচনা হওয়া প্রয়োজন রয়েছে। এলাকা ছাড়ার নির্দেশনা কখনো কোথাও দেয়া হয়নি। আমার বাড়ি চট্টগ্রাম, চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনের সময় আমি মন্ত্রী এবং আমি চট্টগ্রাম শহরে ছিলাম, কোনো নির্বাচনি প্রচারণায় আমি অংশগ্রহণ করিনি, বাড়ি থেকে দু’একবার বের হয়েছি প্রটোকল ছাড়া।’

 

এর আগে বিশ্ব রক্তদাতা দিবস উপলক্ষ্যে বক্তৃতায় তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী ড. হাছান রক্তদান ও জনহিতকর কর্মসূচির জন্য কোয়ান্টাম ফাউন্ডেশনকে অভিনন্দন জানান। তিনি বলেন, দেশ স্বাধীনের পর জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের পৃষ্ঠপোষকতায় ১৯৭২ সালের ১০ জুন দেশে প্রথম স্বেচ্ছায় রক্তদান কর্মসূচি শুরু হয়। বঙ্গবন্ধুর ব্যক্তিগত চিকিৎসক পরে জাতীয় অধ্যাপক প্রয়াত অধ্যাপক ডা. নূরুল ইসলাম নিজে রক্ত দিয়ে কর্মসূচি শুরু করেন।

 

‘আমরা শুধু অবকাঠামোগত দিক দিয়ে বা বস্তুগত উন্নয়নের মাধ্যমেই উন্নত রাষ্ট্র নয়, বাংলাদেশকে আমরা একটি মানবিক রাষ্ট্রে রূপান্তর করতে চাই উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার লক্ষ্য হচ্ছে একটি উন্নত রাষ্ট্র গঠনের পাশাপাশি একটি সামাজিক কল্যাণ রাষ্ট্র, একটি মানবিক রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠা করা। আর মানবিক রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠা করতে হলে মানবিকতার বিকাশ প্রয়োজন। যারা মানবিকতা প্রদর্শন করে, মানবিক কাজ করে তাদের প্রশংসা করা উচিত।

 

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ও কোয়ান্টাম ফাউন্ডেশনের উপদেষ্টা ডা. নিজামউদ্দিন আহমদের সভাপতিত্বে শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন এন্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটের প্রধান সমন্বয়ক ডা. সামন্ত লাল সেন বিশেষ অতিথি হিসেবে এবং কোয়ান্টাম ফাউন্ডেশনের পরিচালক মোটিভেশন এম রেজাউল হাসান অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন। রক্তদানে বিশেষ অবদানের জন্য সাংবাদিক সাইফুল ইসলাম দিলালকে প্লাটিনাম পদকসহ রক্তদাতাদের হাতে সম্মাননা স্মারক তুলে দেন মন্ত্রী।

 

মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের নতুন সচিবের যোগদান

ঢাকা, ৩১ জ্যৈষ্ঠ (১৪ জুন) :

          মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের নতুন সচিব হিসেবে যোগদান করেছেন মোঃ হাসানুজ্জামান কল্লোল। আজ বাংলাদেশ সচিবালয়ে মন্ত্রণালয়ে প্রথম কর্মদিবসে মহিলা ও শিশু বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী ফজিলাতুন নেসা ইন্দিরা তাকে অভ্যর্থনা জানান। মন্ত্রণালয় কর্মকর্তাবৃন্দ এবং দপ্তর-সংস্থা প্রধানগণ নবনিযুক্ত সচিবকে অভিনন্দন জানান। 

          বিসিএস (প্রশাসন) ক্যাডারের ১১ম ব্যাচের কর্মকর্তা মোঃ হাসানুজ্জামান কল্লোল এর আগে কৃষি মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব হিসেবে কর্মরত ছিলেন। জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় ১৮মে তাকে সচিব হিসেবে মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ে পদায়ন করে এবং ১৪ জুন থেকে কার্যকর হবে বলে প্রজ্ঞাপনে উল্লেখ করা হয়।

          আজ মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে কর্মকর্তাদের সাথে এক মতবিনিময় সভায় নবনিযুক্ত সচিব মোঃ হাসানুজ্জামান কল্লোল বলেন, নারী উন্নয়ন ও ক্ষমতায়নে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকারের গৃহীত কর্মপরিকল্পনা ও কার্যক্রম নিষ্ঠা এবং আন্তরিকতার বাস্তবায়ন করতে হবে। শিশুদের সুরক্ষা কাজ করতে হবে।

          এসময় মন্ত্রণালয় এবং দপ্তর-সংস্থার কর্মকর্তাদের একটা টিমওয়ার্কের মাধ্যমে নারী ও শিশুর উন্নয়ন এবং সুরক্ষায় কাজ করে যাওয়ার আহ্বান জানান।

          মোঃ হাসানুজ্জামান কল্লোল ১৯৯৩ সালে বিসিএস (প্রশাসন) ক্যাডারে সহকারী কমিশনার হিসেবে যোগদান করেন। এর পর তিনি বরিশাল বিভাগীয় কমিশানারের কার্যালয় এবং ভোলা জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে যোগদান ও দায়িত্ব পালন করেন। তিনি উপজেলা নির্বাহী অফিসার হিসেবে মানিকগঞ্জের দৌলতপুর ও টাঙাইলের বাসাইলে দায়িত্ব পালন করেন। তিনি বাংলাদেশ লোক প্রশাসন কেন্দ্র, সাভার, সংসদ উপনেতার একান্ত সচিব এবং গৃহায়ণ ও গণপূর্ত মন্ত্রণালয়ে দায়িত্ব পালন করেন। তিনি জেলা প্রশাসক হিসেবে রাজবাড়ী ও কুমিল্লা জেলায় দায়িত্ব পালন করেছেন।

          চাকুরী জীবনে তিনি দেশ ও বিদেশে বিভিন্ন প্রশিক্ষণে অংশগ্রহণ করেছেন। তিনি ঝিনাইদহ জেলায় এক সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে জন্ম গ্রহণ করেন।

 

পদ্মা সেতুর কারণে স্থলবন্দরগুলো বিশেষ সুবিধা পাবে:  নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী

 

ঢাকা, ৩১ জ্যৈষ্ঠ (১৪ জুন) :

           নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী বলেছেন, ৫০ বছরের গর্বের স্থাপনা পদ্মা সেতুর মাধ্যমে স্থলবন্দর কর্তৃপক্ষ (ভোমরাসহ অন্যান্য স্থল বন্দর) মোংলা সমুদ্র বন্দর, পায়রা সমুদ্র বন্দর বিশেষ সুবিধা পাবে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশের উন্নয়নে নেতৃত্ব দিচ্ছেন। তাঁর নেতৃত্বে বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা নির্মাণে এগিয়ে যাব। আমরা এককভাবে ভাল থাকতে চাইনা; আমরা প্রতিবেশীদের নিয়ে, বিশ্বকে নিয়ে ভাল থাকতে চাই। মানবিক পৃথিবী দেখতে চাই। প্রধানমন্ত্রী ২০০১ সালে ব্যবসায়ীদের কথা চিন্তা করে বাংলাদেশ স্থলবন্দর কর্তৃপক্ষ গঠন করেন। প্রধানমন্ত্রী যে দৃষ্টিভঙ্গি নিয়ে স্থলবন্দর করেছিলেন তা শুরুতেই মুখ থুবড়ে পড়েছিল। ২০০৮ সালে আওয়ামী লীগ সরকার গঠনের পর বাংলাদেশ আবার ঘুরে দাঁড়িয়েছে।

          মন্ত্রী আজ ঢাকায় হোটেল সোনারগাঁওয়ের বলরুমে বাংলাদেশ স্থলবন্দর কর্তৃপক্ষের ২১তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষ্যে ‘আঞ্চলিক বাণিজ্য, আন্তঃসংযোগ এবং অর্থনৈতিক উন্নয়নে স্থলবন্দরের ভূমিকা’শীর্ষক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় প্রতিমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

          বাংলাদেশ স্থলবন্দর কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান মোঃ আলমগীরের সভাপতিত্বে আলোচনা অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশস্থ ভারতীয় হাইকমিশনার বিক্রম কুমার দোরাইস্বামী, নৌপরিবহন মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটির সভাপতি মেজর (অবঃ) রফিকুল ইসলাম, বীর উত্তম, এফবিসিসিআইর সাবেক সভাপতি মোঃ শফিউল ইসলাম এমপি ও নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ের সচিব মোঃ মোস্তফা কামাল, ভারত-বাংলাদেশ চেম্বার অভ্ কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রির চেয়ারম্যান আবদুল মতলুব আহম্মেদ  এবং বিজিএমইএ’র সভাপতি ফারুক হাসান।

          খালিদ মাহমুদ চৌধুরী বলেন, প্রতিবেশী দেশসমূহের সাথে আমদানি-রপ্তানি বাণিজ্য সুবিধা বৃদ্ধির আওয়ামী লীগ সরকার কর্তৃক ২০০১ সালের ১৪ই জুন বাংলাদেশ স্থলবন্দর কর্তৃপক্ষ প্রতিষ্ঠা লাভ করে। প্রতিষ্ঠাকালীন সংস্থাটি

১৩টি স্থলবন্দর নিয়ে যাত্রা শুরু করে। সরকার ২০০৯ সালে পুনরায় ক্ষমতায় আসার পর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঠিক দিক নির্দেশনায় ২৪টি স্থলবন্দর প্রতিষ্ঠা লাভ করে। আমদানি-রপ্তানি পণ্য নিরাপদে পারাপার করা স্থল বন্দরের মূল দায়িত্ব। স্থলবন্দরের সেবার মান বৃদ্ধির লক্ষ্যে বেনাপোল ও বুড়িমারী স্থল বন্দরে অটোমেশন চালু করা হয়েছে। পর্যায়ক্রমে সকল স্থলবন্দরক্ষে অটোমেশনের আওতায় আনা হবে। বন্দরগুলোর ইয়ার্ড বৃদ্ধি করা হচ্ছে।

 

দেশের বিস্ময়কর উন্নয়ন ও অগ্রযাত্রা সারাবিশ্বে স্বীকৃত : আবুল হাসানাত আবদুল্লাহ্

 

বরিশাল, ৩১ জ্যৈষ্ঠ (১৪ জুন) : 

 

পার্বত্য চট্টগ্রাম শান্তি চুক্তি বাস্তবায়ন ও পরিবীক্ষণ কমিটির আহ্বায়ক (মন্ত্রী পদমর্যাদা) আবুল হাসানাত আবদুল্লাহ্ বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অসীম সাহসী নেতৃত্ব ও দেশপ্রেমের কারণে আর্থ-সামাজিক খাতে বাংলাদেশের বিস্ময়কর উন্নয়ন ও অগ্রযাত্রা সারাবিশ্বে স্বীকৃত। তাঁর গতিশীল ও দূরদর্শী মেধা-প্রজ্ঞার কারণে বিশ্বব্যাংকসহ দেশি-বিদেশি বিরোধিতাকারীদের অপচেষ্টাকে রুখে দিয়ে পদ্মা বহুমুখী সেতুর ন্যায় বিশেষ ফাস্ট-ট্র্যাক প্রকল্প বাস্তবায়ন করা সম্ভব হয়েছে।

 

আবুল হাসানাত আবদুল্লাহ্ আজ বরিশাল ক্লাব মিলনায়তনে আগামী ২৫ জুন স্বপ্নের পদ্মা সেতু উদ্বোধন অনুষ্ঠান সাফল্যমন্ডিতকরণে আয়োজিত বরিশাল বিভাগীয় সমাবেশে সভাপতির বক্তব্যে এসব কথা বলেন। অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন পানি সম্পদ প্রতিমন্ত্রী জাহিদ ফারুক, বরিশালের মেয়র সেরনিয়াবাত সাদিক আবদুল্লাহ, আওয়ামী লীগের যুগ্মসম্পাদক বাহাউদ্দিন নাসিম, সংসদ সদস্য আ স ম ফিরোজ, আবদুল্লাহ আল ইসলাম জ্যাকব, মোঃ শাহে আলম, পঙ্কজ দেবনাথ, নূরুন নবী চৌধুরী শাওন, শওকত হাচানুর রহমান প্রমুখ।

 

আবুল হাসানাত আবদুল্লাহ্ বলেন, পদ্মা সেতু উদ্বোধন অনুষ্ঠান বানচাল করতে দেশ বিরোধী চক্র ষড়যন্ত্র করছে। এসব ষড়যন্ত্রকারীদের রাজনৈতিকভাবে প্রতিহত করতে বরিশাল বিভাগের দেশপ্রেমিক জনগণকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে। তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ আজ বিশ্বের অন্যান্য দেশের জন্য উন্নয়ন স্বপ্নদ্রষ্টা। মেট্রোরেল, কর্ণফুলী টানেল, ঢাকায় এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ে, মাতারবাড়ী ও পায়রা সমুদ্রবন্দর, রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্র ও রামপাল বিদ্যুৎকেন্দ্রের ন্যায় প্রকল্পগুলোকে বাস্তবায়নের মাধ্যমে দেশের আর্থ-সামাজিক খাতে নতুন মাত্রা সংযোজিত হবে। এসব উন্নয়নের সাফল্যগাঁথা বাংলাদেশকে পৌঁছে দিচ্ছে বিশ্ব দরবারে মর্যাদার আসনে।

 

সর্বদা পাটের বাজার দর পর্যবেক্ষণ করা হবে : বস্ত্র ও পাট মন্ত্রী

 

ঢাকা, ৩১ জ্যৈষ্ঠ (১৪ জুন) :

 

বস্ত্র ও পাট মন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজী, বীরপ্রতীক, বলেছেন, দেশে প্রয়োজনীয় কাঁচাপাট সরবরাহ নিশ্চিতকরণ এবং পাট ও পাটজাত পণ্য রপ্তানির ধারা বেগবান করার লক্ষ্যে সর্বদা পাটের বাজার দর  পর্যবেক্ষণে রাখা হবে।

আজ সচিবালয়ে বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে বাংলাদেশ জুট এসোসিয়েশন (বিজেএ) এর একটি প্রতিনিধিদলের সাথে সাক্ষাৎকালে মন্ত্রী এ কথা বলেন। এ সময় বস্ত্র ও পাট  মন্ত্রণালয়ের সচিব মো: আব্দুর রউফ, বাংলাদেশ জুট এসোসিয়েশন (বিজেএ) সভাপতি শেখ সৈয়দ আলীসহ এসোসিয়েশনের নেতৃবৃন্দ ও মন্ত্রণালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

মন্ত্রী বলেন, পাট চাষ নিশ্চিতকরণে বীজ সরবরাহ সঠিক রাখার পাশাপাশি কৃষককে অন্যান্য উপকরণ সহায়তার কারণে সাম্প্রতিক বছরগুলোতে পাটের উৎপাদন বহুগুণে বৃদ্ধি পেয়েছে। ফলশ্রুতিতে পাটকলসমূহ  নিরবচ্ছিন্নভাবে পাট সংগ্রহ করতে পারছে যা রপ্তানি আয়ে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে ।

মন্ত্রী আরো বলেন, পাট ও পাটজাত পণ্যের রপ্তানি আয়ের ধারা অব্যাহত রাখার জন্য কাঁচাপাটের সরবরাহ নিশ্চিত করতে  কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহণ করবে। এজন্য লাইসেন্সবিহীন অসাধু ব্যবসায়ীগণকে কাঁচাপাট ক্রয়-বিক্রয় ও মজুদ হতে বিরত রাখা, ভিজাপাট ক্রয়-বিক্রয় রোধ করা, বাজারে কাঁচাপাটের সরবরাহ নিশ্চিত করতে কার্যকর পদক্ষেপ নেয়ার জন্য পাট অধিদপ্তরকে নির্দেশ প্রদান করা হয়েছে।

এসময়, রপ্তানি নীতি ২০২১-২০২৪ এ শর্ত সাপেক্ষে রপ্তানি পণ্য তালিকায় কাঁচাপাট অন্তর্ভুক্তির বিষয়ে আলোচনা হয়। এ বিষয়ে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সাথে আলোচনা করে পরবর্তী করণীয় নির্ধারণের সিদ্ধান্ত হয়।

 

একনেক সভায় প্রায় ১০ হাজার ৮৫৬ কোটি টাকা ব্যয়ে ১০টি প্রকল্প অনুমোদন

ঢাকা, ৩১ জ্যৈষ্ঠ (১৪ জুন) :

 

জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটি (একনেক) প্রায় ১০ হাজার ৮৫৫ কোটি ৬০ লাখ টাকার ১০টি প্রকল্প অনুমোদন করেছে।

প্রধানমন্ত্রী এবং একনেক-এর চেয়ারপারসন শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে আজ গণভবনের সাথে সংযুক্ত হয়ে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে শেরে বাংলা নগরে এনইসি সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত একনেক সভায় এ অনুমোদন দেয়া হয়।

          অনুমোদিত প্রকল্পসমূহ হলো: সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়ের ৫টি প্রকল্প যথাক্রমে “নলকা-সিরাজগঞ্জ-সায়দাবাদ আঞ্চলিক মহাসড়কের সিরাজগঞ্জ শহর অংশ (শহিদ এম মনসুর আলী মেডিকেল কলেজ হতে কাটা ওয়াপদা মোড় পর্যন্ত) ৪ লেনে উন্নীতকরণ ও অবশিষ্ট অংশ ২ লেনে উন্নীতকরণ (১ম সংশোধিত)” প্রকল্প; “বগুড়া শহর থেকে মেডিকেল কলেজ পর্যন্ত সংযোগ সড়ক নির্মাণ (এন-৫১৯) (১ম সংশোধিত)” প্রকল্প; “কিশোরগঞ্জ সড়ক বিভাগাধীন গৌরীপুর-আনন্দগঞ্জ-মধুপুর-দেওয়ানগঞ্জ বাজার-হোসেনপুর জেলা মহাসড়ক যথাযথমানে উন্নীতকরণ” প্রকল্প; “বরিশাল (দিনারেরপুল)-লক্ষীপাশা-দুমকী জেলা মহাসড়কের ১৪তম কিলোমিটারে রাঙ্গামাটি নদীর ওপর গোমা সেতু নির্মাণ (১ম সংশোধিত)” প্রকল্প; “মদনপুর-দিরাই-শাল্লা-জলসুখা-আজমিরীগঞ্জ জেলা মহাসড়ক (জেড-২৮০৭)-এর দিরাই শাল্লা অংশ পুনঃনির্মাণ” প্রকল্প; স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের “দেশের গুরুত্বপূর্ণ ২৫টি (সংশোধিত ৪৬টি) উপজেলা সদর/স্থানে ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্স স্টেশন স্থাপন (৩য় সংশোধিত)” প্রকল্প; জ্বালানি, বিদ্যুৎ ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয়ের ২টি প্রকল্প “মর্ডানাইজেশন অব পাওয়ার ডিস্ট্রিবিউশন-স্মার্ট গ্রিডস ফেজ ১” প্রকল্প এবং Modernization and Capacity Enhancement of BREB Net work (Dhaka-Mymensingh Divisionপ্রকল্প;  ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের “মন্দির ভিত্তিক শিশু ও গণশিক্ষা কার্যক্রম (৬ষ্ট পর্যায়)” প্রকল্প; এবং স্বাস্থ্য শিক্ষা ও পরিবার কল্যাণ বিভাগের “রাজশাহী মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় (আরএমইউ) স্থাপন” প্রকল্প।

          কৃষিমন্ত্রী ড. মোঃ আব্দুর রাজ্জাক, স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী মোঃ তাজুল ইসলাম, শিক্ষামন্ত্রী ডাঃ দীপু মনি, স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী জাহিদ মালেক, শিল্পমন্ত্রী নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ূন, স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক, মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম, পরিবেশ, বন ও জলবায়ু মন্ত্রী             মোঃ শাহাব উদ্দিন, ভূমিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান, পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী ড. শামসুল আলম এবং সংশ্লিষ্ট মন্ত্রী ও প্রতিমন্ত্রীগণ সভার কার্যক্রমে অংশগ্রহণ করেন।

          মন্ত্রিপরিষদ সচিব, এসডিজি’র মুখ্য সমন্বয়ক, পরিকল্পনা কমিশনের সদস্যবৃন্দ, সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়সমূহের সচিব এবং ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাগণ সভায় উপস্থিত ছিলেন।

 

রোহিঙ্গাদের নিরাপদ প্রত্যাবর্তনেই স্থায়ী সমাধান              

 

নিউইয়র্ক, ১৪ জুন :

 

          জাতিসংঘে নিযুক্ত বাংলাদেশের স্থায়ী প্রতিনিধি রাষ্ট্রদূত রাবাব ফাতিমা বলেছেন, মিয়ানমারে রোহিঙ্গাদের নিরাপদ, টেকসই মর্যাদাপূর্ণ প্রত্যাবর্তনের মধ্যেই নিহিত রয়েছে স্থায়ী সমাধান। একই সাথে রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসনে সহায়তার জন্য রাখাইন রাজ্যে কর্মসূচি বাড়াতে তিনি জাতিসংঘের প্রতি আহ্বান জানান।    

গতকাল জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদে মিয়ানমার বিষয়ক মহাসচিবের বিশেষ দূত ড. নোলিন হাইজারের ব্রিফিংয়ের পর প্রদত্ত বক্তব্যে এসব কথা বলেন রাষ্ট্রদূত।

          বাংলাদেশের স্থায়ী প্রতিনিধি বলেন, জীবন বাঁচাতে নিজভূমি থেকে রোহিঙ্গাদের পলায়নের পর পাঁচ বছর কেটে গেছে, কিন্তু তাদের নিরাপদ প্রত্যাবর্তনের প্রতিশ্রুতি অপূর্ণই রয়ে গেছে। সংকটের মূল কারণগুলো চিহ্নিত করে তা সমাধানের মাধ্যমে এর পুনরাবৃত্তি রোধে জরুরিভিত্তিতে ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য নিরাপত্তা পরিষদের প্রতি আহ্বান জানান রাষ্ট্রদূত। তিনি রোহিঙ্গাদের প্রত্যাবাসন উপযোগী সঠিক পরিস্থিতি সৃষ্টিতে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে আরো এগিয়ে আসার আহ্বান জানান। 

          রাষ্ট্রদূত ফাতিমা আরো বলেন, বাস্তচ্যুত রোহিঙ্গাদের ন্যায়বিচার নিশ্চিত করতে বাংলাদেশ সবকিছুই করছে। আন্তর্জাতিক অপরাধ আদালত (ওআইসি) এবং মিয়ানমারের স্বাধীন তদন্ত প্রক্রিয়ার (আইআইএমএম)  সকল প্রচেষ্টায় বাংলাদেশ পূর্ণ সমর্থন দিচ্ছে। রাষ্ট্রদূত ফাতিমা রোহিঙ্গাদের ন্যায়বিচার নিশ্চিত এবং ঘটনার পুনরাবৃত্তি রোধ করতে সকল দেশকে এ সংক্রান্ত চলমান জবাবদিহিমূলক ব্যবস্থায় সহযোগিতা প্রদান ও তাদের প্রবেশাধিকার প্রদানে সহযোগিতা করার আহ্বান জানান।

          আসিয়ান ও মিয়ানমারের মধ্যে পাঁচদফা ঐকমত্যের দ্রুত ও পূর্ণ বাস্তবায়নসহ  মিয়ানমারের সংকটের সমাধান খুঁজে বের করার প্রচেষ্টা গ্রহণের জন্য আসিয়ানের প্রশংসা করেন বাংলাদেশের স্থায়ী প্রতিনিধি। দীর্ঘস্থায়ী রোহিঙ্গা সংকটের স্থায়ী রাজনৈতিক সমাধানের জন্য আসিয়ান সদস্য দেশ এবং এই অঞ্চলের অন্যান্য দেশগুলোর সাথে সম্পৃক্ততা অব্যাহত রাখার জন্য মিয়ানমার বিষয়ক বিশেষ দূতের প্রতি আহ্বান জানান রাষ্ট্রদূত ফাতিমা।

          মিয়ানমার বিষয়ক বিশেষ দূতের ব্রিফিং এর পর সদস্য রাষ্ট্রগুলো প্রদত্ত বক্তব্যে আসিয়ানের পরিপূরক ভূমিকার প্রতি তাদের পূর্ণ সমর্থন ব্যক্ত করেন। সদস্য রাষ্ট্রগুলো বাংলাদেশ সরকারের অনুকরণীয় মানবিক নেতৃত্বের প্রশংসা করেন।

 

বেগম রোকেয়া পদক এর মনোনয়ন আহবান

 

ঢাকা, ৩১ জ্যৈষ্ঠ (১৪ জুন) :

 

নারী শিক্ষা, নারী অধিকার, নারীর আর্থসামাজিক উন্নয়ন, সাহিত্য ও সংস্কৃতির মাধ্যমে নারী জাগরণ ও পল্লী উন্নয়ন এবং সরকার নির্ধারিত অন্য কোন ক্ষেত্রে অবদানের সর্বোচ্চ স্বীকৃতিস্বরূপ পাঁচজন বাংলাদেশি নারীকে ‘বেগম রোকেয়া পদক, ২০২২’ প্রদান করা হবে।

উল্লিখিত যে কোন ক্ষেত্রে অবদান রেখেছেন এমন বাংলাদেশি নারীদের নিকট থেকে দরখাস্ত আহ্বান করা হয়েছে। আবেদনপত্রের ‘ছক’ মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের ওয়েব-সাইট (www.mowca.gov.bd) এবং মহিলা বিষয়ক অধিদপ্তরের ওয়েব-সাইট (www.dwa.gov.bd)- এ পাওয়া যাবে। ওয়েব-সাইটে প্রকাশিত ‘ছক’ ব্যতীত অন্য কোন ছকের আবেদন/মনোনয়ন গ্রহণ করা হবে না।

আগ্রহীদের পদকপ্রাপ্তির ক্ষেত্র উল্লেখপূর্বক আগামী ৩১ জুলাই ২০২২ তারিখের মধ্যে নির্ধারিত ছক অনুযায়ী আবেদনের সফটকপি ই-মেইলে (sasadmn2@gmail.com) [(Nikosh-ফন্টে MS Word File-এ)] এবং ডাকযোগে/সরাসরি ২ (দুই) সেট হার্ডকপি সচিব, মহিলা ও শিশু বিষয়ক মন্ত্রণালয়, বাংলাদেশ সচিবালয়, ঢাকা বরাবর প্রেরণ করতে হবে।

 

Read us@googlenews

Social

More News
© Copyright: 2020-2022

Bangladesh Beyond is an online version of Fortnightly Apon Bichitra 

(Reg no: DA 1825)

Developed By Bangladesh Beyond