[Valid RSS]
August 9, 2022, 1:21 am
Headlines
৮ আগস্ট কোভিড-১৯ সংক্রান্ত সর্বশেষ প্রতিবেদন পবিত্র আশুরা উপলক্ষ্যে প্রধানমন্ত্রী ও রাষ্ট্রপতির বাণী ৮ আগস্ট এক নজরে বাংলাদেশ জাতীয় জ্বালানি নিরাপত্তা দিবসে প্রধানমন্ত্রী ও রাষ্ট্রপতির বাণী PM sketches Bangmata’s key-shadow role in independence struggle President asks NHRC to play strong role in protecting human rights  realme Fan Festival is Coming with the Theme “Keep It Real” ShareTrip Recognizes Industry Partners & Declares Investment Microsoft launched Startups Founders Hub in Bangladesh PM accords Bangamata Padak to 5 women Western sanctions are good for Moscow : economist Vladimir Putin congratulated railway workers and veterans on their professional holiday China to make east Taiwan Strait drills ‘regular’ : media Any attack on a nuclear plant ‘suicidal’: UN chief Guterres Israel confirms Gaza ceasefire Russia takes out 45,000 tons of NATO ammo : Russian MoD UNDP, Grameenphone and BIDA to create economic opportunities for all Borrowing costs would rise if GDP growth is less than interest rate : Professor Iyanatul Islam ৭ আগস্ট এক নজরে বাংলাদেশ ৭ আগস্ট কোভিড-১৯ সংক্রান্ত সর্বশেষ প্রতিবেদন

৩১ জুলাই এক নজরে বাংলাদেশ

Bangladesh Beyond
  • Updated on Sunday, July 31, 2022
  • 68 Impressed

৩১ জুলাই এক নজরে বাংলাদেশ

 

বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল হাকিম কমান্ডার আজীবন মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বাস্তবায়নে তৎপর ছিলেন : গণপূর্ত প্রতিমন্ত্রী

ফুলপুর, (ময়মনসিংহ), ১৬ শ্রাবণ (৩১ জুলাই) :

গৃহায়ন ও গণপূর্ত প্রতিমন্ত্রী শরীফ আহমেদ বলেছেন, বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল হাকিম কমান্ডার মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বাস্তবায়নে আজীবন তৎপর ছিলেন।

আজ ফুলপুর উপজেলা পরিষদ চত্বরে বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল হাকিম কমান্ডারের প্রথম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষ্যে ফুলপুর উপজেলা আওয়ামী লীগ আয়োজিত আলোচনা সভা ও দোয়া মাহফিলে প্রধান অতিথির বক্তব্যে প্রতিমন্ত্রী এ কথা বলেন।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশের মহান মুক্তিযুদ্ধে আব্দুল হাকিম কমান্ডারের নিঃস্বার্থ ভূমিকা জাতি আজীবন কৃতজ্ঞচিত্তে স্মরণ করবে। মুক্তিযুদ্ধ পরবর্তী স্বাধীন বাংলাদেশে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা বাস্তবায়ন এবং বঙ্গবন্ধুর আদর্শ প্রতিষ্ঠিত করতে তিনি আজীবন সংগ্রাম করেছেন। তার এই সংগ্রাম ও আত্মত্যাগ আগামী প্রজন্মের জন্য অনুকরণীয় দৃষ্টান্ত হয়ে থাকবে।

অনুষ্ঠানে ফুলপুর উপজেলা আওয়ামী লীগ এবং এর বিভিন্ন অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দসহ উপজেলার বিভিন্ন শ্রেণি পেশার বিপুল সংখ্যক লোকসমাগম ঘটে।

 

বিদ্যুৎ বিভাগ ও ইউএসএআইডি-এর  মধ্যে BADGE প্রকল্প বাস্তবায়নে সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষর

ঢাকা, ১৬ শ্রাবণ (৩১ জুলাই) :

আজ ঢাকায় প্যান প্যাসিফিক সোনারগাঁও হোটেলে বিদ্যুৎ বিভাগ ও ইউএসএআইডি (USAID)-এর মধ্যে ÔBangladesh Advancing Development and Growth Through Energy (BADGE)Õ শীর্ষক প্রকল্প বাস্তবায়নে সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত হয়। সমঝোতা স্মারক  চুক্তিতে স্বাক্ষর করেন বিদ্যুৎ বিভাগের যুগ্মসচিব নিরোধ চন্দ্র মন্ডল ও ইউএসএআইডি এর ভারপ্রাপ্ত ইকোনমিক গ্রোথ অফিস  পরিচালক রেবেকা রবিনসন।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে বিদ্যুৎ সচিব মোঃ হাবিবুর রহমান বলেন, বাংলাদেশের বিদ্যুৎ খাত পরিবেশবান্ধব। কার্বন নিঃসরণ আরো কমানোর জন্য সরকার আন্তরিকভাবে কাজ করছে। এই প্রকল্পের আওতায় আগামী পাঁচ বছরে ১৭ দশমিক ২ মিলিয়ন মার্কিন ডলার রয়েছে, যা বাংলাদেশের জ্বালানি নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে সহযোগিতা করবে। বাংলাদেশ সরকারের সাথে শিক্ষাবিদ ও বেসরকারি খাতের সহযোগিতার বৃদ্ধিতেও এই প্রকল্প কাজ করবে। তিনি আরো বলেন, প্রযুক্তিগত সহায়তা ও সক্ষমতা বৃদ্ধি এই প্রকল্পের অন্যতম প্রধান লক্ষ্য।

BADGE প্রকল্পটি স্বচ্ছ ও দক্ষ জ্বালানি বাজার সৃজনের মাধ্যমে সাশ্রয়ী মূল্যের, নির্ভরযোগ্য ও টেকসই জ্বালানি ব্যবস্থায় সকলের অংশগ্রহণ নিশ্চিত করে বাংলাদেশের জ্বালানি নিরাপত্তা উন্নতি ও সহনশীল করতে কাজ করবে। বিদ্যুৎ খাতের উন্নয়ন, ডি-কার্বনাইজড এবং অন্তর্ভুক্তিমূলক রূপান্তরকে সহযোগিতা ও  ত্বরান্বিত করবে।

পরিষ্কার জ্বালানির জন্য উন্নত পরিবেশ, উচ্চমানের নির্ভরযোগ্য বিদ্যুৎ ও আধুনিক জ্বালানি পরিসেবার প্রবেশাধিকার বৃদ্ধি, আধুনিক জ্বালানি প্রযুক্তির জন্য অর্থায়ন বৃদ্ধি, বিদ্যুৎ খাতের মানব সম্পদ ও প্রতিষ্ঠানের উন্নয়ন, কার্যকর ও বাজারচালিত ক্রয় ব্যবস্থার বাস্তবায়ন, বর্ধিত ক্রস বর্ডার এনার্জি ট্রেডের জন্য নীতি কাঠামোর উন্নতি, অভ্যন্তরীণ মডেলিং ক্ষমতা শক্তিশালীকরণ, বাংলাদেশি জ্বালানি পেশাদারীদের জন্য যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক প্রশিক্ষণ ব্যবস্থা প্রতিষ্ঠা, উদ্ভাবন ও সিস্টেমবান্ধব নিলাম নক্সা উন্নয়ন, বৈদ্যুতিক যানবাহন ব্যবস্থা স্থাপনকে ত্বরান্বিত করা, চলমান নিলাম সিমুলেশন, ক্রস বর্ডার এনার্জি ট্রেডের প্রতিবন্ধকতা চিহ্নিত করে আঞ্চলিক সংযোগ বাড়াতে এই সমঝোতা চুক্তি সহযোগিতা করবে।

অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মাঝে অতিরিক্ত সচিব মুঃ মোহসিন চৌধুরী, পিডিবি’র চেয়ারম্যান মোঃ মাহবুবুর রহমান, পাওয়ার সেলের ডিজি মোহাম্মদ হোসাইন ও USAID- BADGE প্রকল্প প্রধান রাফায়েল যাব্বা উপস্থিত ছিলেন।

 

শ্রমিক কল্যাণ ফাউন্ডেশন বোর্ড সভায় ৪ কোটি ৬৪ লাখ টাকা সহায়তার অনুমোদন

ঢাকা, ১৬ শ্রাবণ (৩১ জুলাই) :

শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের অধীন বাংলাদেশ শ্রমিক কল্যাণ ফাউন্ডেশন তহবিল থেকে প্রাতিষ্ঠানিক-অপ্রাতিষ্ঠানিক খাতের ৮৮৩ জন শ্রমিক এবং শ্রমিক পরিবারের সদস্যদের ৪ কোটি ৬৪ লাখ ১৫ হাজার টাকা সহায়তা দেয়া হবে।

আজ সচিবালয়ে শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের সম্মেলনকক্ষে প্রতিমন্ত্রী বেগম মন্নুজান সুফিয়ানের সভাপতিত্বে শ্রমিক কল্যাণ ফাউন্ডেশনের ২৫তম বোর্ড সভায় এ সহায়তার অনুমোদন দেয়া হয়।

সভায় দুরারোগ্য ব্যাধিতে মৃত এবং বিভিন্ন দুর্ঘটনায় নিহত ৪৭ জন শ্রমিকের পরিবারকে ৭৩ লাখ টাকা। দুরারোগ্য ব্যাধিতে আক্রান্ত এবং বিভিন্ন দুর্ঘটনায় আহত ৮১২ জন শ্রমিকদের চিকিৎসার জন্য ৩ কোটি ৮৪ লাখ ১০ হাজার টাকা, শ্রমিকের মেধাবী সন্তানদের উচ্চ শিক্ষায় ২৪ জনকে শিক্ষা সহায়তা হিসেবে ৭ লাখ ০৫ হাজার টাকা সহায়তা দেয়া হবে।

সভায় জানানো হয়েছে, চট্রগ্রামের সিতাকুন্ডে বিএম কন্টেইনার ডিপোর অগ্নিদুর্ঘটনায় নিহত-আহত এবং নারায়ণগঞ্জে হাসেম ফুড লিঃ এর অগ্নিদুর্ঘটনায় নিহত-আহতসহ বিভিন্ন দুর্ঘটনায় আহত এবং দূরারোগ্য ব্যাধিতে আক্রান্তদের চিকিৎসায় ২৪৭ জন শ্রমিক ও তাদের পরিবারকে জরুরি ভিত্তিতে প্রদানকৃত ১ কোটি ৭৪ লাখ ৫০ হাজার টাকা সহয়তার ভূতাপেক্ষ অনুমোদন দেয়া হয়। জরুরি ভিত্তিতে প্রদানকৃত ২৪৭ জন শ্রমিকের মধ্যে সিতাকুন্ডের বিএম কন্টেইনার ডিপোর নিহত ২৮ জনসহ ২১৮ জন এবং নারায়ণগঞ্জের হাসেম ফুড কারখানার নিহত ৬ জন শ্রমিক রয়েছেন।

সভাপতির বক্তৃতায় প্রতিমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশ শ্রম আইন অনুযায়ী অসহায় শ্রমিকদের কল্যাণে বছরান্তে লভ্যাংশের নির্দিষ্ট অংশ দশমিক ৫ শতাংশ শ্রমিক কল্যাণ ফাউন্ডেশন তহবিলে প্রদানের জন্য কোম্পানি মালিকদের উদ্বুদ্ধ করতে হবে। এজন্য মালিকদের সাথে যোগাযোগ বাড়াতে হবে। বিভিন্ন কোম্পানির মালিকগণ যাতে এ তহবিলে লভ্যাংশ প্রদান করেন তার জন্য শ্রমিক কল্যাণ ফাউন্ডেশনকে কার্যকরী ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে। এ পর্যন্ত এ তহবিলে ২৬৫টি কোম্পানি তাদের লভ্যাংশের নির্দিষ্ট অংশ নিয়মিত জমা দিচ্ছে। বর্তমানে এ তহবিলে স্থিতির পরিমাণ প্রায় ৭১০ কোটি টাকা।

মন্ত্রণালয়ের সচিব মোঃ এহছানে এলাহী, কলকারখানা ও প্রতিষ্ঠান পরিদর্শন অধিদফতরের মহাপরিদর্শক মোঃ নাসির উদ্দিন আহমেদ, শ্রম অধিদফতরের মহাপরিচালক খালেদ মামুন চৌধুরী, বাংলাদেশ শ্রমিক কল্যাণ ফাউন্ডেশনের মহাপরিচালক গোকুল কৃষ্ণ ঘোষ, অর্থ বিভাগের  অতিরিক্ত সচিব কবিরুল ইজদানী খান, বস্ত্র ও পাট অতিরিক্ত সচিব তসলিমা কানিজ নাহিদা, শিল্প মন্ত্রণালয় এবং আইন বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের যুগ্মসচিব ফেরদৌসী বেগম এবং মাহবুবুর রহমান, বাংলাদেশ এমপ্লেয়ার্স ফেডারেশনের মহাসচিব ফারুখ আহমেদ, বাংলাদেশ লেবার ফেডারেশনের সভাপতি শাহ মোঃ আবু জাফর এবং বাংলাদেশ ট্রেড ইউনিয়ন কেন্দ্রের সাধারণ সম্পাদক ডা. ওয়াজেদুল ইসলাম খান, জাতীয় শ্রমিক লীগের সহসভাপতি মোঃ শাহাবুদ্দিন মিয়া, মহিলা শ্রমিক লীগের সাধারণ সম্পাদক কাজী রহিমা আক্তার সাথী সভায় অংশগ্রহণ করেন।

 

প্রকল্পের নামে অর্থের অপচয় করা যাবে না :স্থানীয় সরকার মন্ত্রী

ঢাকা, ১৬ শ্রাবণ (৩১ জুলাই) :

স্থানীয় সরকার মন্ত্রী মোঃ তাজুল ইসলাম বলেছেন, প্রকল্প গ্রহণের নামে সরকারি অর্থের অপচয় করা যাবে না। ইমপেক্ট এবং আউটপুট বিশ্লেষণ করে প্রকল্প নেয়ার তাগিদ দিয়ে অপ্রয়োজনীয় প্রকল্প পরিহার করার জন্য সংশ্লিষ্টদের নির্দেশ দেন মন্ত্রী।

আজ মন্ত্রণালয়ে স্থানীয় সরকার বিভাগের সম্মেলন কক্ষে আয়োজিত চট্টগ্রাম মহানগরীর জলাবদ্ধতা নিরসনে গৃহীত পদক্ষেপসমূহের অগ্রগতি পর্যালোচনা সভায় সভাপতির বক্তব্যে মন্ত্রী একথা জানান।

তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী ড. হাছান মাহ্‌মুদ, শিক্ষা উপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল, চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের মেয়র রেজাউল করীম চৌধুরী সভায় উপস্থিত ছিলেন।

মন্ত্রী বলেন, চট্টগ্রাম দেশের ইকোনমিক হাব হিসেবে পরিচিত। এই শহরটি দেশের আইডল সিটি  হিসেবে গড়ে তোলার সুযোগ রয়েছে। দেশের অর্থনীতির অন্যতম এই শহরকে কোনোভাবেই অবমূল্যায়ন করার উপায় নেই। চট্টগ্রামের জলাবদ্ধতা নিরসনে যেসব প্রকল্প নেয়া হয়েছে সেগুলো কতটা কার্যকর হয়েছে তা দেখার প্রয়োজন রয়েছে। যদি কার্যকর না হয় অথবা যাচাই বাছাই না করে গ্রহণ করা হলে তা অত্যন্ত দুঃখজনক।

খাল ও ড্রেনগুলো পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন রাখার নির্দেশ দিয়ে মন্ত্রী বলেন, আপনারা খাল দখল করে অবৈধভাবে বিল্ডিং বানিয়ে পানির প্রবাহ বন্ধ করে রেখেছেন। খালের উপর দোকানপাট বানিয়েছেন। এগুলোর কারণে শহরে জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হয়। এ ব্যাপারে সবাইকে সচেতন হতে হবে। কিছু মানুষের জন্য কোটি কোটি মানুষের জীবন অতিষ্ট হতে পারে না। এসময় সকল খাল দখলমুক্ত করারও নির্দেশ দেন মন্ত্রী।

মন্ত্রী আরো জানান, সমস্যা সমাধানে চট্টগ্রাম সার্কিট হাউসে সকল পক্ষকে নিয়ে তিনি অনেকগুলো সভা করে সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠানসহ সংশ্লিষ্ট সকল সংস্থা ও দপ্তরকে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। সমস্যা একবারে নিরসন হয়েছে এমনটি দাবি করা যাবে না। তবে অগ্রগতি হয়নি এটি অস্বীকার করার সুযোগ নেই।

মোঃ তাজুল ইসলাম বলেন, আমরা দায়িত্বে চিরকাল থাকবো না। আজ মন্ত্রী বা সচিব বা বড় কোনো পদে আছি। কালকে নাও থাকতে পারি। কিন্তু আমরা যদি আমাদের ওপর অর্পিত দায়িত্ব যথাযথভাবে পালন করি তাহলে দেশটাতে পরিবর্তন আসবে। আমাদের ভবিষ্যৎ প্রজন্ম উন্নত-সমৃদ্ধ সুন্দর একটি দেশ পাবে।

মন্ত্রী বলেন, জলাবদ্ধতা সমস্যা চট্টগ্রামের বড় একটি সমস্যা। এই সমস্যা সমাধানে প্রধানমন্ত্রী নিজে সময়ে সময়ে নির্দেশনা দিয়েছেন। সেই নির্দেশনা অনুযায়ি পদক্ষেপ নেয়াও হয়েছে। এই সমস্যার পাশাপাশি অন্যান্য সমস্যা সমাধানে সরকার বিভিন্ন উদ্যোগ গ্রহণ করেছে। সরকারের অনেক সফলতা আছে। তিনি জানান, বর্জ্য সমস্যা বর্তমানে চ্যালেঞ্জ হিসেবে দাঁড়িয়েছে। গৃহস্থালি বর্জ্যের পাশাপাশি ইন্ড্রাস্ট্রিয়াল বর্জ্য, মেডিকেল বর্জ্য, নির্মাণ সামগ্রীর বর্জ্যসহ অন্যান্য বর্জ্য ব্যবস্থাপনা সরকার উদ্যোগ নিয়েছে। আর তা হলো বর্জ্য থেকে বিদ্যুৎ উৎপাদন। খুব শিগগিরই ঢাকা, গাজীপুর এবং চট্টগ্রামসহ অন্যান্য সিটি কর্পোরেশনগুলোতে বর্জ্য থেকে বিদ্যুৎ উৎপাদন শুরু হবে।

সভায় তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী বলেন, চট্টগ্রাম মহানগরীর জলাবদ্ধতা নিরসনে প্রকল্পের কাজ দ্রুত এগিয়ে নিতে হবে। চট্টগ্রাম শহরের জলাবদ্ধতা নিরসনে চাকতাই খাল খনন, কর্ণফুলী নদীর ড্রেজিংসহ সুনির্দিষ্ট প্রস্তাবনা তুলে ধরে প্রকল্প সংশ্লিষ্ট সমস্যাসহ অন্যান্য সমস্যা সমাধানে মেয়র এবং সংশ্লিষ্ট সকলকে তাগিদও দেন তিনি।

স্থানীয় সরকার বিভাগের সচিব মোহাম্মদ মেজবাহ্ উদ্দিন চৌধুরী, গৃহায়ন ও গণপূর্ত সচিব শহীদ উল্লা খন্দকারসহ স্থানীয় সরকার বিভাগের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা, চট্টগ্রাম উন্নয়ন ও বন্দর কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান, বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ডের মহাপরিচালক এবং চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের কর্মকর্তাসহ সংশ্লিষ্ট দপ্তর ও সংস্থার প্রতিনিধিগণ উপস্থিত ছিলেন।

 

বরিশালে পক্ষকালব্যাপী বিভাগীয় বৃক্ষমেলা শুরু 

বরিশাল, ১৬ শ্রাবণ (৩১ জুলাই) :

‘বৃক্ষপ্রাণে প্রকৃতি-প্রতিবেশ, আগামী প্রজন্মের টেকসই বাংলাদেশ’ প্রতিপাদ্য নিয়ে আজ থেকে বরিশাল বঙ্গবন্ধু উদ্যানে শুরু হয়েছে পক্ষকালব্যাপী জাতীয় বৃক্ষরোপণ অভিযান ও বৃক্ষমেলা-২০২২। প্রধান অতিথি পানি সম্পদ প্রতিমন্ত্রী জাহিদ ফারুক ফিতা কেটে এ মেলার উদ্বোধন করেন। বরিশাল জেলা প্রশাসন ও সামাজিক বন বিভাগ এ মেলার আয়োজন করে।

আজ বরিশাল শিল্পকলা একাডেমিতে আয়োজিত আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন বরিশাল বিভাগীয় কমিশনার মোঃ আমিন উল আহসান। অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তৃতা করেন বরিশাল জেলা প্রশাসক জসীম উদ্দীন হায়দার,  অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার ফজলুল করিম, সরকারি সৈয়দ হাতেম আলী কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর মোস্তফা কামাল, সরকারি মডেল স্কুল এন্ড কলেজের অধ্যক্ষ এহতেশামুল হক ও বীর মুক্তিযোদ্ধা কেএসএম মহিউদ্দিন মানিক।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষায় বৃক্ষরোপণের কোনো বিকল্প নেই। বৈশ্বিক মহামারি থেকে বাঁচার জন্য আমাদের পরিকল্পিতভাবে গাছ লাগাতে হবে। জনগণের মধ্যে ব্যাপক প্রচারের মাধ্যমে পরিবেশ সংরক্ষণ ও বৃক্ষরোপণ বিষয়ে সচেতনতা সৃষ্টি করতে হবে। পরিবেশ রক্ষায় বৃক্ষ নিধন থেকে সবাইকে বিরত থাকতে হবে। আমরা কোনো না কোনোভাবেই সবুজের ওপর নির্ভরশীল। তিনি বলেন, বর্তমানে যে ছাদ বাগান করা হচ্ছে তা পরিবেশের জন্য একটি ভালো দিক। প্রতিমন্ত্রী আবাদী জমি রক্ষা করে পরিকল্পিতভাবে ঘরবাড়ি তৈরি করার ওপর গুরুত্বারোপ করেন।

প্রতিমন্ত্রী আরো বলেন, ২০০৯ সালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সরকার গঠনের পর থেকে প্রকৃতি-পরিবেশসহ সব কিছু রক্ষা করে ভবিষ্যৎ প্রজন্মকে সুন্দর একটি দেশ উপহার দিতে চেষ্টা করে যাচ্ছেন। এবছর পানি সম্পদ মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে ১৭ লাখ গাছ লাগানো হবে বলে প্রতিমন্ত্রী জানান।

মেলায় অর্ধশতাধিক স্টল রয়েছে বলে জানিয়েছে বন বিভাগ। করোনাকালে দুই বছর বন্ধ থাকার পর পুনরায় এবার দেশব্যাপী জাতীয় বৃক্ষমেলার আয়োজন হচ্ছে। আগামী ১৪ আগস্ট পর্যন্ত চলবে এ মেলা ।

এর আগে এ উপলক্ষ্যে বর্ণাঢ্য র‌্যালি বের করা হয়। র‌্যালিতে প্রতিমন্ত্রীর নেতৃত্বে বরিশাল বিভাগীয় কমিশনার আমিন উল আহসান, জেলা প্রশাসক জসীম উদ্দীন হায়দার, বিভিন্ন সরকারি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা-কর্মচারী, শিক্ষক-শিক্ষার্থীসহ বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ র‌্যালিতে অংশগ্রহণ করেন।

 

বরিশালে পক্ষকালব্যাপী বিভাগীয় বৃক্ষমেলা শুরু 

বরিশাল, ১৬ শ্রাবণ (৩১ জুলাই) :

‘বৃক্ষপ্রাণে প্রকৃতি-প্রতিবেশ, আগামী প্রজন্মের টেকসই বাংলাদেশ’ প্রতিপাদ্য নিয়ে আজ থেকে বরিশাল বঙ্গবন্ধু উদ্যানে শুরু হয়েছে পক্ষকালব্যাপী জাতীয় বৃক্ষরোপণ অভিযান ও বৃক্ষমেলা-২০২২। প্রধান অতিথি পানি সম্পদ প্রতিমন্ত্রী জাহিদ ফারুক ফিতা কেটে এ মেলার উদ্বোধন করেন। বরিশাল জেলা প্রশাসন ও সামাজিক বন বিভাগ এ মেলার আয়োজন করে।

 

আজ বরিশাল শিল্পকলা একাডেমিতে আয়োজিত আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন বরিশাল বিভাগীয় কমিশনার মোঃ আমিন উল আহসান। অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বক্তৃতা করেন বরিশাল জেলা প্রশাসক জসীম উদ্দীন হায়দার,  অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার ফজলুল করিম, সরকারি সৈয়দ হাতেম আলী কলেজের অধ্যক্ষ প্রফেসর মোস্তফা কামাল, সরকারি মডেল স্কুল এন্ড কলেজের অধ্যক্ষ এহতেশামুল হক ও বীর মুক্তিযোদ্ধা কেএসএম মহিউদ্দিন মানিক।

 

পানি সম্পদ প্রতিমন্ত্রী জাহিদ ফারুক বলেছেন, পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষায় বৃক্ষরোপণের কোনো বিকল্প নেই। বৈশ্বিক মহামারি থেকে বাঁচার জন্য আমাদের পরিকল্পিতভাবে গাছ লাগাতে হবে। জনগণের মধ্যে ব্যাপক প্রচারের মাধ্যমে পরিবেশ সংরক্ষণ ও বৃক্ষরোপণ বিষয়ে সচেতনতা সৃষ্টি করতে হবে। পরিবেশ রক্ষায় বৃক্ষ নিধন থেকে সবাইকে বিরত থাকতে হবে। আমরা কোনো না কোনোভাবেই সবুজের ওপর নির্ভরশীল। তিনি বলেন, বর্তমানে যে ছাদ বাগান করা হচ্ছে তা পরিবেশের জন্য একটি ভালো দিক। প্রতিমন্ত্রী আবাদী জমি রক্ষা করে পরিকল্পিতভাবে ঘরবাড়ি তৈরি করার ওপর গুরুত্বারোপ করেন।

 

প্রতিমন্ত্রী আরো বলেন, ২০০৯ সালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সরকার গঠনের পর থেকে প্রকৃতি-পরিবেশসহ সব কিছু রক্ষা করে ভবিষ্যৎ প্রজন্মকে সুন্দর একটি দেশ উপহার দিতে চেষ্টা করে যাচ্ছেন। এবছর পানি সম্পদ মন্ত্রণালয়ের মাধ্যমে ১৭ লাখ গাছ লাগানো হবে বলে প্রতিমন্ত্রী জানান।

 

মেলায় অর্ধশতাধিক স্টল রয়েছে বলে জানিয়েছে বন বিভাগ। করোনাকালে দুই বছর বন্ধ থাকার পর পুনরায় এবার দেশব্যাপী জাতীয় বৃক্ষমেলার আয়োজন হচ্ছে। আগামী ১৪ আগস্ট পর্যন্ত চলবে এ মেলা ।

 

এর আগে এ উপলক্ষ্যে বর্ণাঢ্য র‌্যালি বের করা হয়। র‌্যালিতে প্রতিমন্ত্রীর নেতৃত্বে বরিশাল বিভাগীয় কমিশনার আমিন উল আহসান, জেলা প্রশাসক জসীম উদ্দীন হায়দার, বিভিন্ন সরকারি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তা-কর্মচারী, শিক্ষক-শিক্ষার্থীসহ বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ র‌্যালিতে অংশগ্রহণ করেন।

 

৩৮তম বিসিএস (অডিট এন্ড একাউন্টস) কর্মকর্তাদের ভ্যালেডিকশন অনুষ্ঠান

ঢাকা, ১৬ শ্রাবণ (৩১ জুলাই) :

৩৮তম বিসিএস (অডিট এন্ড একাউন্টস) ক্যাডারের সহকারী মহা-হিসাবরক্ষকদের বিভাগীয় প্রশিক্ষণ সমাপনী ‘ভ্যালেডিকশন সিরিমনি’ গতকাল ফিনান্সিয়াল ম্যানেজমেন্ট একাডেমিতে (ফিমা) অনুষ্ঠিত হয়েছে। ফিমা’র মহাপরিচালক আবুল কালাম আজাদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি কম্পট্রোলার এন্ড অডিটর জেনারেল (সিএজি) মোহাম্মদ মুসলিম চৌধুরী নবীন কর্মকর্তাদের ভবিষ্যৎ গড়তে দাপ্তরিক নির্দেশ পরিপালনে তৎপর হওয়ার পরামর্শ দেন এবং  প্রশিক্ষণার্থীদের মাঝে সনদ বিতরণ করেন।

কন্ট্রোলার জেনারেল অভ্‌ একাউন্টস, কন্ট্রোলার জেনারেল ডিফেন্স ফাইন্যান্স, সিনিয়র ডেপুটি কম্পট্রোলার এন্ড অডিটর জেনারেলসহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাবৃন্দ অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠান শেষে নবীন কর্মকর্তারা সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিবেশন করেন।

 

বাংলাদেশ শ্রমনির্ভর অর্থনীতি থেকে ডিজিটাল অর্থনীতির দিকে যাত্রা শুরু করেছে :আইসিটি প্রতিমন্ত্রী

গাজীপুর, ১৬ শ্রাবণ (৩১ জুলাই) :

হাইটেক পার্ক হবে ডিজিটাল অর্থনীতির চালিকাশক্তি উল্লেখ করে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেছেন, বাংলাদেশ শ্রমনির্ভর অর্থনীতি থেকে ডিজিটাল অর্থনীতির দিকে যাত্রা শুরু করেছে।

গাজীপুরের কালিয়াকৈরে বঙ্গবন্ধু হাইটেক সিটিতে বাংলাদেশ টেকনোসিটি লিমিটেড ও ফেলিসিটি আইডিসি ইন্টারনেট ডেটাসেন্টার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে প্রতিমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

পলক উপাত্ত বিশ্লেষণভিত্তিক সল্যুশন দিয়ে তেলসমৃদ্ধ অনেক জাতি থেকে বাংলাদেশ আরো সমৃদ্ধ হবে উল্লেখ করে তিনি বলেন, ইতিমধ্যেই আমরা আমাদের তথ্য-উপাত্তের নিরাপত্তার জন্য ডেটা প্রটেকশন অ্যাক্টের খসড়া প্রণয়ন করেছি। সবার মতামত নিয়েই এই আইন করা হবে। আশা করা যাচ্ছে, এখানে (টেকনোসিটি ও ফেলিসিটি আইডিসি ইন্টারনেট ডেটাসেন্টারে) আরো ২ থেকে আড়াইশ’ কোটি টাকার অতিরিক্ত বিনিয়োগ আসবে। তিনি বলেন, আগামী ১০ বছরের মধ্যে এখানে আরো ৫০ হাজার মানুষের কর্মসংস্থান হবে এবং এই সময়ের মধ্যে হাইটেক টাউনশিপে ইকোসিস্টেম গড়ে উঠবে।

প্রধানমন্ত্রীর আইসিটি উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদের দূরদৃষ্টি সিদ্ধান্তের ফসল ডিজিটাল বাংলাদেশ এখন উপভোগ করছে উল্লেখ করে প্রতিমন্ত্রী বলেন, কাওরান বাজারে কোনো জয়গা খালি নেই। বঙ্গবন্ধু হাইটেক সিটিতে বিনিয়োগের এখনই সঠিক সময়। তাই এখনই অল্প বিনিয়োগে স্বল্প খরচে হাইটেক পার্কে ব্যবসা-বাণিজ্য শুরু করা যাবে। হার্ডওয়্যার, সফটওয়্যার কিংবা বিপিও যে ব্যবসাই হোক না কেনো আমাদের এখানে যে সুবিধা আছে বাংলাদেশের কোথাও সে সুবিধা পাওয়া যাবে না।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, ইতিমধ্যেই স্টার্টআপ কোম্পানি বাংলাদেশ গঠন করে দিয়ে প্রধানমন্ত্রী ৫০০ কোটি টাকা দিয়েছেন। ১০০ কোটি টাকা বিনিয়োগ শুরু হয়েছে। হাইটেক পার্কে কেউ আবেদন করলে সেখান থেকেও আমরা তাদেরকে ইক্যুইটি ইনভেস্টমেন্টের সুযোগ দিতে পারি।

শেষে তিনি নতুন ডেটা সেন্টার ও নোকিয়া মোবাইল ফোন ফ্যাক্টরি ঘুরে দেখেন।

 

সরকারকে ধাক্কা দিতে গিয়ে বিএনপি ইতিমধ্যেই পড়ে গেছে: তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী

 

ঢাকা, ১৬ শ্রাবণ (৩১ জুলাই) :

আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক এবং তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী ড. হাছান মাহ্‌মুদ বলেছেন, সরকারকে ধাক্কা দিতে গিয়ে বিএনপি ইতিমধ্যেই পড়ে গেছে।

আজ সচিবালয়ে ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়ন (ডিইউজে)- এর নবনির্বাচিত পরিষদের সদস্যদের সাথে মতবিনিময়কালে বিএনপিনেতাদের সাম্প্রতিক মন্তব্য ‘সরকারকে ধাক্কা মেরে ফেলে দেয়া বাকি’ বিষয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী একথা বলেন।

ড. হাছান বলেন, ‘বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সরকার অনেক শক্ত ভিতের ওপর দাঁড়িয়ে। আপনারা জানেন যে, কোনো শক্ত দেয়ালে যদি কেউ ধাক্কা দেয় সে নিজেই পড়ে যায়, দেয়াল কিন্তু নড়েও না কিংবা সেই দেয়ালে যদি কেউ মাথা ঠোকে তাহলে মাথা ফেটে যায়। বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের ভিত অনেক গভীরে প্রোথিত। আসলে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সরকারকে ধাক্কা দিতে গিয়ে বিএনপি ইতিমধ্যেই পড়ে গেছে। সুতরাং আবার যদি ধাক্কা দিতে যায় তখন আবার পড়ে যাবে, মাথাও ফেটে যেতে পারে।’

বিএনপি নেতাদের আরেক মন্তব্য ‘বিদ্যুতের লোডশেডিং এর জন্য দায়ী সরকারের দুর্নীতি’ এর জবাবে তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘সমগ্র পৃথিবীতে আজকে বিদ্যুতের জন্য, জ্বালানির জন্য হাহাকার। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের পর যে জার্মানিতে কখনো বিদ্যুৎ যায়নি, সেখানে বিদ্যুৎ সাশ্রয়ের জন্য জনগণকে আহ্বান জানানো হয়েছে এবং পানি গরম করার বিদ্যুৎ বন্ধ রয়েছে। আমেরিকায় বিদ্যুৎ সাশ্রয়ের জন্য নাগরিকদের কাছে এসএমএস করা হয়েছে। ফ্রান্সেও একই আহ্বান জানানো হয়েছে। অস্ট্রেলিয়ায় নিউ সাউথ ওয়েলস এবং সিডনিতে দু’ঘণ্টা করে লোডশেডিং হয়েছে। স্পেনে প্রধানমন্ত্রী আহ্বান জানিয়েছেন টাই না পরার জন্য, কারণ টাই পরলে গরম লাগবে, গরম লাগলে এসি বেশি চালাতে হয়।’

বিদ্যুৎ উৎপাদনের জ্বালানির দাম বেড়ে গেছে, গ্যাসের দাম ১০গুণ বৃদ্ধি পেয়েছে, এজন্য সমগ্র পৃথিবীব্যাপী বিদ্যুতের রেশনিং করা হচ্ছে উল্লেখ করে মন্ত্রী হাছান বলেন, উন্নত দেশে যে ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে আমাদের দেশেও সেই ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। আমরা আশা করছি ডিসেম্বর নাগাদ এ অবস্থা আর থাকবে না।

হাছান মাহমুদ বলেন, বিএনপি এগুলো বোঝে, বুঝেও তারা এরকম কথা বলে। বিএনপির তো এ নিয়ে কথা বলার সুযোগ নাই। কারণ তারা তো মানুষকে বিদ্যুৎ দিতে পারে নাই। মানুষ যখন বিদ্যুতের দাবি করেছে, তখন গুলি করে তাদের হত্যা করেছে। বিদ্যুৎ তারা দিতে পারেনি কিন্তু তারেক জিয়ার প্রতিষ্ঠানে উৎপাদিত বিদ্যুতের খাম্বা লাগিয়েছে সারা দেশে। দেখলাম তারা হারিকেন নিয়ে মিছিল করেছে। এর অর্থ দু’টি হতে পারে। একটি হচ্ছে হারিকেন মার্কার মুসলিম লীগ মিলিয়ে গেছে, এখন তারা আবার হারিকেন ধরে মুসলিম লীগ হতে চায় কি না। আরেকটি হচ্ছে, হারিকেনকে যে কোনো সময় পেট্রোলবোমা বানিয়ে ফেলা যায়।

নবম ওয়েজবোর্ড নিয়ে প্রশ্নের উত্তরে মন্ত্রী বলেন, ‘যে মামলার প্রেক্ষিতে জটিলতা তৈরি হয়েছে তা নিষ্পত্তির জন্য মন্ত্রণালয় কাজ করছে। সাংবাদিকদের অনুরোধ জানাবো, মালিক পক্ষকে ওয়েজবোর্ড বাস্তবায়ন করার জন্য বলতে।’ এসময় সংবাদপত্র মালিক সমিতি-নোয়াবের দৈনিক পত্রিকার মূল্যবৃদ্ধির ঘোষণা সম্পর্কে প্রশ্নের জবাবে ড. হাছান বলেন, ‘নোয়াব বলেছে তাদের অনেক দাবি ছিল যার বেশকিছু বাস্তবায়িত হয়নি। সব দাবির বাস্তবায়ন সম্ভব হয় না, সরকারকে সবকিছু মিলিয়ে সিদ্ধান্ত নিতে হয়। আর সংবাদপত্রগুলো বেসরকারি মালিকানাধীন, তারা দাম বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নিতে পারে। তবে এ ক্ষেত্রে সবার সাথে আলাপ আলোচনা করে  বাড়ালে ভালো হতো।’

ডিইউজে সভাপতি সোহেল হায়দার চৌধুরীর নেতৃত্বে সিনিয়র সহ-সভাপতি এম এ কুদ্দুস,
সহসভাপতি মানিক লাল ঘোষ, সাধারণ সম্পাদক আকতার হোসেন, যুগ্ম সম্পাদক খায়রুল আলম, কোষাধ্যক্ষ আশরাফুল ইসলাম, সাংগঠনিক সম্পাদক এ জিহাদুর রহমান জিহাদ, আইন বিষয়ক সম্পাদক এস এম সাইফ আলী, দপ্তর সম্পাদক আমানউল্লাহ আমান, কল্যাণ সম্পাদক জুবায়ের রহমান চৌধুরী, নারী বিষয়ক সম্পাদক সুরাইয়া অনু, নির্বাহী সদস্য ইব্রাহীম খলিল খোকন, আসাদুর রহমান, সলিম উল্লাহ সেলিম, আনোয়ার হোসেন, মহিউদ্দিন পলাশ, রেহানা পারভীন, শফিক বাশার ও কুদ্দুস আফ্রাদ এসময় ডিইউজের ১০ দফা দাবি সংবলিত একটি পত্র তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রীর কাছে হস্তান্তর করেন।

সংশোধনীসহ গণমাধ্যমকর্মী আইন ও নবম ওয়েজবোর্ড বাস্তবায়ন, বেতার, টিভি ও অনলাইন গণমাধ্যমকে ওয়েজবোর্ডের আওতায় আনা, বেতন-ভাতা অপরিশোধিত রাখা পত্রিকাকে সরকারি সুবিধার বাইরে রাখা, পত্রিকার সঠিক প্রচার সংখ্যা নির্ধারণ, সরকারি সকল গণমাধ্যম প্রতিষ্ঠানে ডিইউজের প্রতিনিধিত্ব, সব গণমাধ্যমে নারীবান্ধব পরিবেশ ও শিশু দিবাযত্ন কেন্দ্র রাখা, সাগর-রুনি হত্যার বিচার, সাংবাদিক হয়রানি, মনিটরিং সেল গঠন এবং সাংবাদিকদের বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের অপব্যবহার বন্ধ করার দাবি জানান তারা।

বৈশ্বিক সংকট কাটিয়ে উঠতে দেশপ্রেমের সাথে কাজ করতে হবে: পরিবেশমন্ত্রী

ঢাকা, ১৫ শ্রাবণ (৩০ জুলাই) :

পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রী মোঃ শাহাব উদ্দিন বলেছেন, বৈশ্বিক সংকট কাটিয়ে উঠতে দেশপ্রেমে উজ্জ্বীবিত হয়ে দেশের উন্নয়নে কাজ করতে হবে। প্রধানমন্ত্রীর দিকনির্দেশনা অনুযায়ী কর্মপরিল্পনা বাস্তবায়ন করে দেশকে এগিয়ে নিয়ে যেতে হবে। সরকারের উন্নয়ন কর্মসূচি শতভাগ বাস্তবায়ন করতে বছরের শুরু থেকেই কাজ করতে হবে। কাজের সফলতার জন্য আন্তরিকতা ও পেশাদারিত্বের সাথে কাজ করতে হবে।

আজ পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়ের ২০২১-২২ অর্থবছরের বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচি (এডিপি)-র জুন ২০২২ পর্যন্ত বাস্তবায়ন অগ্রগতি পর্যালোচনার জন্য ভার্চুয়ালি আয়োজিত মাসিক সভায় সভাপতির বক্তব্যে মন্ত্রী এসব কথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, সুন্দরবন সংরক্ষণে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়ে কাজ করতে হবে। বছরের শুরু থেকেই পুরো বছরের বাস্তবায়নযোগ্য কর্মপরিকল্পনা গ্রহণ করতে হবে। সকল ক্ষেত্রেই জাতিসংঘের টেকসই উন্নয়ন লক্ষ্যমাত্রাসমূহ অর্জনের জন্য কাজ করতে হবে। চলমান প্রকল্পগুলো বাস্তবায়নপূর্বক দেশের বায়ুদূষণ, শব্দদূষণ নিয়ন্ত্রণে কাজ করতে হবে।

সভায় পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়ের উপমন্ত্রী বেগম হাবিবুন নাহার, সচিব ডক্টর ফারহিনা আহমেদ, অতিরিক্ত সচিব ইকবাল আব্দুল্লাহ হারুন, অতিরিক্ত সচিব মোঃ মিজানুল হক চৌধুরী, অতিরিক্ত সচিব মোঃ মনিরুজ্জামান, অতিরিক্ত সচিব সঞ্জয় কুমার ভৌমিক, পরিবেশ অধিদফতরের মহাপরিচালক ডক্টর আবদুল হামিদ, বন অধিদফতরের প্রধান বন সংরক্ষক মোঃ আমির হোসাইন চৌধুরীসহ দফতর প্রধানগণ ও বিভিন্ন প্রকল্পের পরিচালকরা আলোচনায় অংশ নেন। সভায় সকলে চলমান প্রকল্পগুলো যথাসময়ে সম্পন্ন করার বিষয়ে আলোচনা করেন।

হাইকোর্টে ১১ জন অতিরিক্ত বিচারক নিয়োগ

 

ঢাকা, ১৬ শ্রাবণ (৩১ জুলাই) :

রাষ্ট্রপতি ১১ জন ব্যক্তিকে সুপ্রিম কোর্টের হাইকোর্ট বিভাগে অতিরিক্ত বিচারক হিসেবে নিয়োগ দিয়েছেন। সংবিধানের ৯৮ অনুচ্ছেদে প্রদত্ত ক্ষমতাবলে ১১ জন ব্যক্তিকে অনধিক দুই বছরের জন্য বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্টের হাইকোর্ট বিভাগে অতিরিক্ত বিচারক নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। এ নিয়োগ শপথ গ্রহণের তারিখ থেকে কার্যকর হবে।

নতুন নিয়োগ পাওয়া অতিরিক্ত বিচারকরা হলেন, পিআরএল ভোগরত জেলা ও দায়রা জজ
মো. শওকত আলী চৌধুরী, কুমিল্লার জেলা ও দায়রা জজ মো. আতাবুল্লাহ, ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল বিশ্বজিৎ দেবনাথ, ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল মো. আমিনুল ইসলাম, সুপ্রিম কোর্টের এডভোকেট মো. আলী রেজা, সুপ্রিম কোর্টের রেজিস্ট্রার জেনারেল মো. বজলুর রহমান, ঢাকা মহানগর দায়রা জজ কে এম ইমরুল কায়েশ, টাঙ্গাইল জেলা ও দায়রা জজ ফাহমিদা কাদের, ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল মো. বশির উল্লাহ, সুপ্রিম কোর্টের এডভোকেট এস এম মাসুদ হোসেন দোলন ও সুপ্রিম কোর্টের এডভোকেট এ কে এম রবিউল হাসান।

আজ আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

 

আনানাস ট্রাভেল লিমিটেডের নিকট পাওনা বা অভিযোগ থাকলে ধর্ম মন্ত্রণালয়কে অবহিত করতে হবে

ঢাকা, ১৬ শ্রাবণ (৩১ জুলাই) :

ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয় কর্তৃক নিবন্ধিত ওমরাহ এজেন্সি আনানাস ট্রাভেল লি. (লাইসেন্স নং-২৪৪) এর ওমরাহ লাইসেন্স বাতিল হওয়ায় জামানতের এফডিআর ফেরত প্রদানের জন্য আবেদন করেছে। এ এজেন্সির নিকট কোনো ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠানের মালিকানার অংশীদার হিসেবে পাওনা বা অভিযোগ থাকলে আগামী ২ আগস্টের মধ্যে প্রমাণসহ ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয়কে অবহিত করার জন্য বলা হয়েছে।

ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

 

ডিজিটাল বাংলাদেশ বিষয়ক ‘বেস্ট রিপোর্টিং অ্যাওয়ার্ড’ প্রদান করলেন আইসিটি প্রতিমন্ত্রী

ঢাকা, ১৬ শ্রাবণ (৩১ জুলাই) :

তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের উদ্যোগে গতকাল রাজধানীর পর্যটন ভবনে বিভিন্ন মিডিয়ার রিপোর্টারদের মাঝে ডিজিটাল বাংলাদেশ বিষয়ক ‘বেস্ট রিপোর্টিং অ্যাওয়ার্ড’ প্রদান করা হয়। তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক প্রধান অতিথি হিসেবে এ পুরস্কার প্রদান করেন।

ডিজিটাল বাংলাদেশ নিয়ে প্রতিবেদন প্রচার ও প্রকাশ করায় ২ ক্যাটাগরিতে গণমাধ্যমের ৯ প্রতিবেদককে পুরস্কৃত করা হয়। টেলিভিশন ও রেডিও ক্যাটেগরিতে একাত্তর টেলিভিশনের সিনিয়র রিপোর্টার শেখ রাকিবুল্লাহ হাসান, বাংলাদেশ টেলিভিশনের সিনিয়র রিপোর্টার কুমার বিশ্বজিত রায়, চ্যানেল ২৪ এর স্টাফ রিপোর্টার মুরসালিন হক জুনায়েদ এবং বাংলাদেশ টেলিভিশনের স্টাফ রিপোর্টার শিহাব হোসাইন। পত্রিকা ও অনলাইন ক‌্যাটাগরিতে দৈনিক দেশ রূপান্তরের প্রধান প্রতিবেদক উম্মুল ওয়ারা সুইটি, দৈনিক ইত্তেফাকের সিনিয়র রিপোর্টার সমীর কুমার দে মন্ডল, বাংলাদেশ সংবাদ সংস্থার স্টাফ রিপোর্টার সৈয়দ এলতেফাত হোসাইন, ঢাকা পোস্টের জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক আবু সালেহ সায়াদাত এবং দৈনিক সমকালের বিশেষ প্রতিনিধি রাশেদ মেহেদী পুরস্কৃত হয়েছেন। গণমাধ্যম কর্মীদের ৩০০ প্রতিবেদকের প্রতিবেদন মূল‌্যায়ন করে এই পুরস্কার দেয়া হয়।

অনলাইন সংযুক্তিতে আইসিটি বিভাগের জ্যেষ্ঠ সচিব এন এম জিয়াউল আলমের সভাপতিত্বে পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ হাইটেক পার্ক কর্তৃপক্ষের ব্যবস্থাপনা পরিচালক বিকর্ণ কুমার ঘোষ, স্বাগত বক্তব্য রাখেন প্রধানমন্ত্রীর উপ-প্রেস সচিব হাসান জাহিদ তুষার।

আইসিটি প্রতিমন্ত্রী বলেন, ধাপে ধাপে আমরা ডিজিটাল বাংলাদেশ বাস্তবায়ন করেছি। এর সুফল দেশের মানুষ পাচ্ছে। তিনি চতুর্থ শিল্প বিপ্লবে ব‌াংলাদেশের সাংবাদিকরা যেন বিশ্বে নেতৃত্ব দিতে পারেন সেজন‌্য ডিজিটাল লিডারশিপ ট্রেনিংয়ে তাদের অন্তর্ভুক্ত করার ঘোষণা দেন। পলক বলেন, সংবাদপত্র হচ্ছে সমাজের দর্পণ। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকারের সিদ্ধান্ত গ্রহণের জায়গায় জনগণের মতামত যাতে আরো প্রতিফলিত হয়, সেকারণে ৫৬টি মন্ত্রণালয়কে সম্পৃক্ত করে আগামী দুই-তিন মাসের মধ্যে আইসিটি বিভাগ থেকে অত্যন্ত আধুনিক পোর্টাল চালু করা হবে। যেটির নাম হবে ‘জনতার সরকার পোর্টাল’। তিনি বলেন, ডিজিটাল বাংলাদেশ বাস্তবায়নের পর এবার আমরা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ভিশন ২০৪১ সালের মধ্যে বুদ্ধিদীপ্ত, সৃজনশীল, উন্নত, উদ্ভাবনী স্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মাণে কাজ শুরু করেছি। আগামী সেপ্টেম্বর নাগাদ ‘স্মার্ট বাংলাদেশ’ বাস্তবায়নের রূপরেখা প্রকাশ করার কথাও তিনি জানান ।

 

Read us@googlenews

 

Social

More News
© Copyright: 2020-2022

Bangladesh Beyond is an online version of Fortnightly Apon Bichitra 

(Reg no: DA 1825)

Developed By Bangladesh Beyond