[Valid RSS]
August 18, 2022, 1:11 am
Treanding
Wasfia Nazreen returned home after conquering ‘Chhogori-K2’ Globe witnessing strongest heat wave in six decades জন্মাষ্টমী উপলক্ষ্যে প্রধানমন্ত্রী ও রাষ্ট্রপতির বাণী   Unscrupulous traders are taking advantage of fuel price hike: Tipu realme is Entering the Second Stage of Growth : Sky Li, realme CEO APAC Outlook : Surviving the Year’s Rocky and Uneven Start APAC Chartbook: The Power of Prices Delta Brac Housing Finance Corp. Ltd gets new name DBH Finance PLC US wants to prolong Ukraine conflict : Putin Russian President addressed 10th Moscow Conference on International Security Russia warns of ‘direct military clash’ with US Explosions rock Crimea : Ukrainian attack suspected আন্তঃ ক্যান্টনমেন্ট বিতর্ক প্রতিযোগিতা- ২০২২ এর উদ্বোধন উত্তরার বিআরটি প্রকল্পের দুর্ঘটনায় দোষীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি রোড সেফটি ফাউন্ডেশনের  চা-শ্রমিকদের নিকট গ্রহণযোগ্য যৌক্তিক মজুরি নির্ধারণের আহবান টিআইবির Prayers offered for Bangabandhu at PMO Launch fare increased by 30 percent ECNEC approves 6 projects involving Tk 2,504.75cr Experts suggested reassessment of the country’s maternal, child health programs & policies Russia and UN discuss crisis at nuclear plant

0৮ জুলাই এক নজরে বাংলাদেশ

Bangladesh Beyond
  • Updated on Friday, July 8, 2022
  • 127 Impressed

0৮ জুলাই এক নজরে বাংলাদেশ

 

জাপানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী শিনজো অ্যাবে ও বাংলাদেশের  সংগীত পরিচালক ও সুরকার আলম খানের মৃত্যুতে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রীর শোক

 

ঢাকা, ২৪ আষাঢ় (৮ জুলাই) : 

 

জাপানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী শিনজো অ্যাবে ও বাংলাদেশের গুণী সংগীত পরিচালক ও সুরকার আলম খানের মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রী স্থপতি ইয়াফেস ওসমান।

 

মন্ত্রী পৃথক শোকবার্তায় মরহুমের বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা করেন এবং তাদের শোকসন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান।

 

 

অভিনেত্রী শর্মিলী আহমেদের মৃত্যুতে মন্ত্রী ও প্রতিমন্ত্রীর শোক

 

ঢাকা, ২৪ আষাঢ় (৮ জুলাই) :

 

 

অভিনেত্রী শর্মিলী আহমেদের মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রী স্থপতি ইয়াফেস ওসমান এবং সংস্কৃতি বিষয়ক প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ।

 

মন্ত্রী ও প্রতিমন্ত্রী পৃথক শোকবার্তায় মরহুমার বিদেহী আত্মার মাগফিরাত কামনা করেন এবং তাঁর শোকসন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান।

 

 

দেশের উন্নয়নের সব সূচকে শেখ হাসিনার পরশপাথরের ছোঁয়া লেগেছে  : শ ম রেজাউল করিম

 

ঢাকা, ২৪ আষাঢ় (৮ জুলাই) :  

বিশ্ব পরিমন্ডলের উন্নয়ন ও বিশ্ব শান্তি স্থাপন সবখানেই শেখ হাসিনা আছেন বলে মন্তব্য করেছেন মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম।

আজ জাতীয় প্রেসক্লাবের তফাজ্জল হোসেন মানিক মিয়া হলে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও সাবেক মন্ত্রী সাহারা খাতুনের ২য় মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষ্যে আয়োজিত স্মরণসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে মন্ত্রী এ মন্তব্য করেন। বাংলাদেশ অনলাইন অধিকার ফোরাম এ স্মরণসভা আয়োজন করে।

মন্ত্রী বলেন, দেশের উন্নয়নের সব সূচকে শেখ হাসিনার পরশপাথরের ছোঁয়া লেগেছে। একজন শেখ হাসিনা আমাদের কাছে দৃষ্টান্ত। দেশের অবকাঠামো উন্নয়নে, সামাজিক উন্নয়নে, অর্থনীতির উন্নয়নে যেখানেই খোঁজা হবে সেখানেই রয়েছেন শেখ হাসিনা। তিনি দেশের বাইরেও নিজের অবস্থান প্রতিষ্ঠা করেছেন। বিশ্ব জলবায়ু সম্মেলনে বলিষ্ঠ ভূমিকা রাখার জন্য তাঁকে বলা হয়েছে দুর্গতদের কণ্ঠস্বর। বিশ্বের অভিবাসী সংকটে লাখ লাখ বিপন্ন মানুষকে আশ্রয় দিয়ে মানবতার মা হিসেবে স্বীকৃতি পেয়েছেন শেখ হাসিনা।

শ ম রেজাউল করিম আরো বলেন, পঁচাত্তরে প্রমাণিত হয়েছে কারা আওয়ামী লীগের সত্যিকারের স্বজন। ২০০৭ সালে ওয়ান ইলেভেন সরকার আমলে প্রমাণ হয়েছে প্রকৃতপক্ষে কারা দুঃসময়ে শেখ হাসিনা বা আওয়ামী লীগের স্বজন। অনেকেই সেদিন নানা অজুহাতে শেখ হাসিনার পাশে ছিলেন না। সাহারা খাতুন শেখ হাসিনা ও আওয়ামী লীগের দুঃসময়ে পাশে থাকা আপনজন। তিনি আদর্শ ও নীতি-নৈতিকতার প্রশ্নে, দলের প্রশ্নে, দৃঢ়তার প্রশ্নে সেদিন সাহস দেখিয়েছেন। তার মতো সততা, আদর্শিক দৃঢ়তা ও দুঃসময়ে পাশে দাঁড়ানোর মানসিকতা ধারণ করতে হবে। এজন্য সাহারা খাতুনরা শারীরিক মৃত্যু হলেও কীর্তির মধ্যে বেঁচে থাকেন। সাহারা খাতুনের মতো শেখ হাসিনার বিশ্বস্ত কর্মী হতে পারলে তাকে স্মরণ করা সার্থক হবে।

ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল অ্যাডভোকেট কাজী শাহনারা ইয়াসমিনের সভাপতিত্বে স্মরণ সভায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য প্রদান করেন বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য এ কে এম নূর-উন-নবী, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সংস্কৃতি বিভাগের অধ্যাপক ড. অসীম সরকার। ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের আইন বিষয়ক সম্পাদক অ্যাডভোকেট জগলুল কবির, জিল্লুর রহমান পরিষদের সাধারণ সম্পাদক আখতারুজ্জামান খোকা, ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের সহসভাপতি মানিক লাল ঘোষ প্রমুখ।

 

 

 

উল্টোরথ যাত্রায় সম্প্রীতির বন্ধন শক্তিশালী করার আহ্বান খাদ্যমন্ত্রীর  

 

 

ঢাকা, ২৪ আষাঢ় (৮ জুলাই) :   

 

খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদার বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশ গড়তে কাজ করছেন। এটা বাস্তবায়নে সম্প্রীতির বন্ধন শক্তিশালী করতে সকলকে একতাবদ্ধ হতে হবে।

আজ ঢাকায় ঢাকেশ্বরী জাতীয় মন্দির প্রাঙ্গণে আন্তর্জাতিক কৃষ্ণ ভাবনামৃত সংঘ (ইসকন) আয়োজিত আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে মন্ত্রী এসব কথা বলেন।

খাদ্যমন্ত্রী বলেন, জগন্নাথদেব মানব কল্যাণে বছরে একবার ধরাধামে নেমে আসেন। মানব সেবার জন্য তিনি যে নির্দেশনা রেখে গেছেন তা অনুসরণ করলে বিশ্বে কোন হানাহানি থাকবে না বলেও উল্লেখ করেন মন্ত্রী।

সকল ধর্মের মূল লক্ষ্য মানবকল্যাণ উল্লেখ করে সাধন চন্দ্র মজুমদার বলেন, সমাজের বিশৃঙ্খলা ও হানাহানি রোধ করতে হলে নিজের মনের কালিমা দূর করতে হবে। এসময় তিনি হিংসা বিদ্বেষ ভুলে মানব সেবায় আত্মনিয়োগে ভক্তবৃন্দের প্রতি আহ্বান জানান।

সনাতন ধর্মাবলম্বীদের অন্যতম ধর্মীয় অনুষ্ঠান শ্রী শ্রী জগন্নাথদেবের রথযাত্রা উৎসব ২০২২ শুরু হয় পহেলা জুলাই। উল্টোরথ যাত্রার মাধ্যমে অনুষ্ঠানমালা আজ শেষ হয়। ৮ দিনব্যাপী অনুষ্ঠানমালার মধ্যে ছিল হরিনাম সংকীর্তন, বিশ্ব শান্তি ও মঙ্গল কামনায় অগ্নিহোত্র যজ্ঞ, মহাপ্রসাদ বিতরণ, আলোচনা সভা, পদাবলি কীর্তন, আরতি কীর্তন, ভাগবত কথা, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, শ্রীমদ্ভাগবত গীতা পাঠ, ধর্মীয় চলচ্চিত্র প্রদর্শন ও ধর্মীয় নাটক মঞ্চায়ন।

ইসকন স্বামীবাগ আশ্রমের অধ্যক্ষ শ্রী চারু চন্দ্র দাস ব্রহ্মচারীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের ত্রাণ ও সমাজ কল্যাণ সম্পাক সুজিত রায় নন্দী, বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি জে এল ভৌমিক, মহানগর সার্বজনীন পূজা কমিটির সভাপতি মনীন্দ্র কুমার নাথ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় জগন্নাথ হলের সাবেক প্রাধাক্ষ্য ড. অসীম সরকার, বিশিষ্ট সাংবাদিক বাসুদেব ধর এবং বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদের সাধারণ সম্পাদক রমেন মন্ডল। স্বাগত বক্তব্য রাখেন ইসকনের পরিচালক শুভ নিতাই দাস ব্রহ্মচারী।

উল্টো রথযাত্রার উদ্বোধন করেন ভারতের মায়াপুর শ্রীধামের শ্রীমৎ ভক্তি বিজয় ভাগবত স্বামী মহারাজ।

সনাতন ধর্মাবলম্বীরা বিশ্বাস করেন জগন্নাথদেব হলেন জগতের নাথ বা অধীশ্বর। জগৎ হচ্ছে বিশ্ব আর নাথ হচ্ছেন ঈশ্বর। তাই জগন্নাথ হচ্ছেন জগতের ঈশ্বর। তার অনুগ্রহ পেলে মানুষের মুক্তিলাভ হয়। জীবরূপে তাকে আর জন্ম নিতে হয় না। এ বিশ্বাস থেকেই রথের উপর জগন্নাথ দেবের প্রতিমূর্তি রেখে রথ নিয়ে যাত্রা করেন সনাতন ধর্মাবলম্বীরা।

কোভিড-১৯ সংক্রান্ত সর্বশেষ প্রতিবেদন

 

ঢাকা, ২৪ আষাঢ় (৮ জুলাই) :  

 

স্বাস্থ্য অধিদপ্তর এবং রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইনস্টিটিউট (আইইডিসিআর)-এর তথ্যানুযায়ী গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল ৮টা থেকে শুক্রবার সকাল ৮টা পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় দেশে ১ হাজার ৬১১ জনের শরীরে করোনা সংক্রমণ পাওয়া গেছে। নমুনা পরীক্ষার বিপরীতে রোগী শনাক্তের হার ১৬ দশমিক ৮২ শতাংশ। এ সময় ৯ হাজার ৫৮০ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে।                

গত ২৪ ঘণ্টায় কোভিড-১৯ এ আক্রান্ত হয়ে ৭ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ পর্যন্ত ২৯ হাজার ১৯৫ জন করোনায় মৃত্যুবরণ করেছেন। করোনাভাইরাস আক্রান্তদের মধ্যে এখন পর্যন্ত সুস্থ হয়েছেন ১৯ লাখ ১১ হাজার ৩৬৭ জন।  

 

 

জাপানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী শিনজো আবে’র মৃত্যুতে পররাষ্ট্রমন্ত্রীর শোক

ঢাকা, ২৪ আষাঢ় (৮ জুলাই) :    

জাপানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী শিনজো আবে’র মৃত্যুতে গভীর শোক ও দুঃখ প্রকাশ করেছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন।

আজ এক শোকবার্তায় পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, শিনজো আবে আমার ঘনিষ্ঠজন ছিলেন এবং তিনি বাংলাদেশেরও বন্ধু ছিলেন। ড. মোমেন শিনজো আবে’র ওপর গুলি চালানোর ঘটনা অত্যন্ত ন্যাক্কারজনক উল্লেখ করে বলেন, তাঁর মৃত্যুতে জাপানের জনগণ এক অসাধারণ নেতাকে হারালো, একইসাথে বাংলাদেশ হারালো তার একজন অকৃত্রিম বন্ধুকে। তিনি শিনজো আবে’র বিদেহী আত্মার চিরশান্তি কামনা করেন এবং শোকসন্তপ্ত পরিবারের সদস্য ও জাপানের জনগণের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান।

 

 

অভিনেত্রী শর্মিলী আহমেদ ও সুরকার আলম খানের মৃত্যুতে তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রীর শোক

 

ঢাকা, ২৪ আষাঢ় (৮ জুলাই) :    

বরেণ্য অভিনেত্রী শর্মিলী আহমেদ এবং গুণী সংগীত পরিচালক ও সুরকার আলম খানের মৃত্যুতে গভীর শোক ও দু:খ প্রকাশ করেছেন তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ।

আজ সকালে এই দুই সংস্কৃতি প্রতিভার  মৃত্যু সংবাদে শোকাহত মন্ত্রী প্রয়াতদের বিদেহী আত্মার শান্তি কামনা করেন ও তাদের শোকসন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি গভীর সমবেদনা জানান।

ড. হাছান তাঁর শোকবার্তায় বলেন, মঞ্চ ও টেলিভিশনের চার শতাধিক নাটক এবং দেড় শতাধিক চলচ্চিত্রের গুণী অভিনয়শিল্পী শর্মিলী আহমেদ এবং ‘ওরে নীল দরিয়া’, ‘হায়রে মানুষ, রঙিন ফানুস’, ‘আমি একদিন তোমায় না দেখিলে’, ‘চাঁদের সাথে দেব না’, সহ অসংখ্যা জনপ্রিয় গানের সুরকার আলম খান তাদের কীর্তির মধ্য দিয়ে যুগ যুগ ধরে এদেশের মানুষের হৃদয়ে বেঁচে থাকবেন। 

 

নিউইয়র্কে বিসিআইইউ এর প্রেসিডেন্ট পিটার টিচানস্কি’র সাথে কনসাল জেনারেলের বৈঠক

 

ঢাকা, ৮ জুলাই :       

          নিউইয়র্কস্থ বিজনেস কাউন্সিল ফর ইন্টারন্যাশনাল আন্ডারস্টান্ডিং(বিসিআইইউ)-এর প্রেসিডেন্ট পিটার টিচানস্কি কনসাল জেনারেল ড. মোহাম্মদ মনিরুল ইসলামের সাথে গতকাল নিউইয়র্কে বাংলাদেশ কনস্যুলেট জেনারেলে বৈঠক করেন।

বৈঠককালে তাঁরা বর্তমান বিশ্ব পরিবর্তিত পরিস্থিতি প্রেক্ষাপট ও এর অর্থনৈতিক প্রভাব নিয়ে আলোচনা করেন। উভয়ই বাংলাদেশ-যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যেকার বাণিজ্যিক ও বিনিয়োগ সম্পর্কে আরো গভীর ও সম্প্রসারিত করার ওপর গুরুত্বারোপ করেন। এ সময়ে কনস্যুলেটের প্রথম সচিব ইসরাত জাহান এবং বিসিআইইউ’র এশিয়া বিষয়ক প্রোগ্রাম কো-অর্ডিনেটর, পেনি তাও উপস্থিত ছিলেন।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশের আর্থ-সামাজিক ক্ষেত্রে যে অভূতপূর্ব অগ্রগতি সাধিত হয়েছে তা বর্ণনা করে কনসাল জেনারেল ড. মনিরুল ইসলাম বলেন, বাংলাদেশ এখন বিশ্বে উন্নয়নের রোল মডেল হিসেবে বিবেচিত হচ্ছে। এসময় বাংলাদেশের সাথে প্রতিবেশী রাষ্ট্রসমূহের অর্থনৈতিক তুলনামূলক চিত্র তুলে ধরে ড. ইসলাম বলেন, বাংলাদেশের অর্থনীতি শুধু যে একটি শক্তিশালী অবস্থানে রয়েছে তাই নয়, বাংলাদেশ একটি উদীয়মান অর্থনৈতিক শক্তি হিসেবে আজ বিশ্ব দরবারে স্বীকৃত ও সমাদৃত।

তিনি বলেন, প্রবাসীদের পাঠানো রেমিট্যান্স বাংলাদেশের অর্থনীতির চাকা সচল রাখতে বলিষ্ঠ ভূমিকা রাখছে। কনসাল জেনারেল যুক্তরাষ্ট্রে বসবাসরত প্রবাসী বাংলাদেশীদের কর্মদক্ষতা, নিষ্ঠা ও সৃজনশীলতার ওপর আলোকপাত করেন এবং বাংলাদেশের অর্থনীতিতে তাদের অবদান তথা বাংলাদেশ-যুক্তরাষ্ট্রের বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ককে আরো জোরদারকরণে তাদের অব্যাহত প্রচেষ্টা ও আন্তরিকতার কথা তুলে ধরেন।

প্রেসিডেন্ট পিটার টিচানস্কি প্রবাসী বাংলাদেশীদেরকে ‍দু’দেশের মধ্যকার সেতু বন্ধন হিসেবে আখ্যায়িত করেন। তিনি বাংলাদেশের অর্থনৈতিক সফলতা ও অর্জনের ভূয়সী প্রশংসা করেন। বাংলাদেশ-যুক্তরাষ্ট্রের বাণিজ্যিক ও বিনিয়োগ সম্পর্ককে ত্বরান্বিত করতে তিনি সর্বাত্মক সহযোগিতার আশ্বাস প্রদান করেন। বাংলাদেশ-যুক্তরাষ্ট্র সম্পর্কের পঞ্চাশ বছর পূর্তিতে নিউইয়র্কস্থ বিসিআইইউ এর সহযোগিতায় বাংলাদেশ বিষয়ক একটি অর্থনৈতিক সেমিনার করার বিষয়ে কনস্যুলেট ও বিসিআইইউ একসাথে কাজ করার ব্যাপারে একমত পোষণ করেছে।

 

 

নিউইয়র্কে কনস্যুলার সেবারমান সমুন্নত রাখতে সেবা গ্রহীতাদের সাথে উন্মুক্ত আলোচনা

 

ঢাকা, ৮ জুলাই :       

নিউইয়র্কে বাংলাদেশ কনস্যুলেট জেনারেলে গতকাল কনস্যুলেটে আগত সেবা গ্রহীতার অংশগ্রহণে উন্মুক্ত আলোচনা অনুষ্ঠিত হয়। কনসাল জেনারেল ড. মোহাম্মদ মনিরুল ইসলাম এ অনুষ্ঠানের উদ্দেশ্য ও প্রয়োজনীয়তার ওপর আলোকপাত করেন। সেবারমান উত্তরোত্তর বৃদ্ধিতে কনস্যুলেটের আন্তরিকতা ও নিরলস প্রচেষ্টার কথা তিনি পুনর্ব্যক্ত করেন। প্রবাসী বাংলাদেশীদের সেবা ও কল্যাণে কনস্যুলেট সদা প্রস্তুত ও প্রতিশ্রুতিবদ্ধ বলে তিনি উল্লেখ করেন। ‍

কনস্যুলেটের সেবার মান সমুন্নত রাখতে কনসাল জেনারেল ‍উপস্থিত সকলের পরামর্শ ও মতামত আহ্বান করেন। সেবাগ্রহীতাগণ কনস্যুলেট সেবাকে আরো সহজ, সাবলীল ও ত্বরান্বিত করার বিষয়ে তাদের মূল্যবান মতামত প্রকাশ করেন। কনসাল জেনারেল সকলের কথা মনোযোগ সহকারে শোনেন ও তাদের প্রশ্নের জবাব দেন।

          কনসাল জেনারেল ভবিষ্যতে এ ধরণের আলোচনা অব্যাহত রাখার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন। তিনি আসন্ন পবিত্র ইদুল-আজহার শুভেচ্ছা বিনিময় এবং সকলের সুখ-শান্তি, নিরাপত্তা ও মঙ্গল কামনা করেন।

 

 

রাষ্ট্রদূত সহিদুল ইসলামের ডোমিনিকার প্রেসিডেন্টের কাছে পরিচয়পত্র পেশ

 

ঢাকা, ৮ জুলাই :       

 

যুক্তরাষ্ট্রে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত মোঃ সহিদুল ইসলাম গত ৬ জুলাই ডোমিনিকান রিপাবলিকের প্রেসিডেন্ট লুইস আবিনাদারের নিকট তাঁর পরিচয়পত্র পেশ করেন। রাজধানী সান্তো ডোমিঙ্গোর ন্যাশনাল প্যালেসে দেশটির প্রেসিডেন্টের কাছে তিনি এ পরিচয়পত্র পেশ করনে। সেদেশের ভাইস প্রেসিডেন্ট রাকেল পেনা ডি আন্টুনা এবং পররাষ্ট্রমন্ত্রী রবার্তো আলভারেজ এসময় উপস্থিত ছিলেন।

          রাষ্ট্রদূত ডোমিনিকার প্রেসিডেন্টকে বাংলাদেশের রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর শুভেচ্ছা জানান। প্রেসিডেন্ট রাষ্ট্রদূতকে স্বাগত জানান এবং বাংলাদেশের সুদৃঢ় অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধির প্রশংসা করেন। তিনি বাংলাদেশের সাথে তাঁর দেশের সম্পর্ক জোরদার করতে গভীর আগ্রহ প্রকাশ করেন।

ওয়াশিংটনে দায়িত্বরত রাষ্ট্রদূত মো: শহিদুল ইসলাম একই সাথে বেলিজ, কলম্বিয়া, ডোমিনিকান রিপাবলিক, গায়ানা এবং হাইতিতে বাংলাদেশের প্রতিনিধিত্ব করছেন।

          এছাড়া রাষ্ট্রদূত ইসলাম ৭ জুলাই ডোমিনিকার পররাষ্ট্রমন্ত্রী রবার্তো আলভারেজের সাথেও পৃথক বৈঠক করেন। তিনি ফরেন অফিস কনসালটেশন (এফওসি), কূটনৈতিক ও অফিসিয়াল পাসপোর্টধারীদের জন্য ভিসা মওকুফ এবং বাণিজ্য ও বিনিয়োগ বৃদ্ধির জন্য একটি যৌথ ওয়ার্কিং গ্রুপ প্রতিষ্ঠা সংক্রান্ত তিনটি চুক্তি স্বাক্ষরের প্রস্তাবসহ দ্বিপাক্ষিক সহযোগিতা নিয়ে আলোচনা করেন।

 

বিশ্ব জনসংখ্যা দিবসে প্রধানমন্ত্রীর বাণী

ঢাকা, ২৪ আষাঢ় (৮ জুলাই) :       

 

          প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ১১ জুলাই ‘বিশ্ব জনসংখ্যা দিবস ২০২২’ উপলক্ষ্যে নিম্নোক্ত বাণী প্রদান করেছেন:

“প্রতি বছরের ন্যায় এবারও বাংলাদেশে ১১ জুলাই ‘বিশ্ব জনসংখ্যা দিবস-২০২২’ পালন করা হচ্ছে জেনে আমি আনন্দিত। দিবসটির এবারের প্রতিপাদ্য ‘A world of 8 billion: Towards a resilient future for all Harnessing opportunities and ensuring rights and choices for all’, যার ভাবানুবাদ ‘৮০০ কোটির পৃথিবী: সকলের সুযোগ, পছন্দ ও অধিকার নিশ্চিত করে প্রাণবন্ত ভবিষ্যৎ গড়ি’- অত্যন্ত সময়োপযোগী হয়েছে বলে আমি মনে করি। 

জনসংখ্যা ও উন্নয়ন একে অপরের সঙ্গে অঙ্গাঙ্গিভাবে জড়িত। কোনো দেশের জনসংখ্যা আয়তনের তুলনায় বেশি হলে প্রতিটি সেক্টরে এর প্রভাব পড়বে। তাই একটি দেশের উন্নয়ন ও অগ্রগতি টেকসই করতে হলে, সে দেশের জনসংখ্যা হতে হবে পরিকল্পিত। খাদ্য, বস্ত্র, বাসস্থান, শিক্ষা ও স্বাস্থ্যের মতো অন্যান্য মৌলিক অধিকার পূরণের পাশাপাশি সুখী-সমৃদ্ধ দেশ গঠনে পরিকল্পিত জনসংখ্যা গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে। 

আওয়ামী লীগ সরকার দেশের মানুষের জীবন-মান উন্নয়নে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। আমরা পরিকল্পিত জনসংখ্যা তথা পরিকল্পিত পরিবার গঠনের মাধ্যমে জনগণের সুযোগ, পছন্দ ও অধিকার নিশ্চিত করে প্রাণবন্ত ভবিষ্যৎ গড়তে বিভিন্ন কর্মসূচি বাস্তবায়ন করছি। প্রতি ৬ হাজার জনগোষ্ঠীর জন্য একটি করে কমিউনিটি ক্লিনিক স্থাপনের মাধ্যমে গ্রামীণ দরিদ্র জনগোষ্ঠীর দোরগোড়ায় স্বাস্থ্যসেবা পৌঁছে দেওয়া হচ্ছে। পরিবার পরিকল্পনা বিভাগের মাঠকর্মীগণ প্রতিমাসে বাড়ি বাড়ি গিয়ে দম্পতি পরিদর্শন, পরিবার পরিকল্পনা, মা-শিশু স্বাস্থ্যসেবা, প্রজনন স্বাস্থ্যসেবা, স্বাভাবিক প্রসব সংক্রান্ত সকল সেবা, বয়ঃসন্ধিকালীন স্বাস্থ্যসেবা এবং পরামর্শ দিচ্ছেন। নিরাপদ মাতৃত্ব, কিশোর-কিশোরীর স্বাস্থ্য, নারী শিক্ষা ও নারী কর্মসংস্থানের জন্য নতুন নতুন পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে। এসব উদ্যোগের ফলে মাতৃ ও শিশুমৃত্যু হার হ্রাস পেয়েছে এবং পরিকল্পিত পরিবারের সংখ্যা দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে। দেশের অগ্রগতি ও টেকসই উন্নয়ন নিশ্চিত করতে পরিবার পরিকল্পনা, মা ও শিশুস্বাস্থ্য সেবার পরিধি এবং মান আরো বৃদ্ধি করা দরকার। 

কোভিড-১৯ পরিস্থিতিতে আমাদের সকলকে স্বাস্থ্যবিধি মেনে জীবনযাপন করতে হবে। সুস্থ-সবল জাতি গঠনে পরিবার পরিকল্পনা, মা-শিশু স্বাস্থ্য এবং প্রজনন স্বাস্থ্যসেবা প্রদানের ক্ষেত্রে তৃণমূল পর্যায়ে সেবা অবকাঠামোসমূহের সর্বোত্তম ব্যবহার নিশ্চিত করতে সংশ্লিষ্ট সকলকে আরো নিবেদিত হওয়া প্রয়োজন। এ কার্যক্রমে সরকারের পাশাপাশি বেসরকারি সংগঠন, গণমাধ্যম, সচেতন ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানকে এগিয়ে আসারও আহ্বান জানাই। 

একটি পরিকল্পিত ও প্রাণবন্ত মানবসম্পদ হোক আমাদের আগামী দিনের প্রাপ্তি। আসুন, আমরা ঐক্যবদ্ধভাবে সবাই মিলে একটি অসাম্প্রদায়িক, ক্ষুধা-দারিদ্র্যমুক্ত ও উন্নত-সমৃদ্ধ দেশ গড়ে তুলি। প্রতিষ্ঠা করি সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বপ্নের ‘সোনার বাংলাদেশ’। 

আমি ‘বিশ্ব জনসংখ্যা দিবস ২০২২’ উপলক্ষ্যে গৃহীত সকল কর্মসূচির সাফল্য কামনা করছি। 

 জয় বাংলা, জয় বঙ্গবন্ধু,  বাংলাদেশ চিরজীবী হোক।”

 

 

বিশ্ব জনসংখ্যা দিবসে রাষ্ট্রপতির বাণী   

 

ঢাকা, ২৪ আষাঢ় (৮ জুলাই) :     

 

            রাষ্ট্রপতি মোঃ আবদুল হামিদ ১১ জুলাই ‘বিশ্ব জনসংখ্যা দিবস ২০২২’ উপলক্ষ্যে নিম্নোক্ত বাণী প্রদান করেছেন :   

          “বিশ্বের অন্যান্য দেশের ন্যায় বাংলাদেশেও ‘বিশ্ব জনসংখ্যা দিবস ২০২২’ পালনের উদ্যোগকে আমি স্বাগত জানাই। এ বছর বিশ্ব জনসংখ্যা দিবসের প্রতিপাদ্য ‘A world of 8 billion: Towards a resilient future for all-Harnessing opportunities and ensuring rights and choices for all’ অর্থাৎ ‘৮০০ কোটির পৃথিবী: সকলের সুযোগ, পছন্দ ও অধিকার নিশ্চিত করে প্রাণবন্ত ভবিষ্যৎ গড়ি’ বর্তমান প্রেক্ষাপটে অত্যন্ত সময়োপযোগী ও যথার্থ হয়েছে বলে আমি মনে করি। 

বাংলাদেশ একটি জনবহুল দেশ। আয়তনের তুলনায় দেশের জনসংখ্যা ক্রমাগত বেড়েই চলেছে। জনসংখ্যা বৃদ্ধির হার সীমিত রাখতে পরিকল্পিত পরিবার গঠন অত্যন্ত জরুরি। দেশকে সমৃদ্ধির পথে এগিয়ে নিতে হলে জনসংখ্যাকে কাঙ্ক্ষিত মাত্রায় রেখে বিদ্যমান সম্পদের টেকসই ও সর্বোত্তম ব্যবহার নিশ্চিত করতে হবে। জনসংখ্যাকে পরিণত করতে হবে জনসম্পদে। টেকসই উন্নয়নে পরিকল্পিত ও দক্ষ জনসম্পদের গুরুত্ব অপরিসীম। তাই টেকসই ও প্রাণবন্ত ভবিষ্যৎ গড়তে দেশের সকল সক্ষম দম্পতির কাছে তাদের চাহিদা ও পছন্দ অনুযায়ী পরিবার পরিকল্পনা এবং মা ও শিশুস্বাস্থ্য তথ্য ও সেবা পৌঁছে দিতে কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণের জন্য আমি সংশ্লিষ্ট সকলের প্রতি আহ্বান জানাচ্ছি। 

পরিকল্পিত জনসংখ্যা খাদ্য, বস্ত্র, শিক্ষা ও স্বাস্থ্যসহ অন্যান্য মৌলিক অধিকার পূরণের পাশাপাশি সুখী-সমৃদ্ধ দেশগঠনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে। বাংলাদেশের আয়তন, অবস্থান, জনসংখ্যা, প্রাকৃতিক সম্পদ, পরিবেশ ও আর্থ-সামাজিক প্রেক্ষাপটে পরিকল্পিত পরিবার গঠনের বিকল্প নেই। সরকার বিষয়টির গুরুত্ব অনুধাবন করে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে পরিকল্পিত জনসংখ্যা গড়তে বিভিন্ন কর্মসূচি বাস্তবায়ন করে যাচ্ছে। একই সাথে বিদ্যমান কর্মসূচিগুলোতে উদ্ভাবনী কর্মকাণ্ডের সন্নিবেশ ঘটাতে হবে। তাহলে দেশের টেকসই উন্নয়নের সাথে সাথে সকলের সুযোগ, পছন্দ ও অধিকার নিশ্চিত হবে। এলক্ষ্যে সরকারের পাশাপাশি বিভিন্ন বেসরকারি সংস্থা, ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানকে আরো সক্রিয়ভাবে ও আন্তরিকতার সাথে এগিয়ে আসতে হবে। দেশে বিদ্যমান সেবা অবকাঠামোসমূহের সর্বোত্তম ব্যবহার এবং মানসম্মত পরিবার পরিকল্পনা সেবা প্রদান নিশ্চিত করতে সংশ্লিষ্ট সকলের নিরলস প্রচেষ্টা অব্যাহত থাকবে- এ প্রত্যাশা করি। 

আমি ‘বিশ্ব জনসংখ্যা দিবস ২০২২’ উপলক্ষ্যে গৃহীত সকল কর্মসূচির সাফল্য কামনা করছি। 

জয় বাংলা। খোদা হাফেজ, বাংলাদেশ চিরজীবী হোক।”

 

২০২৩ সাল পর্যন্ত হিলিপ প্রকল্পের ১৩২টি জলমহাল হস্তান্তরের সময়সীমা বৃদ্ধি : ভূমিমন্ত্রী

 

ঢাকা, ২৩ আষাঢ় (৭ জুলাই) :

            ভূমিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী বলেছেন, এখন কেবল নিবন্ধিত ও প্রকৃত মৎস্যজীবী সমবায় সমিতি, তথা প্রকৃত মৎস্যজীবীরাই জলমহাল ইজারা পাচ্ছেন। কারণ, অনলাইনে জলমহাল আবেদন গ্রহণের পর মাঠ পর্যায়ের প্রতিবেদন এবং ভূমি তথ্য ব্যাংক থেকে উপাত্ত সংগ্রহ করে স্বচ্ছতা ও দক্ষতার সাথে ইজারা দেওয়ার ব্যবস্থা করা সম্ভব হচ্ছে।

            আজ সচিবালয়ে ভূমি মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে অনুষ্ঠিত ভূমি মন্ত্রণালয়ের সরকারি জলমহাল ইজারা প্রদান সংক্রান্ত কমিটির ৭০তম সভায় সভাপতিত্ব করার সময় ভূমিমন্ত্রী এ কথা বলেন। এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন ভূমি সচিব মোঃ মোস্তাফিজুর রহমান পিএএ এবং ভূমি মন্ত্রণালয়ের সায়রাত মহাল শাখা এবং স্থানীয় সরকার বিভাগের আওতাভুক্ত হিলিপ প্রকল্পের কর্মকর্তাবৃন্দ। ইজারার জন্য প্রস্তাবকৃত জলমহাল সংশ্লিষ্ট জেলার জেলা প্রশাসকবৃন্দ সভায় ভার্চুয়ালি সংযুক্ত ছিলেন।

            ভূমিমন্ত্রী সভায় আরো বলেন, ডিজিটাল ভূমি ব্যবস্থাপনার অংশ হিসেবে অধিগ্রহণকৃত সকল জমি এবং সায়রাত মহাল সংক্রান্ত তথ্য অনলাইনে আপলোড করার ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। ইতোমধ্যে বিভিন্ন ধরনের সরকারি ও খাস জমি/ভূ-সম্পদের প্রায় ৮২ শতাংশ উপাত্ত ভূমি তথ্য ব্যাংকে আপলোড করা হয়েছে।

            সাইফুজ্জামান চৌধুরী বলেন, জলমহালসহ বালুমহাল, খাসজমি, অর্পিত সম্পত্তি, হাটবাজার, চা-বাগান, চিংড়িমহাল এবং অধিগ্রহণ সংক্রান্ত সকল তথ্য ভূমি তথ্য ব্যাংকে সংরক্ষণের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। ফলে, বন্দোবস্ত প্রদানকৃত জমি, সায়রাত মহালের সকল তথ্য, সরকারি ভূ-সম্পত্তি সংক্রান্ত সকল তথ্য তাৎক্ষণিকভাবে পাওয়া সম্ভব হচ্ছে। তাছাড়া জমি অধিগ্রহণ ও বরাদ্দ দেয়ার ক্ষেত্রে সিদ্ধান্ত গ্রহণেও ভূমি তথ্য ব্যাংক গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে।

            উল্লেখ্য, আজ হবিগঞ্জ, টাঙ্গাইল, সুনামগঞ্জ, মৌলভীবাজার, পাবনা, কিশোরগঞ্জ এবং খুলনা জেলার মোট ১৭টি প্রস্তাবের ক্ষেত্রে জেলা প্রশাসক-এর নিকট থেকে প্রতিবেদন প্রাপ্তি সাপেক্ষে এবং স্থানীয় সরকার বিভাগের আওতায় বাস্তবায়নাধীন হিলিপ প্রকল্পে হস্তান্তরিত ১৩৯টি জলমহাল হস্তান্তরের মেয়াদ এক বছর বৃদ্ধির ব্যাপারে সভায় সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়।

            আজকের সভায় প্রতিবেদনের ভিত্তিতে হিলিপ প্রকল্পে হস্তান্তরিত ১৩৯টি জলমহালের মধ্যে ১৩২টি জলমহালের হস্তান্তরের সময়সীমা আগামী ১৩ এপ্রিল ২০২৩ পর্যন্ত বৃদ্ধি করার অনুমোদন দিয়েছেন ভূমিমন্ত্রী। প্রসঙ্গত, ‘হাওর অবকাঠামো ও জীবনমান উন্নয়ন প্রকল্প’ (হিলিপ) হাওর অঞ্চলের দরিদ্র মানুষের জীবনযাত্রার মান উন্নয়ন ও দারিদ্র্য হ্রাসে ২০১২ সাল থেকে কাজ করে যাচ্ছে। ২০২৩ সালে হিলিপ প্রকল্পের মেয়াদ শেষ হওয়ার কথা রয়েছে।

 

 

সুনামগঞ্জে বন্যার্তদের মাঝে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের খাবার স্যালাইন সরবরাহ

 

ঢাকা, ২৩ আষাঢ় (৭ জুলাই) :

            বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রী স্থপতি ইয়াফেস ওসমানের নির্দেশে ও বাংলাদেশ বিজ্ঞান ও শিল্প গবেষণা পরিষদ (বিসিএসআইআর) এর সার্বিক সহযোগিতায় বিসিএসআইআর গুণগত মান রক্ষা করে নিজস্ব ল্যাবরেটরিতে প্রস্তুতকৃত প্রায় ১ লাখ ২৪ হাজার খাবার স্যালাইন সুনামগঞ্জের বন্যার্তদের মাঝে বিতরণের জন্য গত মঙ্গলবার জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে প্রেরণ করা হয়।

            পরে জেলা ত্রাণ ও পুনর্বাসন কর্মকর্তা এই সকল বিশুদ্ধ খাবার সামগ্রী গ্রহণ করেন।

 

 

সুনামগঞ্জে বন্যার্তদের মাঝে খাবার স্যালাইন, বিশুদ্ধ খাবার পানি ও পানি বিশুদ্ধকরণ দ্রবণ সরবরাহ

 

ঢাকা, ২৩ আষাঢ় (৭ জুলাই) :

            বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রী স্থপতি ইয়াফেস ওসমানের নির্দেশে ও বাংলাদেশ রেফারেন্স ইনস্টিটিউট ফর কেমিক্যাল মেজারমেন্টস্ (বিআরআইসিএম) এর সার্বিক সহযোগিতায় বিআরআইসিএম গুণগতমান রক্ষা করে নিজস্ব ল্যাবরেটরিতে প্রস্তুতকৃত প্রায় ১ লাখ ৩০ হাজার খাবার স্যালাইন, ৩ হাজার ৫০০ লিটার বিশুদ্ধ খাবার পানি, ৮ হাজার ৫০০ বোতলে ২২ হাজার লিটার পানি বিশুদ্ধকরণ দ্রবণ এবং ৫ হাজার এনার্জি বার সুনামগঞ্জের বন্যার্তদের মাঝে বিতরণের জন্য গত মঙ্গলবার জেলা প্রশাসকের কার্যালয় এবং বাংলাদেশ আর্মি ক্যাম্পের ক্যাম্প কমান্ডারের কাছে প্রেরণ করা হয়।

            পরে জেলা ত্রাণ ও পুনর্বাসন কর্মকর্তা এই সকল বিশুদ্ধ খাবার সামগ্রী গ্রহণ করেন।

 

 

‘সমাজের সর্বস্তরে বিদ্যুৎ ও জ্বালানির সাশ্রয় সময়ের দাবি’: জ্বালানি উপদেষ্টা

ঢাকা, ২৩ আষাঢ় (৭ জুলাই) :

            প্রধানমন্ত্রীর বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ বিষয়ক উপদেষ্টা ড. তৌফিক-ই-ইলাহী চৌধুরী, বীর বিক্রম বলেছেন, সমাজের সর্বস্তরে বিদ্যুৎ ও জ্বালানি সাশ্রয় সময়ের দাবি। সাশ্রয় কার্যক্রম নিজ আবাসস্থল হতেই শুরু হওয়া বাঞ্ছনীয়। অবৈধ গ্যাস বা বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন কার্যক্রম বাড়িয়ে বকেয়া বিল আদায় জোরদার করতে হবে।

            জ¦ালানি উপদেষ্টা আজ প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে সারাদেশের বিদ্যুৎ ও গ্যাস পরিস্থিতি নিয়ে পর্যালোচনা সভায় সভাপতিত্বকালে এসব কথা বলেন। তিনি বলেন, জ্বালানি সংকট বৈশ্বিক। জাপান, অষ্ট্রেলিয়াসহ উন্নত দেশ লোডশেড বা সাশ্রয়ী উদ্যোগ নিয়েছে। একটু সাশ্রয়ী হয়ে চললেই এই সংকট আমরা ভালোভাবে পার করতে পারবো। উপদেষ্টা এসময় অ্যাপস এর মাধ্যমে লোডশেড সম্পর্কে তথ্য দেয়া যায় কী না, তা খতিয়ে দেখার জন্য সংশ্লিষ্টদের নির্দেশ দেন।

            বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ পর্যালোচনা সভায় ভার্চুয়ালি সংযুক্ত থেকে বলেছেন, অক্টোবর মাস নাগাদ পরিস্থিতি স্বাভাবিক হতে পারে। গ্যাস অনুসন্ধান কার্যক্রম বাড়ানো হয়েছে। ওয়ার্কওভার কার্যক্রম আরো জোরদার করতে সংশ্লিষ্টদের নির্দেশ দিয়ে বলেন, ভোলার গ্যাস দ্রুত আনার উদ্যোগ নিতে হবে। সারাবিশ্ব নানারকম  কৃচ্ছ্রতা সাধনের উদ্যোগ নিয়েছে। আমাদেরকে গ্যাস ও বিদ্যুৎ ব্যবহারে সাশ্রয়ী হতে হবে। লোডশেড করতে হলে অবশ্যই শিডিউল করে গ্রাহকদের জানাতে হবে। এ সময় তিনি সম্মানিত গ্রাহকদের সহযোগিতা কামনা করেন।

            সভায় পেট্রোবাংলার চেয়ারম্যান নাজমুল আহসান প্রাকৃতিক গ্যাসের চাহিদা ও সরবারাহ এবং ভবিষ্যৎ পূর্বাভাস নিয়ে আলোচনা করেন। বাংলাদেশে বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ডের চেয়ারম্যান মোঃ মাহবুবুর রহমান বিদ্যুতের চাহিদা ও সরবরাহ বিষয়টি সভায় তুলে ধরেন। লোডশেড করা হবে বা করা উচিত বিষয়টিও ব্যাখ্যা করেন। বিপিসির চেয়ারম্যান এ বি এম আজাদ এনডিসি, তেলের সরবরাহ ও চাহিদা নিয়ে আলোচনা করেন।

            সভায় এসির তাপমাত্রা ২৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস বা তার উপর রাখা, শপিংমল ৭টা বা ৮টার মধ্যে বন্ধ, ৭টার মধ্যে বিয়েসহ সকল সামাজিক অনুষ্ঠান সম্পন্ন, অহেতুক আলোকসজ্জা না করা, অফিস সময় হ্রাস, ঘরে বসে অফিস ইত্যাদি বিষয় আলোচনা করা হয়।

            সভায় জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ বিভাগের সিনিয়র সচিব মোঃ মাহবুব হোসেন, বিদ্যুৎ সচিব মোঃ হাবিবুর রহমান, মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের সচিব (সমন্বয় ও সংস্কার) মোঃ সামসুল আরেফিন, অর্থ বিভাগের অতিরিক্ত সচিব (বাজেট) সিরাজুন নূর চৌধুরী, পাওয়ার সেলের মহাপরিচালক মোহাম্মদ হোসাইনসহ বিদ্যুৎ বিভাগ ও জ্বালানি বিভাগের দপ্তর প্রধানগণ উপস্থিত ছিলেন।

 

 

উন্নত দেশগুলোর মতো বাংলাদেশেও বিদ্যুৎ সাশ্রয়ে প্রধানমন্ত্রীর আহ্বান যথার্থ : তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী

 

ঢাকা, ২৩ আষাঢ় (৭ জুলাই):

তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী এবং আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ড. হাছান মাহ্‌মুদ বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী যথার্থই সাশ্রয়ীভাবে বিদ্যুৎ ব্যবহারের অনুরোধ জানিয়েছেন। ফ্রান্সসহ পৃথিবীর উন্নত দেশগুলোতেও এই অনুরোধ জানানো হয়েছে। সমালোচকদেরকে অনুরোধ জানাবো তারাও যাতে এ বিষয়ে জনগণকে উদ্বুদ্ধ করে। 

আজ সচিবালয়ে সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময়কালে সমসাময়িক প্রেক্ষাপটে মন্ত্রী এ কথা বলেন। সমালোচকদের বিশ্ব পরিস্থিতির দিকে তাকানোর আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, করোনা এবং রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধের কারণে সমগ্র পৃথিবীব্যাপী জ্বালানি সংকট শুরু হয়েছে এবং জ্বালানি ও এর পরিবহন মূল্য দুটিই অস্বাভাবিক বেড়ে গেছে। আজকে অস্ট্রেলিয়াতে লাখ লাখ পরিবারকে বলা হয়েছে বিদ্যুৎ সাশ্রয় করার জন্য। সেখানে কোনো অঙ্গরাজ্যে ১০ ঘণ্টা, কোনো অঙ্গরাজ্যে ১৫ থেকে ১৮ ঘণ্টা লোডশেডিং হয়েছে। ইউরোপে, যেখানে কোনো সময় বিদ্যুৎ যায় না সেখানেও লোডশেডিং হচ্ছে। জাতিসংঘের স্থায়ী পরিষদের স্থায়ী সদস্য ফ্রান্সের মতো দেশেও বিদ্যুৎ সাশ্রয় করার জন্য বলা হয়েছে। 

ড. হাছান বলেন, ‘আমাদের দেশে বিদ্যুৎখাত মূলত জ্বালানিনির্ভর। কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎ সব কেন্দ্র পুরোপুরিভাবে উৎপাদনে আসেনি। সে কারণে সরকার গত বছর বিদ্যুৎখাতে ২৮ হাজার কোটি টাকা এবং জ্বালানিখাতে ২৫ হাজার কোটি টাকা ভর্তুকি দিয়েছে। এরপরও উন্নয়নশীল দেশ বাংলাদেশে প্রধানমন্ত্রী ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ পৌঁছে দিয়েছেন, হ্যারিকেন এখন সাজিয়ে রাখার বিষয়, কারণ হ্যারিকেনের ব্যবহার নেই। আমরা সরকার গঠন করার আগে দেশে ৪০ শতাংশের কম মানুষ বিদ্যুৎ সুবিধা পেতো। আজকে শতভাগ মানুষের দোরগোড়ায় বিদ্যুৎ পৌঁছে গেছে। কিন্তু দোরগোড়ায় পৌঁছে গেলেও সেটি সাশ্রয়ীভাবে ব্যবহার করার আহ্বান কোনোভাবেই ভুল নয়। অর্থাৎ আমি যখন রুমে থাকবো না তখন বাতিটা জ্বালিয়ে রাখা বা পাখাটা চালিয়ে রাখা কখনই সমীচীন নয়।’ 

হাছান মাহ্‌মুদ বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রীর এ আহ্বানের পর যারা সমালোচনা করছেন সেই বিএনপিকে অনুরোধ জানাবো পেছনে ফিরে তাকানোর জন্য, আপনারা কি করেছিলেন, মানুষ যখন বিদ্যুতের দাবি দিয়েছিলো, তখন গুলি করে মানুষকে হত্যা করেছেন।’ মন্ত্রী এসময় বিএনপির আমলের কয়েকটি সংবাদপত্রের ছবি দেখিয়ে সংবাদ উদ্ধৃত করে বর্ণনা করেন-বিদ্যুৎ না পেয়ে নরসিংদীতে জনতার ভাংচুর, পুলিশের গুলি। বিক্ষুব্ধ কনসাটে পুলিশের তাণ্ডব, বিদ্যুতের দাবিতে মিছিল করার অপরাধে জনতা নিহত। ভয়াবহ বিদ্যুৎ সংকট ঢাকায়, মোমবাতি জ্বালিয়ে ক্লাস হচ্ছে। চট্টগ্রামে বিদ্যুৎ ভবন ঘেরাও-হ্যারিকেন, কুপি নিয়ে বিক্ষোভ।

আর যারা বুদ্ধিজীবী হিসেবে নিজেদের পরিচয় দিতে গর্ববোধ করেন, কারণে-অকারণে সমালোচনা করেন, পদ্মা সেতুর বিরুদ্ধে আপনাদের এক সময়ের সমালোচনা এখন আপনাদেরই গলার কাঁটা হয়ে দাঁড়িয়েছে, সুতরাং এই ক্ষেত্রেও অহেতুক সমালোচনা করবেন না, সতর্কবার্তা দেন সম্প্রচারমন্ত্রী। 

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের মন্তব্য ‘হাজারটা পদ্মা সেতু বানালেও লাভ নেই, বাকস্বাধীনতা নেই’, এর জবাবে তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘তিনি এবং বিএনপি নেতারা তাহলে সকাল থেকে রাত পর্যন্ত বকবক করেন কিভাবে বাকস্বাধীনতা যদি না থাকে। আর ‘পদ্মা সেতু হাজারটা বানালেও লাভ হবে না’ -এটি কোনো দায়িত্বশীল শীর্ষ রাজনীতিবিদের বক্তব্য হতে পারে না। এটি রাস্তার আইল্যান্ডের ওপর দাঁড়িয়ে কিছু পাগল বক্তব্য দেয়, তাদের বক্তব্য হতে পারে।’ 

 

 

 

বিদ্যুৎ সাশ্রয়ে আলোকসজ্জা না করা সংক্রান্ত নির্দেশনা

 

ঢাকা, ২৩ আষাঢ় (৭ জুলাই):

 

          বিশ্বব্যাপী জ্বালানি তেলের অস্বাভাবিক মূল্যবৃদ্ধির কারণে বিদ্যুৎ সাশ্রয়ের লক্ষ্যে পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত সারা দেশে বিভিন্ন সামাজিক অনুষ্ঠান, কমিউনিটি সেন্টার, শপিংমল, দোকানপাট, অফিস ও বাসাবাড়িতে আলোকসজ্জা না করার জন্য আজ মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে এ সংক্রান্ত নির্দেশনা জারি করা হয়েছে।

 

 

রাজধানীর কোরবানির পশুর হাটে ২২টি ভেটেরিনারি মেডিক্যাল টিম

 

ঢাকা, ২৩ আষাঢ় (৭ জুলাই):

মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনায় রাজধানীর কোরবানির পশুর হাটে ভেটেরিনারি মেডিক্যাল সেবা প্রদানে আজ থেকে নিযুক্ত হয়েছে প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তরের ২২টি ভেটেরিনারি মেডিক্যাল টিম। ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশন ও ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন অনুমোদিত পশুর হাটে এ টিমগুলো কাজ শুরু করেছে। রোগাক্রান্ত ও কোরবানির অনুপযুক্ত গবাদিপশু যাতে হাটে ক্রয়-বিক্রয় না হয় সেজন্য এ মেডিক্যাল টিম কাজ করছে। এছাড়াও সারাদেশের কোরবানির হাটে ১ হাজার ৭৩৯ টি ভেটেরিনারি মেডিক্যাল টিম কাজ করছে। একই সাথে ১টি বিশেষজ্ঞ ভেটেরিনারি মেডিক্যাল টিমও কাজ করছে।

অপরদিকে রাজধানীর কোরবানির পশুর হাটে ভেটেরিনারি মেডিক্যাল টিমের কার্যক্রমসহ অন্যান্য কার্যক্রম তদারকি করবে মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়। এ জন্য মন্ত্রণালয়ের ৯ জন উপসচিব পর্যায়ের কর্মকর্তাকে নির্ধারিত পশুর হাটে দায়িত্ব দিয়েছে মন্ত্রণালয়। মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তাদের পাশাপাশি প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তরের ১২টি মনিটরিং টিমও রাজধানীর কোরবানির পশুর হাট তদারকি করবে।

 

 

কোভিড-১৯ সংক্রান্ত সর্বশেষ প্রতিবেদন

 

ঢাকা, ২৩ আষাঢ় (৭ জুলাই):

স্বাস্থ্য অধিদপ্তর এবং রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা ইনস্টিটিউট (আইইডিসিআর)-এর তথ্যানুযায়ী গতকাল বুধবার সকাল ৮টা থেকে বৃহস্পতিবার সকাল ৮টা পর্যন্ত ২৪ ঘণ্টায় দেশে ১ হাজার ৭৯০ জনের শরীরে করোনা সংক্রমণ পাওয়া গেছে। নমুনা পরীক্ষার বিপরীতে রোগী শনাক্তের হার ১৬ দশমিক ৫৪ শতাংশ। এ সময় ১০ হাজার ৮২২ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে।               

গত ২৪ ঘণ্টায় কোভিড-১৯ এ আক্রান্ত হয়ে ৩ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ পর্যন্ত ২৯ হাজার ১৮৮ জন করোনায় মৃত্যুবরণ করেছেন। করোনাভাইরাস আক্রান্তদের মধ্যে এখন পর্যন্ত সুস্থ হয়েছেন ১৯ লাখ ১০ হাজার ৪৭৭ জন।  

 

ঈদের দিনই কোরবানির পশুর বর্জ্য রাত ১০টার মধ্যে অপসারণ করা হবে : স্থানীয় সরকার মন্ত্রী

 

ঢাকা, ২৩ আষাঢ় (৭ জুলাই):

          পবিত্র ইদুল আজহার দিন রাত ১০টার মধ্যে পশুর বর্জ্য অপসারণ করা হবে বলে জানিয়েছেন স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী মোঃ তাজুল ইসলাম। আজ মন্ত্রণালয়ের অফিস কক্ষে জাইকার কান্ট্রি রিপ্রেজেনটেটিভ ইউহো হায়াকাওয়ার নেতৃত্বে একটি প্রতিনিধি দলের সাথে বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা জানান।

মন্ত্রী বলেন, ঈদের দিন সকালে পশু কোরবানির পর থেকেই পশুর বর্জ্য অপসারণ কাজ শুরু হবে। সন্ধ্যা ৭টা থেকে ১০টার মধ্যে সব জায়গা থেকেই বর্জ্য অপসারণ করার নির্দেশ দেয়া হয়েছে। বিভাগীয় কমিশনার, জেলা প্রশাসক, জনপ্রতিনিধিসহ সংশ্লিষ্ট সকলকে নির্দেশনা প্রদান করা হয়েছে। রাত ১০টার পর কোথাও বর্জ্য থাকবে না বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন। তিনি বলেন, কোরবানির পশুর হাটের সুষ্ঠু ব্যবস্থাপনাসহ দেশবাসীকে শান্তিপূর্ণভাবে ঈদ উদযাপনের জন্য সার্বিক প্রস্তুতির বিষয়ে ইতোমধ্যে আন্তঃমন্ত্রণালয় সভা করা হয়েছে।

করোনা সংক্রমনের হার বৃদ্ধি পাচ্ছে উল্লেখ করে মন্ত্রী সকল মানুষকে যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি মেনে পশুর হাট এবং ঈদ উদযাপনের আহ্বান জানান। স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের গাইডলাইন অনুযায়ী স্বাস্থ্যবিধি মেনে পশুর হাট বসবে। হাটে ক্রয় বিক্রয়ের জন্য যারা আসবে তাদের স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হবে। রাস্তার পাশে কোথাও হাট বসবে না বলেও জানান মন্ত্রী। তিনি আরো বলেন, প্রতিটি ওয়ার্ড কাউন্সিলরের নেতৃত্বে দশ জনের সমন্বয়ে কমিটি করার একটা নির্দেশনা আগে থেকেই ছিলো। এই কমিটি করোনাসহ যেকোনো দুর্যোগে কাজ করবে। সিটি কর্পোরেশনগুলো সে অনুযায়ী ব্যবস্থা নিয়েছে।

মন্ত্রী জানান, বাংলাদেশ ব্যাংক ও সিটি কর্পোরেশন ঈদ উপলক্ষ্যে যৌথভাবে একটা প্রোগ্রাম চালু করেছে, তা হলো ক্যাশ টাকা ছাড়াই পশু ক্রয়-বিক্রয়। হাটে কেউ ক্যাশ টাকা না নিলেও হবে যদি তার কাছে ক্রেডিট কার্ড থাকে। অ্যাকাউন্টে টাকা থাকলে সেই টাকা বিক্রেতার অ্যাকাউন্টে ট্রান্সফার করে দেওয়া হবে।

জাইকার প্রতিনিধিদের সাথে বৈঠক প্রসঙ্গে মোঃ তাজুল ইসলাম জানান, চট্টগ্রাম ওয়াসার সুয়ারেজ ট্রিটমেন্ট প্ল্যান্ট এবং মাতারবাড়ি কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎকেন্দ্রের সাথে মহেশখালীসহ অন্যান্য অঞ্চলের সাথে যোগাযোগ তৈরিতে অর্থায়নের আগ্রহ প্রকাশ করেছে জাইকা। মাতারবাড়িতে দুইটি প্রকল্পে প্রায় ৬ হাজার কোটি টাকার বেশি ব্যয়ে ২০২৫ সালের মধ্যে শেষ করার প্রস্তাবনা দিয়েছে তারা।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ সরকারের উন্নয়ন কর্মকাণ্ডের প্রশংসা করে জাইকার প্রতিনিধি ইউহো হায়াকাওয়া প্রস্তাবিত বিভিন্ন প্রকল্পে বিনিয়োগের আগ্রহ ব্যক্ত করেন। তিনি জানান, জাইকা বাংলাদেশের পাশে আছে এবং ভবিষ্যতেও থাকবে।

 

 

ঈদের জামায়াতের জন্য স্বাস্থ্যবিধির ৮ দফা নির্দেশনা

 

ঢাকা, ২৩ আষাঢ় (৭ জুলাই) :  

          বর্তমানে দেশের সার্বিক পরিস্থিতি বিবেচনায় আসন্ন পবিত্র ইদুল-আজহা উদযাপনে নিম্নবর্ণিত নির্দেশনাসমূহ অনুসরণ করার জন্য সকলকে অনুরোধ করা হলো :

 

  1. আসন্ন পবিত্র ইদুল-আজহা ২০২২ উদ্‌যাপন উপলক্ষ্যে কোনো ধরনের আলোকসজ্জা করা যাবে না;
  2. প্রত্যেককে নিজ নিজ বাসা থেকে অজু করে ঈদগাহে/মসজিদে আসতে হবে ;
  3. করোনাভাইরাস সংক্রমণরোধ নিশ্চিতকল্পে মসজিদ/ঈদগাহের অজুখানায় সাবান/হ্যান্ড স্যানিটাইজার রাখতে হবে;
  4. ঈদের নামাজের জামায়াতে আগত মুসল্লিকে অবশ্যই মাস্ক পরে মসজিদে ঈদগাহে আসতে হবে। মসজিদ/ঈদগাহে সংরক্ষিত জায়নামাজ ও টুপি ব্যবহার করা যাবে না;
  5. ঈদের নামাজ আদায়ের সময় কাতারে নামাজে দাড়ানোর ক্ষেত্রে সামাজিক দূরত্ব ও স্বাস্হ্যবিধি অনুসরণ করে দাঁড়াতে হবে এবং এক কাতার অন্তর অন্তর কাতার করতে হবে;
  6. করোনাভাইরাস মহামারি থেকে রক্ষা পাওয়ার জন্য পবিত্র ইদুল-আজহার নামাজ শেষে মহান রাব্বুল আলামিনের দরবারে খতিব ও ইমামগণকে দোয়া করার জন্য অনুরোধ করা হলো;
  7. সম্মানিত খতিব, ইমাম এবং মসজিদ পরিচালনা কমিটি ও স্থানীয় প্রশাসনকে বিষয়গুলো বাস্তবায়ন নিশ্চিত করার জন্য অনুরোধ করা হলো;
  8. পশু কোরবানির ক্ষেত্রে মৎস্য ও প্রাণী সম্পদ মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনা যথাযথভাবে পালন করতে হবে।

 

প্রাণঘাতি করোনাভাইরাস সংক্রমনরোধে স্থানীয় প্রশাসন, আইনশৃঙ্খলা নিয়ন্ত্রণকারীবাহিনী, জনপ্রতিনিধিবৃন্দ, ইসলামিক ফাউন্ডেশনের কর্মকর্তা-কর্মচারী এবং সংশ্লিষ্ট মসজিদের পরিচালনা কমিটিকে উল্লিখিত নির্দেশনা বাস্তবায়ন করার জন্য আজ ধর্ম মন্ত্রণালয়ের এক বিজ্ঞপ্তিতে এসকল অনুরোধ জানানো হয়েছে।  

 

আত্মনির্ভরশীল বাংলাদেশ গঠনে চার প্রযুক্তির ওপর নজর দিতে হবে : সজীব ওয়াজেদ জয়

ঢাকা, ২৩ আষাঢ় (৭ জুলাই):

প্রধানমন্ত্রীর তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয় বলেছেন, উন্নত, সমৃদ্ধ ও আত্মনির্ভরশীল বাংলাদেশের ভবিষ্যতের জন্য আমরা চারটি প্রযুক্তির ওপর নজর দিতে চাই। মাইক্রো প্রসেসর ডিজাইন, আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স, রোবটিক্স এবং সাইবার সিকিউরিটি; এই চারটি প্রযুক্তির বিকাশ ও সক্ষমতা বৃদ্ধির জন্য আমাদের এখনই কাজ শুরু করতে হবে ।

আইসিটি উপদেষ্টা গতকাল বাংলাদেশ হাইটেক পার্ক কর্তৃপক্ষের বোর্ড অব গভর্নরস -এর ২য় সভায় গণভবন থেকে ভার্চুয়ালি যুক্ত হয়ে এসব কথা বলেন।

বাংলাদেশ হাইটেক পার্ক কর্তৃপক্ষের বোর্ড অব গভর্নেন্সের এর সভাপতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা উক্ত গণভবন থেকে ভার্চুয়ালি যুক্ত হয়ে এতে সভাপতিত্ব করেন।

আইসিটি উপদেষ্টা বলেন, ইন্ডাস্ট্রি, ডিফেন্স টেকনোলজি, এগ্রিকালচারসহ ভবিষ্যৎ পৃথিবীর প্রত্যেকটা সেক্টর আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স ও রোবটিক্স নির্ভর হবে। তাই নিজেদের সক্ষমতা বৃদ্ধির পাশাপাশি বিশ্ববাজারে রপ্তানি ও আত্মনির্ভরশীল হওয়ার জন্য এখন থেকেই আমাদের পরিকল্পনা ও কাজ করতে হবে।

দেশ এবং বিশ্বের প্রয়োজন মেটাতে মাইক্রোপ্রসেসিং, আর্টিফিশিয়্যাল ইন্টিলিজেন্স, রোবটিকস এবং সাইবার সিকিউরিটিতে বাংলাদেশ আত্মনির্ভরশীল হতে কাজ শুরু করেছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, এক্ষেত্রে শুধুমাত্র মাইক্রোপ্রসেসর ডিজাইনে অন্যান্য দেশকে ধরতে বাংলাদেশের একটু সময় লাগলেও বাকি তিনটিতে বাংলাদেশ বিশ্বের সঙ্গে প্রতিযোগিতা করতে সক্ষম।

তিনি আরো বলেন, মাইক্রোপ্রসেসিং ডিজাইন ও ম্যানুফ্যকচারিংয়ে বর্তমানে পুরো বিশ্ব ২-৩ টি দেশের ওপর নির্ভরশীল। ভবিষ্যত ডিজিটাল দুনিয়ার জন্য সব কিছুতেই আর্টিফিশিয়াল ইন্টিলিজেন্স কিছু না কিছু চলে আসছে। বর্তমানে আমাদের অন্য দেশ থেকেই এই টেকনলোজি আনতে হচ্ছে। আমার ধারণা, ভবিষ্যতে সবক্ষেত্রেই রোবটিকস এর ব্যবহার হবে। ইন্ডাস্ট্রির পাশাপাশি, প্রতিরক্ষা, কৃষি সব ক্ষেত্রেই রোবট শ্রমবাজার
টেকওভার করবে। তাই আমরা যদি নিজেদের রোবটিক টেকনলোজি ডেভেলপ করতে পারি তখন আমাদের অন্যদের ওপর নির্ভরশীল হতে হবে না।

সজীব ওয়াজেদ বলেন, অর্থনীতি যেহেতু ডিজিটাল হয়ে যাচ্ছে সেক্ষেত্রে সাইবার সুরক্ষায় সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিতে হবে। যদিও আমাদের দেশে এই চারটি ক্ষেত্রে কিছু কিছু টেকনলোজি আবিস্কার হচ্ছে, কিন্তু বেশির ভাগ ক্ষেত্রে অন্যদের ওপর নির্ভরশীল। এই নির্ভরশীলতা কাটাতে প্রয়োজনীয় এসব প্রযুক্তিতে তরুণদের এগিয়ে আসার আহ্বান জানিয়ে  আইসিটি উপদেষ্টা বলেন, আইওটি ও রোবটিকস এ অন্যান্য দেশ খুব একটা এগিয়ে যেতে পারেনি। এটা নতুন প্রযুক্তি। তাই এটা আমরা সহজেই ধরে ফেলতে পারবো। মাইক্রোপ্রসেসরে যেসব দেশ এগিয়ে গেছে তাদের ধরতে আরো ২০ বছর সময় লাগলেও আমাদের আজ থেকেই কাজ শুরু করতে হবে। ভবিষ্যতের মাইক্রোপ্রসেসর টেকনোলজিতেও আশা করি আমরা এগিয়ে যেতে পারবো।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে বৈঠকে গণভবন থেকে ভার্চুয়ালি যুক্ত হয়ে বক্তব্য রাখেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক, সভা পরিচালনা করেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের সিনিয়র সচিব এনএম জিয়াউল আলম।

            তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের সভাকক্ষে অনুষ্ঠিত এ সভায় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন আইনমন্ত্রী আনিসুল হক, শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি, ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার, পরিবেশ, শিল্পমন্ত্রী নুরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ুন, বন ও জলবায়ু মন্ত্রী শাহাব উদ্দিন ও ভূমিমন্ত্রী সাঈফুজ্জামান চৌধুরী, বোর্ড অব গভর্নেন্স এর সদস্যবৃন্দ, বিসিএস, বেসিস ও বাক্কো সভাপতি, আইসিটি বিভাগ, বাংলাদেশ হাইটেক পার্ক কর্তৃপক্ষের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাবৃন্দ।

 

 

 

এশীয়-প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলের ইন্টার-গভর্নমেন্টাল কমিটিতে বাংলাদেশ নির্বাচিত

 

ঢাকা, ২৩ আষাঢ় (৭ জুলাই) :       

 

সরকারি-বেসরকারি টিভি চ্যানেলসহ সকল ইলেকট্রনিক মিডিয়ায় নিম্নোক্ত বার্তাটি স্ক্রল আকারে প্রচারের জন্য অনুরোধ করা হলো :   

 

মূলবার্তা :

 

‘ইউনেস্কোর অপরিমেয় সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য বিষয়ক এশীয়-প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলের ইন্টার-গভর্নমেন্টাল কমিটিতে ২০২২-২০২৬ মেয়াদে বাংলাদেশ নির্বাচিত হয়েছে।’

 

 

ক্যাটল স্পেশাল ট্রেনে প্রায় এক হাজার গোরু, ছাগল আসলো ঢাকায়

ঢাকা, ২৩ আষাঢ় (৭ জুলাই) :    

 

          পবিত্র ইদুল আজহা উপলক্ষ্যে বাংলাদেশ রেলওয়ে পরিচালিত ক্যাটল স্পেশাল ট্রেনে জামালপুরের দেওয়ানগঞ্জ বাজার হতে দুটি ট্রেন এবং চাঁপাইনবাবগঞ্জ হতে একটি ট্রেন ঢাকায় এসেছে।

ক্যাটল স্পেশাল প্রথম ট্রেনে প্রতি ওয়াগনে ১৬টি হারে মোট ২৫টি ওয়াগনে ৪০০টি গোরু নিয়ে গতকাল জামালপুরের দেওয়ানগঞ্জ বাজার হতে দুপুর ২ টায় ছেড়ে ইসলামপুর বাজার হয়ে ঢাকা পৌঁছে আজ ভোর ৪:৪০ টায়।

ক্যাটল স্পেশাল দ্বিতীয় ট্রেন দেওয়ানগঞ্জ বাজার থেকে ১৮টি ওয়াগনে ১৬টি হারে ২৮৮টি গোরু, ইসলামপুর বাজার থেকে সাতটি ওয়াগনে ১১২টি গোরুসহ মোট ২৫টি ওয়াগনে ৪০০টি গোরু নিয়ে ঢাকায় পৌঁছে আজ সকাল ৯.৪৫ টায়।

এ দুটি ট্রেনে মোট গোরু আসে ৮০০টি এবং ভাড়া আদায় হয় মোট ৩ লাখ ৯৮ হাজার ১১০ টাকা।

          এছাড়া চাঁপাইনবাবগঞ্জ, রাজশাহী ও বড়াল ব্রিজ হতে মোট ৩৬টি গরু ও ১৬০টি খাসি নিয়ে গতকাল বিকেল ৪ টায় চাঁপাইনবাবগঞ্জ হতে রওনা হয়ে ঢাকা স্টেশনে পৌঁছে আজ সকাল ৭ টায়। এ ট্রেন হতে মোট ভাড়া আদায় হয় ৪২ হাজার ১২০ টাকা।  

 

 

ইউনেস্কোর আইসিএইচ বিষয়ক এশীয়-প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলের ইন্টারগভার্নমেন্টাল কমিটিতে বাংলাদেশ নির্বাচিত

 

ঢাকা, ২৩ আষাঢ় (৭ জুলাই):

 

ইউনেস্কোর অপরিমেয় সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য (আইসিএইচ) বিষয়ক এশীয়-প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলের ইন্টারগভার্নমেন্টাল কমিটিতে বাংলাদেশ আগামী ২০২২-২০২৬ মেয়াদে নির্বাচিত হয়েছে।

ইউনেস্কোর আইসিএইচ বিষয়ক ২০০৩ কনভেনশন এর সদস্য দেশসমূহের অংশগ্রহণে ফ্রান্সের প্যারিসস্থ ইউনেস্কো সদর দপ্তরে নবম সাধারণ সভা চলাকালীন ৬ জুলাই অনুষ্ঠিত ইন্টারগভার্নমেন্টাল কমিটির নির্বাচনে বাংলাদেশ চার বছরের জন্য নির্বাচিত হয়েছে। বাংলাদেশ ছাড়াও এশীয়-প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চল থেকে নির্বাচিত অন্য দেশসমূহ হলো ভারত, ভিয়েতনাম ও মালয়েশিয়া।

৫-৭ জুলাই ২০২২ মেয়াদে ইউনেস্কোর আইসিএইচ বিষয়ক সাধারণ সভায় ফ্রান্সে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত এবং ইউনেস্কোতে বাংলাদেশের স্থায়ী প্রতিনিধি খন্দকার এম তালহা ছাড়াও সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব মোঃ আবুল মনসুর এবং যুগ্ম সচিব মোঃ ফাহিমুল ইসলাম অংশগ্রহণ করেন৷

আইসিএইচ এর ৬ টি ইলেক্টোরাল গ্রুপে সদস্যভুক্ত মোট ১৮০ টি দেশের মধ্যে ১২ টি সদস্যপদের শূন্যপদে বিভিন্ন দেশ প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে। এশীয়-প্রশান্ত মহাসাগরীয় অঞ্চলের ইলেক্টোরাল গ্রুপ ৪ এর ৪ টি শূন্যপদে বাংলাদেশ ছাড়াও কম্বোডিয়া, ভিয়েতনাম, ভারত, মালয়েশিয়া ও থাইল্যান্ড প্রতিদ্বন্দ্বিতা করে। ইতোপূর্বে
এই ৬টি দেশ ছাড়াও ইরান ও পাকিস্তানের প্রতিদ্বন্দ্বিতা করার কথা থাকলেও তারা শেষ মুহূর্তে নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ায়৷

আন্তর্জাতিক এই সংস্থার “Safeguarding of Intangible Cultural Heritage” শীর্ষক ইন্টারগভার্নমেন্টাল কমিটিতে বাংলাদেশ নির্বাচিত হওয়ার ফলে বিশ্ব পরিমণ্ডলে বাংলাদেশের সাফল্যের মুকুটে আরো একটি পালক যুক্ত হলো৷ এর ফলে বাংলাদেশ ইউনেস্কো’র ২০০৩ কনভেনশনের সদস্যদেশগুলোর অপরিমেয় সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য সংরক্ষণে বিশেষ ভূমিকা রাখতে সক্ষম হবে।

 

বিআরটিসি বাসের ঈদ স্পেশাল সার্ভিস

 

ঢাকা, ২৩ আষাঢ় (৭ জুলাই) :  

 

আসন্ন পবিত্র ইদুল-আজহা ২০২২ উপলক্ষ্যে ঘরমুখো মানুষের সহজ ও আরামদায়ক যাত্রা নিশ্চিত করতে গত ১ জুলাই হতে ১২ জুলাই পর্যন্ত ‘ঈদ স্পেশাল সার্ভিস’ আয়োজন করেছে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহণ কর্পোরেশন (বিআরটিসি)।   

গত ১ জুলাই হতে বিআরটিসি’র সংশ্লিষ্ট ডিপো হতে অগ্রিম টিকিট বিক্রয় শুরু হয়েছে এবং আগামী
১২ জুলাই পর্যন্ত ঈদ সার্ভিসের বাস চলাচল করবে। ঢাকায় মতিঝিল, জোয়ারসাহারা, কল্যাণপুর, গাবতলী, মোহাম্মদপুর, মিরপুর, যাত্রাবাড়ি, গাজীপুর ও নারায়ণগঞ্জ বাস ডিপো (চাষাড়া) হতে বিভিন্ন রুটে (ঢাকা হতে) অগ্রিম টিকেট বিক্রি ইতোমধ্যে শুরু হয়েছে।  

রুটসমূহ হলো- মতিঝিল বাস ডিপোর নিয়ন্ত্রণেঢাকা-খুলনা, দাউদকান্দি, দিনাজপুর, রংপুর ও নেত্রকোনা রুটে; কল্যাণপুর বাস ডিপোর নিয়ন্ত্রণেরংপুর, পঞ্চগড়, কুড়িগ্রাম, লালমনিরহাট, গাইবান্ধা, কুষ্টিয়া, রাজশাহী, নওগাঁ, নেত্রকোনা, রানিশংকৈল, ঠাকুরগাঁও, দিনাজপুর রুটে; গাবতলী ডিপোর নিয়ন্ত্রণেঢাকা-আরিচা, রংপুর, দিনাজপুর, আরিচা ও পাটুরিয়া, যশোর রুটে; জোয়ারসাহারা বাস ডিপোর নিয়ন্ত্রণেঢাকা-পয়সারহাট, বিশ্বরোড-পাঁচদোনা, রংপুর, নওগাঁ, জয়পুরহাট, টাঙ্গাইল, ময়মনসিংহ ও বগুড়া রুটে; মিরপুর বাস ডিপোর নিয়ন্ত্রণেঢাকা-বরিশাল, রংপুর, কুষ্টিয়া, বগুড়া, কুড়িগ্রাম, দিনাজপুর, ময়মনসিংহ ও নওগাঁ রুটে এবং মোহাম্মদপুর বাস ডিপোর নিয়ন্ত্রণেঢাকা-শরিয়তপুর, ফরিদপুর, রংপুর, দিনাজপুর, বগুড়া ও নওগাঁ রুটে। এছাড়া গাজীপুর বাস ডিপোর নিয়ন্ত্রণেবিশ্বরোড-পাঁচদোনা, টাঙ্গাইল, নেত্রকোনা, ময়মনসিংহ, রংপুর, দিনাজপুর, ঠাকুরগাঁও ও কুড়িগ্রাম রুটে; যাত্রাবাড়ি বাস ডিপোর নিয়ন্ত্রণেঢাকা-রংপুর, শরিয়তপুর রুটে, নারায়ণগঞ্জ বাস ডিপোর নিয়ন্ত্রণেঢাকা-গোসাইরহাট, রংপুর, দিনাজপুর, ঠাকুরগাঁও, পঞ্চগড়, নীলফামারী, নওগাঁ, বগুড়া, গাইবান্ধা ও পাবনা রুটে; কুমিল্লা বাস ডিপোর নিয়ন্ত্রণেঢাকা-রংপুর রুটে এবং নরসিংদী বাস ডিপোর নিয়ন্ত্রণেনরসিংদী-মাদারীপুর, চরমুগুরিয়া, রংপুর রুটে। যাত্রীসাধারণকে বিআরটিসি’র ‘ঈদ স্পেশাল সার্ভিস’ এর সেবা গ্রহণ করার জন্য বিআরটিসি এর পক্ষ থেকে বলা হয়েছে।

যাত্রীসাধারণের চলাচলের সুবিধার্থে থেকে ঢাকার বিভিন্ন ডিপো/টার্মিনাল জরুরি সার্ভিস প্রদানের লক্ষ্যে ৬০টি বাস ডিপোতে/স্থানে স্ট্যান্ডবাই থাকছে। ডিপোগুলো হলো-সায়েদাবাদ বাস টার্মিনাল, মিরপুর ১২ নম্বরস্হ মিরপুর বাস ডিপো, কল্যাণপুর বাস ডিপোর সামনে, নবীনগর, মতিঝিল বাস ডিপোর সামনে, মহাখালী বাস টার্মিনাল, জোয়ারসাহারা বাস ডিপো, মোহাম্মদপুর বাস ডিপো, গাজীপুর চৌরাস্তা, হেমায়েতপুর বাস স্ট্যান্ড এবং চন্দ্রা বাসস্ট্যান্ড। এ লক্ষ্যে মতিঝিল বাস ডিপো-মোবাইলঃ ০১৭১১-৩৯১৫১৪, কল্যাণপুর বাস ডিপো-মোবাঃ ০১৭১১-৪৩৫২১৩, গাবতলী বাস ডিপো-মোবাঃ ০১৭৮৪-৫২০৯০০, জোয়ারসাহারা বাস ডিপো-মোবাঃ ০১৭১১-৭০৮০৮৯, মিরপুর বাস ডিপো-মোবাঃ ০১৭১৭-৭৬৩৮২০, মোহাম্মদপুর বাস ডিপো-মোবাঃ ০১৭১২-৩৮২১৪৪, গাজীপুর বাস ডিপো-মোবাঃ ০১৭৫৮-৮৮০০১১, যাত্রাবাড়ি বাস ডিপো-মোবাঃ ০১৯১৩-৭৪১২৩৪, নারায়ণগঞ্জ বাস ডিপো-মোবাঃ ০১৭১৫-৬৫২৬৮৩, কুমিল্লা বাস ডিপো-মোবাঃ ০১৭১৬-৬৮৪১৪৪, নরসিংদী বাস ডিপো-মোবাঃ ০১৫৫৩-৩৪৯৫৬৭ নম্বরে যোগাযোগ করতে বলা হয়েছে।

 

Read us@googlenews

Social

More News
© Copyright: 2020-2022

Bangladesh Beyond is an online version of Fortnightly Apon Bichitra 

(Reg no: DA 1825)

Developed By Bangladesh Beyond